• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • বেআইনি নির্মাণ নিয়ে কড়া পদক্ষেপ বিধাননগর পুরসভার

বেআইনি নির্মাণ নিয়ে কড়া পদক্ষেপ বিধাননগর পুরসভার

শেষপর্যন্ত বেআইনি নির্মাণ নিয়ে কড়া পদক্ষেপ বিধাননগর পুরসভার। সুকান্তনগর, শান্তিনগর এবং নবপল্লীতে মোট একত্রিশটি বেআইনি বাড়ি চিহ্নিত করল পুরসভা।

শেষপর্যন্ত বেআইনি নির্মাণ নিয়ে কড়া পদক্ষেপ বিধাননগর পুরসভার। সুকান্তনগর, শান্তিনগর এবং নবপল্লীতে মোট একত্রিশটি বেআইনি বাড়ি চিহ্নিত করল পুরসভা।

শেষপর্যন্ত বেআইনি নির্মাণ নিয়ে কড়া পদক্ষেপ বিধাননগর পুরসভার। সুকান্তনগর, শান্তিনগর এবং নবপল্লীতে মোট একত্রিশটি বেআইনি বাড়ি চিহ্নিত করল পুরসভা।

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #কলকাতা: শেষপর্যন্ত বেআইনি নির্মাণ নিয়ে কড়া পদক্ষেপ বিধাননগর পুরসভার। সুকান্তনগর, শান্তিনগর এবং নবপল্লীতে মোট একত্রিশটি বেআইনি বাড়ি চিহ্নিত করল পুরসভা। বাড়ির প্রোমোটারদের বিরুদ্ধে বিধাননগর দক্ষিণ থানায় এফআইআরও দায়ের করা হয়েছে। সেই এফআইআরের ভিত্তিতেই প্রোমোটারদের নোটিস পাঠাচ্ছে পুলিশ।

    সল্টলেক-নিউটাউনের মতো এলাকায় কোনওভাবেই বরদাস্ত নয় তোলাবাজি ও বেআইনি নির্মাণ। অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায়কে গ্রেফতার করিয়ে দলীয় স্তরে সেই বার্তাই ছড়িয়ে দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। প্রকাশ্য মঞ্চ থেকে নাম করেও হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন সব্যসাচী দত্ত-কাকলি ঘোষদস্তিদারদের। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সেই কড়া দাওয়াইয়েই অবশেষে নড়েচড়ে বসল বিধাননগর পুরসভা। বিধাননগরের ৩৫ নম্বর ওয়ার্ডে বেআইনি বাড়ি চিহ্নিত করল পুর কর্তৃপক্ষ। বেআইনি নির্মাণে পদক্ষেপ - পুরসভার অ্যাডেড এরিয়া সুকান্তনগর, শান্তিনগর এবং নবপল্লীতে বেআইনি বাড়ি চিহ্নিত - মোট ৩১টি বাড়ি চিহ্নিত করে পুরসভা - বিধাননগর দক্ষিণ থানায় এফআইআর করা হয় প্রোমোটারদের বিরুদ্ধে - এফআইআরের ভিত্তিতে প্রোমোটারদের নোটিস পুলিশের - ইতিমধ্যেই বেশ কয়েকজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ সুকান্তনগর-শান্তিনগরের মতো এলাকায় দীর্ঘদিন ধরেই বেআইনি নির্মাণের রমরমা চলছে বলে অভিযোগ। তবে নবান্ন সূত্রে খবর, মুখ্যমন্ত্রীর কড়া ধমকের পরই তৎপর হয়ে ওঠে পুলিশ-প্রশাসন। এব্যাপারে ৩৫ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর জয়দেব নস্করের সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ করা হলে, তিনি কোনও প্রতিক্রিয়া দিতে চাননি। শুধু জানিয়েছেন, আইন আইনের পথে চলবে। এখন সেই পথে হেঁটেই বিধাননগরে বেআইনি নির্মাণ রুখতে চাইছে পুরসভা।
    First published: