• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • বৃহস্পতি-শুক্রবার টাকা বদল করতে না পারলে আবার কবে পারবেন ?? দেখে নিন

বৃহস্পতি-শুক্রবার টাকা বদল করতে না পারলে আবার কবে পারবেন ?? দেখে নিন

বৃহস্পতিবার থেকেই ব্যাঙ্কে গিয়ে টাকা বদল করতে পারেন আপনি ৷ হাতে সময় কিন্তু মাত্র দু’দিনই ৷

বৃহস্পতিবার থেকেই ব্যাঙ্কে গিয়ে টাকা বদল করতে পারেন আপনি ৷ হাতে সময় কিন্তু মাত্র দু’দিনই ৷

বৃহস্পতিবার থেকেই ব্যাঙ্কে গিয়ে টাকা বদল করতে পারেন আপনি ৷ হাতে সময় কিন্তু মাত্র দু’দিনই ৷

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #কলকাতা: কালো টাকা উদ্ধারে কার্যত অর্থনৈতিক অবরোধ ঘোষণা মোদি প্রশাসনের। অসুবিধায় পড়তে চলেছেন অসংখ্য সাধারণ মানুষ। ছোট ব্যবসায়ী, চাকরিজীবিদের কপালে চিন্তার ভাঁজ। বাতিল ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট। তবে ব্যাঙ্কে গিয়ে তা বদলে নেওয়া যাবে। এটিএম দু’দিন বন্ধ থাকলেও কাল, বৃহস্পতিবার থেকেই ব্যাঙ্কে গিয়ে টাকা বদল করতে পারেন আপনি ৷ হাতে সময় কিন্তু মাত্র দু’দিনই ৷

    সেটা কেন ? আসলে ১০ ও ১১ তারিখ ব্যাঙ্কে গিয়ে ৫০০ ও ১০০০ টাকা জমা দেওয়া এবং সর্বোচ্চ ৪ হাজার টাকা পর্যন্ত তুলতে পারবেন আপনি ৷ কিন্তু তারপর ১২ তারিখ মাসের দ্বিতীয় শনিবারের জন্য ব্যাঙ্ক বন্ধ থাকবে ৷ রবিবার ১৩ নভেম্বর এমনিতেই ব্যাঙ্ক বন্ধ ৷  এখানেই সেষ হচ্ছে না ৷ কারণ সোমবার ১৪ তারিখ গুরুনানক জয়ন্তীর জন্য সব ব্যাঙ্কের ছুটি ৷ তাই কাল-পরশু আপনি যদি দীর্ঘ লাইন দিয়ে টাকা বদল করতে ব্যর্থ হন, তাহলে আপনি ফের টাকা তোলার সুযোগ পাবেন মঙ্গলবার ১৫ তারিখ ৷

    কীভাবে টাকা বদলাবেন ৷ সেই প্রক্রিয়া আরেকবার দেখে  নিন ৷

    কিভাবে বদলাবেন ?

    ১১ নভেম্বর থেকে ব্যাঙ্ক ও পোস্ট অফিসে গিয়ে বদলাতে হবে ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট ৷ ৩০ ডিসেম্বর, ২০১৬ এর মধ্যে নোট বদল করতে হবে ৷ সঙ্গে রাখুন পরিচয়পত্র৷ বৈধ পরিচয়পত্র দেখিয়ে নোট বদল করা যাবে (এই তালিকায় থাকবে ভোটার কার্ড, আধার কার্ড, পাসপোর্ট, প্যান কার্ড, রেশন কার্ডের মতো সবকটি স্বীকৃত পরিচয়পত্র ) ৷ যে ব্যাঙ্কে অ্যাকাউন্ট নেই সেইসব ব্যাঙ্কে পরিচয়পত্র ব্যাঙ্ক ৷ থাকছে ঊর্ধ্বসীমাও ৷ ২৪ নভেম্বর পর্যন্ত প্রতিদিন সবোর্চ্চ ৪ হাজার টাকার নোট বদলে নতুন নোট নেওয়া যাবে ৷২৪ নভেম্বরের পর এই ঊর্ধ্বসীমা বাড়তে পারে ৷  ৩০ ডিসেম্বরের মধ্যে বদলাতে না পারলেও সুযোগ থাকবে ৷ ২০১৭ সালের ৩১ মার্চের মধ্যে আরবিআইয়ের দফতরে গিয়ে নোট বদল করার সুযোগ থাকছে ৷

    First published: