Home /News /kolkata /
সাইকেলেই সুদিন! ভাগ্য়ের চাকা ঘুরছে সাইকেল দোকানদারদের

সাইকেলেই সুদিন! ভাগ্য়ের চাকা ঘুরছে সাইকেল দোকানদারদের

কিছু দিনের মধ্যেই রাজপথে গাড়ি ও বাইকের সঙ্গে জায়গা করে নিয়েছে দুই চাকার বন্ধু

  • Share this:

#কলকাতা: কথায় আছে ভাগ্যের চাকা ঘোরে, আজ যার ভাল তো কাল তার খারাপ। ভাগ্যের চাকা হয়তো এবার ভালোর দিকেই। কলকাতা শহরে প্রচুর লোকের বসবাস, সকাল থেকে রাত পর্যন্ত শুধুই দৌড়াচ্ছে গাড়ি। সবার যেন কেমন একটা উদ্দেশ্য, কেউ কাউকে না চিনলেও জোরে জোরে বাজাছে হর্ণ। রাস্তার শেষে পিছিয়ে পড়েছে সাইকেল। কই সাইকেলের চেনা ক্রিং ক্রিং শব্দ তো হয় না ? শহরের কত দোকান, কত ভীড়, এত লোকের চাহিদা মেটাতে হিমশিম খাচ্ছেন দোকানদার। কই এই দোকানে তো লাইন হয় না। এবার হয় তো সেই সব আক্ষেপের অবসানের সময় হতে চলেছে, এবার সাইকেলের দোকানদাররা মনে করছে সুদিন এল বলে।

সব আক্ষেপের অবসান হতে চলেছে সাইকেলের দোকানদারদের। লকডাউন শেষ করে আনলকের প্রথম পর্বে রাস্তায় হঠাৎ-ই দেখা মেলে সাইকেলের। প্রথমে লুকিয়ে লুকিয়ে সেই সাইকেল শহরের অলিগলিতে থাকলেও কিছু দিনের মধ্যেই রাজপথে গাড়ি ও বাইকের সঙ্গে জায়গা করে নিয়েছে দুই চাকার বন্ধু। অনেক সময় রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাফিক পুলিশ হাত দেখালেও এখন সবই মাফ। মঙ্গলবারের পর আর লুকিয়ে লুকিয়ে নয়, কলকাতা পুলিশের নগরপালের অনুমতি পেয়ে শহরের কম গুরুত্বপূর্ণ রাস্তায় জোরে ছুটছে সাইকেল। কেউ আর ভয় পাচ্ছেনা প্যাডেলে চাপ দিতে। তা দেখে সাইকেল মেরামতের কারিগররা আশায় বুক বাঁধছেন। এই বুঝি চোখের সামনে থাকা দোকান দেখেও না দেখা যা ছিল, এবার সেই দোকানেরই ডাক পড়ল। এই আশাই দেখছেন রাহুল, পিন্টু মধুরা।

আনন্দপুরের রাহুলের দোকান ছয় বছর ধরে। বিভিন্ন সময় তার দোকানে সাইকেল এলেও খুব তাড়া থাকে না। হঠাৎ করে সবাই সাইকেল দিয়েই বলছে কালই যেন কাজ শেষ হয়। তিনি বললেন, আগে সাইকেল দিলে ভুলে যেত, এখন সাইকেল দিলে তখনই নেবে, অফিস যাবে তো। পিন্টু মাহাতে লকডাউনে দোকান বন্ধ রেখে বাড়িতেই ছিলেন। শুধু একটাই চিন্তা এরপর? না, দোকান খুলেই জানালেন আগের মতো নয়, সাইকেল ঠিক করে নিজের সময়ই পাচ্ছি না। একই কথা মধু সাউয়ের মুখে। আগে বলতেন সাইকেল চালান, ওটাকে ফেলে রাখলে নষ্ট হবে। এখন বলেন দেখে চালান, খারাপ হলেই ঠিক করতে সময় দেবেন। মানুষ বেঁচে থাকে আশায়, ওঁদের আশা এটাই যেন সাইকেল চলে কলকাতায়।

Susobhan Bhattacharya
Published by:Ananya Chakraborty
First published:

Tags: Kolkata

পরবর্তী খবর