বাংলায় ‘শিকারা’ বানাতে চাই: বিধু বিনোদ চোপড়া

বাংলায় ‘শিকারা’ বানাতে চাই: বিধু বিনোদ চোপড়া
  • Share this:

#কলকাতা: টিম ‘শিকারা’-কে সঙ্গী করে তিলোত্তমায় বিধু বিনোদ চোপড়া। দক্ষিণ কলকাতার একটি মাল্টিপ্লেক্সে দর্শকের সঙ্গে দেখা করলেন বিধু। জানতে চাইলেন তাঁদের কেমন লেগেছে এই ছবি।  ‘‘শিকারা’ ভাল লেগে থাকলে লোকজনদের এই ছবি দেখতে বলবেন। আমার ছবিকে বয়কট করতে বলছে অনেকে। ওয়ার্ড অফ মাউথটা খুব প্রয়োজন।’ একই অনুরোধ করলেন ছবির নায়ক-নায়িকা আদিল-সাদিয়াও।

 ১১ বছর ধরে এই ছবিটি বানিয়েছেন বিধু। ‘শিকারা’ নিজের মাকে উৎসর্গ করেছেন পরিচালক। বিধুর পরিচালিত যে কোনও ছবি ‘মুন্নাভাই’ সিরিজ হোক কিংবা ‘থ্রি ইডিয়টস’ ওপেনিং ডে-র কালেকশন হয় আকাশ ছোঁয়া। কিন্তু ‘শিকারা’র ক্ষেত্রে বিধু জানতেন এই ছবির প্রথম দিনের ব্যবসা ৩০ লক্ষের বেশি হবে না। কিন্তু প্রথম দিনে এক কোটি ২০ লক্ষ টাকার ব্যবসা করেছে ‘শিকারা’। ছবি দর্শকের ভাল লাগছে তা স্পষ্ট।

‘কেউ আমার উদ্দেশ্য নিয়ে প্রশ্ন তুললে আমার কষ্ট হয়। আপনারা সত্যিকারের রক্ত-মাংসের মানুষ, যাঁদের এই ছবি ভাল লেগেছে। কিন্তু ট্যুইটার বা অন্য সোশ্যাল সাইটে যাঁরা বদমান ছড়ায়, তাঁরা অর্থের বিনিময় সেটা করে থাকে। হেট কমেন্ট করলে যদি টাকা কামানো যায় তাতে খারাপ কী আছে’, মন্তব্য বিধু বিনোদ চোপড়া।‘শিকারা’ তাঁর সেরা ছবি বলে মনে করেন বিধু বিনোদ চোপড়া। পরিচালক জানালেন, তিনি অনেক ট্যালেন্ট খুঁজে বের করেছেন বিদ্যাও সেই তালিকায় পড়ে। কিন্তু সাদিয়া ও আদিল তাঁর আবিষ্কৃত সেরা প্রতিভা।

আর্টিক্যাল ৩৭০ উঠে যাওয়ার সময়ের সঙ্গে ছবির মুক্তির সময় মেলাননি পরিচালক। ‘শিকারা’ মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল সেপ্টেম্বর মাসে। কিন্তু ইচ্ছে করেই রিলিজ পিছিয়ে দেন তিনি। কারও যাতে মনে না হয় যে সময়ের সুযোগ নিচ্ছেন বিধু। তবে এই সময় ‘শিকারা’ মুক্তি পাওয়ায় খুশি বিধু।

সাদিয়া কাশ্মিরের মেয়ে। আদিল ভোপালের ছেলে। দুু’জনের কেউ-ই অভিনয় করেননি কখনও। তাঁদের নিজস্ব সরলতাই ফুটে উঠেছে ছবিতে।‘‘শিকারা’ আমি বাংলাতে বানাতে চাই, কিন্তু তাঁর জন্য আমার বাংলায় চিত্রনাট্য লেখার জন্য একজন দক্ষ মানুষ চাই’, বলে জানালেন, বিধু বিনোদ চোপড়া।

ARUNIMA DEY

First published: February 9, 2020, 8:15 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर