corona virus btn
corona virus btn
Loading

বড়বাজার শিশু খুন: পুতুল দিয়ে ঘটনার পুনর্নির্মাণ করল ফরেনসিক বিশেষজ্ঞরা

বড়বাজার শিশু খুন: পুতুল দিয়ে ঘটনার পুনর্নির্মাণ করল ফরেনসিক বিশেষজ্ঞরা

যে জায়গা থেকে শিশুদের ছুঁড়ে ফেলে দেওয়া হয়েছিল, সেখান থেকে পুতুল ফেলে ঘটনার পুনর্নির্মাণ করে দেখেন তারা

  • Share this:

#কলকাতা: বড়বাজারে কীভাবে দু'বছরের শিশুকে ছ'তলা থেকে ফেলে খুন করা হয় তার তদন্তে নামল ফরেনসিক বিশেষজ্ঞরা। মঙ্গলবার বড়বাজারের ১১৩ নম্বর এনএস রোডের সেই বহুতলে আসেন ফরেনসিক বিশেষজ্ঞরা। বহুতলের বারান্দার যে জায়গা থেকে শিশুদের ছুঁড়ে ফেলে দেওয়া হয়েছিল, সেখান থেকে পুতুল ফেলে ঘটনার পুনর্নির্মাণ করে দেখেন তারা।

রবিবার সন্ধ্যায় বড়বাজারে একটি দু'বছরের শিশুকে ছ'তলার বারান্দা থেকে ছুঁড়ে ফেলে অভিযুক্ত শিবশঙ্কর গুপ্তা। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় শিশুটির। এই ঘটনা দেখে ফেলায় অপর এক ছ'বছরের শিশুকেও ছুঁড়ে ফেলে অভিযুক্ত যদিও সে প্রাণে বেঁচে গিয়েছে।

ফরেনসিক বিশেষজ্ঞরা দু'বছরের শিশুটিকে যেভাবে বহুতল বারান্দা থেকে ছুঁড়ে ফেলে খুন করা হয়েছে সেটাই নিজেরা পুতুল ফেলে করে দেখেন। সেজন্য বাচ্চার সমান উচ্চতার একটি পুতুল এনে তার ভেতরে শিশুটির ওজনের সমান বালি ভরে বহুতলে বারান্দা থেকে নিচে ছুঁড়ে ফেলে ঘটনার পুনর্নির্মাণ করেন। একইভাবে গুরুতর জখম ছ'বছরের শিশুর উচ্চতা ও ওজনের সমান পুতুল বালি ভরে পুনর্নির্মাণ করা হয়। ফরেনসিক বিশেষজ্ঞ চিত্রাক্ষ সরকার বলেন, "পুতুল ছেলে বানিয়ে আমরা ঘটনার পুনর্নির্মাণ করেছি।"

সোমবার দু'বছরের শিশুটির ময়নাতদন্তের প্রাথমিক রিপোর্ট পুলিশের হাতে আসে। সেখানে বলা হয়েছে অত্যধিক উচ্চতা থেকে পড়ে যাওয়ার কারণে তার মৃত্যু হয়েছে এদিন ফরেনসিক বিশেষজ্ঞরাও একই রিপোর্ট দিয়েছে পুলিশকে।

এদিন মূল ঘটনার এক প্রত্যক্ষদর্শীকে নিয়ে ঘটনার পুনর্নির্মাণ করা হয়। সেখানে এই খুনের তদন্তকারী অফিসারও উপস্থিত ছিলেন। প্রত্যক্ষদর্শীর দেওয়া বিবরণ অনুযায়ী সেই জায়গা থেকে ছোড়া হয় বালিভর্তি পুতুলগুলি। সেক্ষেত্রে ওই প্রত্যক্ষদর্শী পুলিশকে জানিয়েছে, দুটি পৃথক জায়গা থেকে ছুড়ে ফেলা হয়েছিল শিশুদের। তার বয়ান অনুযায়ী এদিন ঘটনার পুনর্নির্মাণ করার সময় পুতুল গুলিকেও দুটি পৃথক জায়গা থেকে ছুঁড়ে দেখেন ফরেনসিক বিশেষজ্ঞরা। খুব শীঘ্রই তারা পুলিশকে তাদের পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট জমা দেবেন বলে জানা গিয়েছে।

SUJOY PAL

Published by: Ananya Chakraborty
First published: June 16, 2020, 9:29 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर