কলকাতা

corona virus btn
corona virus btn
Loading

আজ দশমী, করোনা মুক্ত হোক বিশ্ব এই প্রার্থনাতেই মাকে বিদায়

আজ দশমী, করোনা মুক্ত হোক বিশ্ব এই প্রার্থনাতেই মাকে বিদায়

আতঙ্ক, ভয় আর করোনা ৷ এই তিন শব্দকে সঙ্গী করেই, মুখে মাস্ক, হাতে স্যানিটাইজারের বোতল নিয়ে শেষের মুখে বাঙালির সবচেয়ে প্রিয় ও সবচেয়ে বড় উৎসব দুর্গাপুজো ৷

  • Share this:

#কলকাতা: আতঙ্ক, ভয় আর করোনা ৷ এই তিন শব্দকে সঙ্গী করেই, মুখে মাস্ক, হাতে স্যানিটাইজারের বোতল নিয়ে শেষের মুখে বাঙালির সবচেয়ে প্রিয় ও সবচেয়ে বড় উৎসব দুর্গাপুজো ৷ যেখানে গোটা শহর, গোটা রাজ্য সেজে ওঠে নতুন আলোয় ৷ গোটা শহর, গোটা রাজ্য নতুন ছন্দে চার-দিন যাপন করে, সেই চারদিনের মহা উৎসব যেন এবার ছিল একেবারেই অন্যরকম ৷ আনন্দের মধ্যেও ছিল অনেকটাই সাবধানতা ও ইতস্তত ভাব ৷ যে উৎসব শুঘু মাত্রই দেবীর আরাধনা নয়, মিলন উৎসব সে উৎসবেই এবার মিলনে বাঁধা ৷ একে অপরের মাঝে সামাজিক দুরত্ব ৷ হাতে হাত না দিয়ে চলা, দূরে বসে কথা বলা ৷ আর ভিড়ের মাঝে না হারিয়ে, বরং ‘একলা’ চলা ৷

এরকম পুজো বাঙালি এর আগে আর কখনও দেখেনি ৷ অতিমারী যে উৎসবের রংকে কিছুটা হলেও আতঙ্কের রঙে ভরিয়ে তুলেছিল, তা গত চারদিনে বাঙালি কিছুটা হলেও দেখে ফেলেছে ৷ যে প্যান্ডেল হপিংয়ের জন্য গোটা বিশ্বে বিখ্যাত এই বাংলা ও বাংলার মানুষ, সেই গতিও এবার ধীমি তালে ৷ কোথাও দশ মিটারের দূরত্ব, কোথাও কুড়ি মিটার ৷ প্যান্ডেলের থিম যেন একা একা দাঁড়িয়ে ৷ তবুও বাঙালির এই উৎসব এবারও ‘নিউ নর্মাল পুজো’র নামকরণে, একেবারে নিজের মতো ৷ সেই নিজের মতো করে থাকার আজ শেষ দিন ৷ আজ মহাদশমী ৷ মাকে বিদায় দেওয়ার পালা ৷ নিউ নর্মালেও এবার বিদায়ের সুরও একেবারে অন্যরকম৷ ঢাকের বাদ্যিতে মা থাকবে কতক্ষণ সুর থাকলেও, সঙ্গে প্রার্থনা, মা তুমি পরের বছর আবার এসো, কিন্তু তাঁর আগে এই বিশ্বকে করোনা মুক্ত করে দাও৷

এবার কী তাহলে কোলাকুলি সম্ভব ? কাছে এসে প্রিয়মানুষকে শুভ বিজয়ার শুভেচ্ছা সম্ভব ? নাকি এখানেও সচেতনা? চিকিৎসকরা বলছেন, এবারটা সব নিয়মই না হয় হয়ে যাক নিউ নর্মালের মত ধরে ৷ এবার না হয়, একটু দূর থেকেই হাত জোড় করে চলুক শুভেচ্ছা বিনিময় ৷ সঙ্গে থাকুক সুস্থ থাকার সচেতন প্রার্থনা ৷ তবেই না আসছে বছর আবার হবে !

Published by: Akash Misra
First published: October 26, 2020, 10:08 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर