বারাসতে কুকুরকে পিটিয়ে মারল পুরসভার সাফাইকর্মী

বারাসতে কুকুরকে পিটিয়ে মারল পুরসভার সাফাইকর্মী

কুকুরকে পিটিয়ে মারার জন্য পুরসভার সাফাই কর্মীর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের বারাসতে।

  • Share this:

#বারাসত: কুকুরকে পিটিয়ে মারার জন্য পুরসভার সাফাই কর্মীর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের বারাসতে। কিছু দিন আগেই কুকুর নিয়ে প্রতিবেশী এবং স্থানীয় কাউন্সিলারের ফতোয়ার জেরে পোষ্যদের রক্ষায় প্রশাসনের কাছে আত্মহত্যার আবেদন করেছিলেন বারাসতের এক মহিলা। সেটা তো ছিল পোষা কুকুরদের ছেড়ে থাকতে না পারার আকুতি।

এর উল্টো ছবিও ধরা পড়ল সেই বারাসতেই। এবার রাস্তার একটা কুকুরকে পিটিয়ে মারার অভিযোগ উঠেছে বারাসত পুরসভার সাফাই কর্মী বিনোদ বংশীর বিরুদ্ধে। বারাসতের পশুপতি অ্যানিমেল ওয়েলফেয়ার সোসাইটির পক্ষ থেকে ইতিমধ্যেই বারাসত থানায় বিনোদের বিরুদ্ধে অভিযোগও দায়ের করা হয়েছে। পাশাপাশি বারাসত পুরসভার চেয়ারম্যান এবং ভাইস চেয়ারম্যানের কাছেও অভিযোগ জানিয়েছেন পশুপ্রেমি সংগঠনের পক্ষ থেকে। রাস্তার কুকুরকে পিটিয়ে মারার ঘটনাটি ঘটেছে বারাসতের রামকৃষ্ণপুর এলাকায়।

স্থানীয় এবং পশুপতি এনিমেল ওয়েলফেয়ার সোসাইটি সুত্রে জানা গিয়েছে গত ৮ ফেব্রুয়ারি রাতে বারাসতের রামকৃষ্ণপুর এলাকার একটা রাস্তার কুকুরকে পাথর দিয়ে ব্যাপক মারধর করা হয়েছে।

এমন অমানবিক ঘটনার খবর পাওয়ার পরেই ঘটনাস্থলে চলে আসেন পশুপ্রেমি সংগঠনের সদস্য প্রসেনজিৎ দত্ত সহ কয়েক জন। গুরুতর জখম অবস্থায় কুকুরটিকে রাস্তা থেকে উদ্ধার করে নিয়ে আসেন সংগঠনের শেল্টারে।সেখানেই পশু চিকিতসক জখম কুকুরটির চিকিৎসা করেন। দুই দিন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে গত ১১ ফেব্রুয়ারি মৃত্যু হয় সাত বছরের এই রাস্তার কুকুরের। সোসাইটির পশু চিকিৎসক সবুজ রায় জানিয়েছেন মারধরের ফলে কুকুরটির ঘারের কয়েক জায়গার হাড় ভেঙেছে। পায়ের হাড়ও ভেঙেছে। ব্যাপক ভাবে ইন্টারনাল হ্যামারেজ এবং হার্ট অ্যাটাক হওয়ার কারণেই কুকুরটির মৃত্যু হয়েছে। সংগঠনের সম্পাদক লোপামুদ্রা বসু বলেন কি কারণে এই ভাবে একটা রাস্তার কুকুরকে মারধর করলেন তিনি, সেই বিষয়ে গ্রহণযোগ্য কারন জানতে পারেনি। তবে শুনেছি রাস্তার এই কুকুরটি নাকি কামড়ানোর চেষ্টা করেছিল তাকে। কিন্তু এর জন্য কুকুরটিকে এই ভাবে মেরে ফেলতে হবে এক জন মানুষ হিসেবে মানতে পারছি না ৷

First published: February 12, 2020, 6:10 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर