6th Phase Bengal Election violence: গুলি চলল অশোকনগরে! তৃণমূল বলছে এবারেও বাহিনীই, বিজেপির কাঠগড়ায় শাসক দল

6th Phase Bengal Election violence: গুলি চলল অশোকনগরে! তৃণমূল বলছে এবারেও বাহিনীই, বিজেপির কাঠগড়ায় শাসক দল

আহত তৃণমূল সমর্থক মনিরুল মণ্ডল।

তৃণমূল প্রার্থী নারায়ণ গোস্বামীর অভিযোগ, সিআরপিএফ গুলি চালিয়েছে।

  • Share this:

    #অশোকনগর: ষষ্ঠ দফায় রণক্ষেত্রের (6th Phase Bengal Election violence)  চেহারা নিল অশোকনগর। দফায় দফায় অশান্তি চলছিল সকাল থেকেই। বেলা গড়াতে মালিকবেড়িয়ার টেংরা গ্রামে গুলি চালনার অভিযোগও উঠল কেন্দ্রীয় বাহিনীর (Central Force) বিরুদ্ধে। সূত্রের খবর, গুলিতে দুই ব্যক্তি আহত হয়েছেন, তাঁদের একজনের নাম মনিরুল মণ্ডল। অন্য জনের পরিচয় এখনো জানা যায়নি। সূত্রের খবর জখম দুই ব্যক্তিই শাসকদলের (TMC) কর্মী। বাহিনীর কোন অংশ গুলি চালিয়েছে সে বিষয়েও কোনও নিশ্চিত তথ্য পাওয়া যায়নি। তৃণমূল প্রার্থী নারায়ণ গোস্বামীর অভিযোগ, সিআরপিএফ গুলি চালিয়েছে।

    বিজেপি অভিযোগ করছে, বেলা ১১ টা নাগাদ এই বিধানসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী তনুজা চক্রবর্তী আদর্শ শিক্ষায়াতনবুথে ঢুকতেই ঝামেলা শুরু হয়। অভিযোগ, তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা বোমাবাজিও শুরু করে। পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার চেষ্টা করেন জওয়ানরা। এই সময়েই গুলি চলে। বিজেপির অভিযোগ কেন্দ্রীয় বাহিনী নয় গুলি চালিয়েছে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরাই।

    এখানেই শেষ নয়। দিনভর উত্তপ্তই থেকেছে।  গতকাল রাতেই দিঘড়া-মালিকবেড়িয়া পঞ্চায়েত এলাকায় কাহারপাড়া ৮৫, ৮৬ নম্বর বুথের স্থানীয় বিজেপি নেতা অনিমেষ দেবকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে  তৃণমূলের বিরুদ্ধে। ওই বিজেপি নেতা বাড়ির সামনেই রাতে দাঁড়িয়ে ছিল। তখন অতর্কিত হামলা চালায় ওই যুবকরা । আহত যুবকের চিকিৎসা হয় সব্দালপুর গ্রামীণ হাসপাতালে ।

    পাশাপাশি অশোকনগর ভুরকুন্ডা পঞ্চায়েত দোগাছিয়া  ২৭ ও ২৮ নম্বর বুথে তৃণমূলের ক্যাম্পে ঢুকে তৃণমূল কর্মীদের মারধরের অভিযোগ উঠেছে রাজ্য পুলিশের বিরুদ্ধে। এলাকায় উত্তেজনা ছড়ায় এই ঘটনায়। তৃণমূলের দাবি, ভোট কেন্দ্র থেকে ১০০ মিটার দূরে দলীয় ক্যাম্প করেছিল তারা। আচমকা তাদের উপরে পুলিশ এসে লাঠিচার্জ করে।

    Published by:Arka Deb
    First published: