Home /News /kolkata /
Bangla News : রাজপথে প্রসব যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছেন মহিলা! চাকরির ঝুঁকি নিয়ে পাশে দাঁড়ালেন, প্রাণ বাঁচালেন 'সুপারহিরো' সিভিক ভলান্টিয়ার...

Bangla News : রাজপথে প্রসব যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছেন মহিলা! চাকরির ঝুঁকি নিয়ে পাশে দাঁড়ালেন, প্রাণ বাঁচালেন 'সুপারহিরো' সিভিক ভলান্টিয়ার...

ত্রাতার ভূমিকায় পুলিশ

ত্রাতার ভূমিকায় পুলিশ

Bangla News : বৃষ্টির মধ্যে এক গর্ভবতী মহিলা (Prgnant Woman) বিপদে কাতরাচ্ছেন। যা করলেন সিভিক ভলান্টিয়ার (Civic Volunteer)।

  • Share this:

#কলকাতা : রাস্তায় পরে প্রসব যন্ত্রনায় কাতর মহিলা। শেষ পর্যন্ত সিভিক ভলেন্টিয়ারের তৎপরতায় (Bangla News) হাসপাতালে সন্তানের জন্ম দিলেন মহিলা। উল্টাডাঙ্গা ট্রাফিক গার্ডের ওসি, উল্টোডাঙা ট্রাফিক গার্ডের সিভিক ভলান্টিয়ার (Civic Volunteer) সায়ন্তন সাহা হয়ে উঠলেন ত্রাতা। তাঁরই সাহায্যে পৃথিবীর আলো দেখলো একরত্তি। বাঁচলেন সদ্য মা।

সকাল ঠিক ৯ টা। নাগাড়ে চলছিল বৃষ্টি। তারইমধ্যে ই এ বাইপাসে সল্টলেকের ২নম্বর গেটের কাছে কর্তব্যরত (Bangla News) ছিলেন সায়ন্তন। সেই রাস্তা দিয়ে কিছুক্ষনের মধ্যেই পাস করবেন রাজ্যপাল। তাই ছিল বাড়তি তৎপরতা ও ব্যস্ততা। সকাল থেকে নাগাড়ে বৃষ্টি, সেই সময় খোলা রাস্তায় পরে একজন গর্ভবতী ভদ্রমহিলা (Pregnant Woman) অসহায়ভাবে যন্ত্রনায় কাতরাতে দেখতে পান সায়ন্তন ( (Civic Volunteer) । ভি আই পি ডিউটি ছেড়ে অন্য বিষয় মাথা ঘামানো মানেই নিজের চাকরি খোয়ানোর ঝুঁকি। কিন্তু মানবিক ধর্ম যে তারও ওপরে। কী করবেন বুঝতে পারছিলেন না সায়ন্তন।

আরও পড়ুন : সকাল থেকেই বৃষ্টি! কলকাতার পথ চলতি মানুষের অবস্থা কেমন দেখুন ভিডিও

একদিকে নাগাড়ে বৃষ্টিও হচ্ছিল অন্য দিকে যন্ত্রনায় কাতর মহিলা রাস্তায় পরে ছটপট করছেন আর ঠিক সেই সময় রাজ্যপাল (Governor) যাবেন ওই পথ দিয়েই (Bangla News)। তাই তুঙ্গে নজরদারি ও ব্যস্ততা। ফলে রাস্তার ডিউটি ( Civic Volunteer) ছেড়ে যাওয়া মানেই রাজ্যপালের নিরাপত্তার বিষয় উঠে আসছে। কিছুক্ষন বিচলিত সায়ন্তন আগে পিছু না ভেবেই সরাসরি যোগাযোগ করেন উল্টোডাঙা ট্রাফিক গার্ডের ওসি বিভাস কুমার মন্ডলের সাথে।

বিভাস বাবুকে সায়ন্তন জানান, "স্যার এক মহিলা যন্ত্রনায় কাতরাচ্ছেন হাসপাতালে না নিয়ে গেলে ক্ষতি হয়ে যাবে, আমি ডিউটি ছেড়ে মহিলাকে হাসপাতালে নিয়ে যাচ্ছি। বিভাস বাবুও আগে পিছু না ভেবে সায়ন্তন কে বলেন মহিলাকে বাঁচাতে তুমি যা পারো করো। এই অনুমতি পেয়েই সায়ন্তন সেই মুহূর্তেই একটি অটোর সাহায্য নিয়ে ভদ্রমহিলাকে নিয়ে ছোটেন কাছের হাসপাতালে।

আরও পড়ুন : কী সর্বনাশ! খেলাই হল কাল! পরিত্যক্ত গাড়িতে দমবন্ধ হয়ে একই পরিবারের ৩ শিশুর মর্মান্তিক মৃত্যু

নিকটবর্তী ই এস আই হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় মহিলাকে। সায়ন্তনের মুখে সব কথা শুনে এগিয়ে আসেন হাসপাতালের চিকিৎসক। নিয়মকানুন দূরে রেখেই শুরু হয় চিকিৎসা। কিছুক্ষণ পরেই সন্তানের জন্ম দেন মহিলা। চিকিৎসকরা জানান একটু দেরি হলে মা ও গর্ভের সন্তানের জন্য সেটা বিপদজনক হতে পারতো। খুশির খবর মা ও সদ্যজাত দুজনেই ভালো আছেন। মহিলার সন্তান জন্মানোর পর চিকিৎসক এসে হাততালি দিয়ে ধন্যবাদ জানান সায়ান্তনকে।

হাসপাতালে আসা মানুষজনেরাও চিকিৎসক নার্সদের সঙ্গে সায়ন্তনকে হাততালি দিয়ে ধন্যবাদ জানান। সায়ন্তনের কথায়, আজ সকালে থেকেই একদিকে বৃষ্টি অন্যদিকে আজ ডিউটিও ছিল খুব গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু বিভাস স্যার যেভাবে আমাকে সাহস দিয়েছেন সেই কারণেই আমি এই কাজটা করতে পারলাম । কারণ VIP মুভমেন্টের ক্ষেত্রে রাস্তা থেকে চলে আশা মানে নিজের চাকরি খোয়ানো। আর চাকরি চলে যাওয়া মানেই বলতে বলতেই থিম গেলেন সায়ন্তন । তবে আজ চাকরি চলে গেলেও একজন মায়ের পশে দাঁড়ানোটা আমার কাছে গুরুত্ব মনে করেছি।

Published by:Sanjukta Sarkar
First published:

Tags: Civic volunteer, Kolkata Police, Pregnant Woman

পরবর্তী খবর