‘দিদিকে বলো’-র অনুপ্রেরণায় এবার ‘সুপারকে বলো’ চালু করলে হাসপাতাল

‘দিদিকে বলো’-র অনুপ্রেরণায় এবার ‘সুপারকে বলো’ চালু করলে হাসপাতাল
  • Share this:

#কলকাতা: অনুপ্রেরণায় "দিদিকে বলো"। এবার দক্ষিণ কলকাতার এক সরকারি হাসপাতালে রোগী পরিবারের অভিযোগ জানতে চালু হলো "সুপারকে বলো"। প্রতিদিন বিকেল পাঁচটা থেকে ছ’টা অবধি, হাসপাতালের সুপারকে পরিষেবা সংক্রান্ত অভাব অভিযোগ জানাতে পারবেন রোগীর পরিবারের মানুষজন। হাসপাতালের খাবার নিয়ে অভিযোগ আছে কিনা, চিকিৎসা নিয়ে কোনও অভিযোগ রয়েছে কিনা, তা জানাতে এবার অন্য কেউ নয়, হাজির খোদ হাসপাতাল সুপার। অভিনব এই উদ্যোগ নিয়েছে বাঙ্গুর হাসপাতাল। দায়িত্ব গ্রহণের পরই হাসপাতাল সুপার শিশির নস্কর শুরু করেন এই অভিযান । প্রতিদিন হাসপাতালের ২ নম্বর কাউন্টারে হাসপাতাল সুপার, মেডিক্যাল সুপার, অ্যাসিস্ট্যান্ট সুপার এবং ডেপুটি সুপার মিলে রোজ অভিযোগ শোনেন। সম্প্রতি বাঙ্গুর হাসপাতালে চালু হয়েছে মাল্টি সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতাল। চালু হয়েছে ৬০ শয্যা বিশিষ্ট ডাইলিসিস ইউনিট। ৭০ শয্যার বার্ন ইউনিট-এও লেগে থাকে ভিড়। এই ভিড় সামাল দিতে, রোগীর বাড়ির লোকের অভিযোগ দূর করতেই অভিনব এই পন্থা। ইতিমধ্যেই সাড়া মিলেছে ব্যাপক।

সুপার হিসেবে শিশিরবাবু দায়িত্ব নিয়েছেন গত ১০ ফেব্রুয়ারি । তারপর থেকেই এই প্রোগ্রাম শুরু করেন তিনি। তাঁর কথায়, "হাসপাতালের অনেক সমস্যাই থাকে ব্যবহারিক। সরাসরি কথা বললেই মিটে য়ায়। আর সেই কাজ করেই এই কয়েকদিনেই সাফল্য পেয়েছি আমরা ৷" "সুপারকে বলো" কর্মসূচীতে কথা বলার মধ্যে দিয়ে পড়ে থাকা বহু কাজ সমাধানও হচ্ছে দ্রুত। এ প্রসঙ্গে মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাসের প্রতিক্রিয়া, "বাঙ্গুর পথ দেখাল ৷ রোগীর সঙ্গে হাসপাতালের সম্পর্ক মসৃণ করতে অন্য হাসপাতালগুলিও এই পথ নিতেই পারে ৷"

First published: March 11, 2020, 4:54 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर