দিলীপ ঘোষকে মুখ্যমন্ত্রীর মুখ বলেছিলেন, দলের অন্দরে ধমক খেলেন সৌমিত্র খাঁ

দিলীপ ঘোষকে মুখ্যমন্ত্রীর মুখ বলেছিলেন, দলের অন্দরে ধমক খেলেন সৌমিত্র খাঁ
এই ধরনের 'লাগামছাড়া' মন্তব্য নিস্প্রয়োজন তাঁকে বুঝিয়ে দিল দল।

এই ধরনের 'লাগামছাড়া' মন্তব্য নিস্প্রয়োজন তাঁকে বুঝিয়ে দিল দল।

  • Share this:

    #কলকাতা: বিজেপির মুখ্যমন্ত্রীর মুখ কে? হাওয়ায় ঘুরতে থাকা প্রশ্নটাকে লুফে নিয়েছিলেন তিনি। এখন মাশুল দিতে হচ্ছে কড়ায় গণ্ডায়। তিনি সৌমিত্র খাঁ, দিলীপ ঘোষকে মুখ্যমন্ত্রীত্বের দাবিদার বলে দলের বিরাগভাজন হলেন। এই ধরনের 'লাগামছাড়া' মন্তব্য নিস্প্রয়োজন তাঁকে বুঝিয়ে দিল দল।

    সূত্রের খবর, এদিন আইসিসিআর-এর বিজেপির বিশেষ সাংগঠনিক বৈঠকে কেন্দ্রীয় নেতা শিবপ্রকাশ এই প্রসঙ্গের অবতারণা করেন। সৌমিত্রকে ধমকের সুরেই বলা হয়, এই ধরনের মন্তব্য করা যাবে না। মুখ্যমন্ত্রীর মুখ ঠিক করবেন নরেন্দ্র মোদি- অমিত শাহরা। যদি কোনও মন্তব্য করতেই হয় তবে তা করবে দলীয় মুখপাত্র।

    রাজ্যে এসে অমিত শাহ বলে গিয়েছিলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী হবে বাংলারই ভূমিপুত্র। তখন সদ্য দলে এসেছেন শুভেন্দু অধিকারী। ফলে জল্পনা শুরু হয় শাহ কি শ্রীঅধিকারীর কথাই ইঙ্গিত করলেন, নাকি দিলীপ ঘোষ ? চর্চায় এসেছিল সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের নামও।


    এই জল্পনার মধ্যেই দাঁতনের দেউলিতে সৌমিত্র বলে বসেন, প্রকৃত নেতা দিলীপ ঘোষ, তিনিই এই পদের দাবিদার। আর সেই মন্তব্যেই চটেছে বিজেপির উচ্চতর নেতৃত্ব। এদিনের মিটিংয়ে প্রচারমাধ্যমে এই ধরনের মন্তব্য থেকে বিরত থাকার পাশাপাশি অপরিচিতদের সঙ্গে কথাবার্তায় না জড়ানোর নির্দেশও দেওয়া হয়েছে বলে খবর। রাজনৈতিক মহলের ব্যখ্যা, আসলে সৌমিত্রকে সামনে রেখে বেফাঁস মন্তব্যে রাশ টানতে চাইছে দল।

    সূত্রের খবর, বিষয়টি নিয়ে ঘনিষ্ঠমহলে আক্ষেপও প্রকাশ করেছেন সৌমিত্র। কারণ এই হাওয়া উঠেছে অনেক আগে থেকেই। দিন কয়েক আগেই বঙ্গভূমি ওয়েব পোর্টালের উদ্বোধনে একটি তথ্যচিত্র দেখানো হয় দিলীপ ঘোষের উপস্থিতিতেই। সেখানে দিলীপ ঘোষের মা-ও বলেন দিলীপ ঘোষকেই এই পদে দেখতে চান। সেই ফুটেজ গিয়েছিল দিল্লিতেই। দিলীপকে মুখ্যমন্ত্রী দেখতে চান, চারপাশে এ কথা বলার লোক নেহাত কম নেই। তাই সব মিলিয়ে সৌমিত্র মনে করছেন, তাঁকেই বলির পাঠা হতে হল।

    Published by:Arka Deb
    First published:

    লেটেস্ট খবর