• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • BAISAKHI BANERJEE CHANGED HER FACEBOOK PROFILE NAME INCLUDING SOVAN CHATTERJEE NAME SB

Baisakhi Sovan: নিজের নামের সঙ্গে জুড়লেন শোভনকেও, নতুন 'ইনিংস' শুরু বৈশাখীর!

কী এমন হল?

Baisakhi Sovan Banerjee: শোভনের (Sovan Chatterjee) বিশেষ বান্ধবী Baisakhi Banerjee-র দাবি, কলকাতার প্রাক্তন মেয়রের অনুমতি নিয়েই 'যৌথ' প্রোফাইল খুলেছেন দুজনে।

  • Share this:

    কলকাতা: বিগত কয়েক বছর ধরেই তাঁরা দুজন একে অপরের পরিপূরক। প্রকাশ্যে তাঁদের আলাদা দেখাও যায়নি। সবসময়ই জোড়ায়-জোড়ায় থাকেন তাঁরা। সেই শোভন চট্টোপাধ্যায় ও বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের এবার 'নতুন' জীবন শুরু। অন্তত ফেসবুক তাই বলছে। নিজের ফেসবুক প্রোফাইলে এবার শোভনের নামও জুড়ে দিলেন বৈশাখী। ফলে প্রোফাইলের নতুন নাম হল, 'বৈশাখী শোভন ব্যানার্জী' (Baisakhi Sovan Banerjee)। সাধারণত স্বামীর নাম নিজের প্রোফাইলে জুড়ে দিতে দেখা যায় অনেককেই। কিন্তু বৈশাখী কেন করলেন? শোভনের বিশেষ বান্ধবীর দাবি, কলকাতার প্রাক্তন মেয়রের অনুমতি নিয়েই 'যৌথ' প্রোফাইল খুলেছেন দুজনে।

    সম্প্রতি পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বাড়িতে যান শোভন-বৈশাখী। খুব স্বাভাবিক কারণেই 'কাননের' তৃণমূলে ফেরার জল্পনা ফের মাথাচাড়া দিয়েছে। এই পরিস্থিতিতে বৈশাখীর ফেসবুক প্রোফাইলে শোভনের নাম যোগ জনমানসে তাঁদের নিয়ে কৌতূহল আরও বাড়াল বইকী কমাল না! দিন কয়েক আগেই নিজের ফেসবুক প্রোফাইল থেকে শোভন চট্টোপাধ্যায়কে নিয়ে লাইভ করেন বৈশাখী। আর সেই ফেসবুক লাইভ থেকেই শোভন নিজের স্ত্রী রত্না চট্টোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে একাধিক গুরুতর অভিযোগ তোলেন। তাঁকে সঙ্গত দেন বৈশাখীও।

    তাঁদের এই ফেসবুক লাইভ রীতিমতো সাড়া ফেলে দেয়। তারপরও ফের তাঁরা একটি ভিডিয়ো বার্তায় রত্নাকে টার্গেট করেন। বেহালা থেকে কিছু ছবি পেয়েছেন দাবি করে বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় পাশে নিয়ে শোভন চট্টোপাধ্যায় দাবি করেন, 'রত্না চট্টোপাধ্যায় একজন ব্যভিচারী মহিলা। আর তাঁর এই আচরণের জন্যই ডিভোর্সের পথে হেঁটেছি আমি।' কিন্ত কেন ব্যাভিচারী রত্না? কলকাতার প্রাক্তন মেয়রের দাবি, 'রত্না চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে অন্য যুবকের সম্পর্কের কথা জানতে পেরেই আমি বিবাহবিচ্ছেদের পথে হেঁটেছিলাম। সেই সিদ্ধান্ত যে সঠিক ছিল, তা আমি জানি।'

    এই সেই প্রোফাইল এই সেই প্রোফাইল

    যদিও শোভন-বৈশাখীর যাবতীয় অভিযোগ আগেই উড়িয়ে দিয়েছেন রত্না। তাঁর অভিযোগ, 'দলের কর্মীদের সঙ্গে আমার বসে থাকার ছবি দিয়ে বলছে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক। বেহালা এলাকায় এসে ওই ছবিগুলি দেখিয়ে যে কাউকে জিগ্গেস করুন, সকলে বলে দেবে তাঁরা কারা? আসলে শোভন-বৈশাখী প্রকাশ্যে প্রেমলীলা চালাচ্ছেন, তা দেখে বাংলার মানুষ, বেহালার মানুষ নিন্দা করছেন দেখেই ওরা অন্য চাল চালছে। তবে রত্না চট্টোপাধ্যায়কে আটকানো যাবে না, আমি এখন উপরের দিকেই উঠব। আর ওঁরা নীচে।' এমনকী শোভনের পুনরায় তৃণমূলে ফেরার জল্পনা নিয়েও কটাক্ষ করেছেন রত্না। বলেন, 'ভোটের আগে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নামে কত নিন্দা করেছেন ওঁরা, আর এখন তেল দিতে এদিক-ওদিক ছুটছেন। তবে, মমতা অভিষেক এত তাড়াতাড়ি সব ভুলে যাবেন বলে মনে হয় না।' এমন আবহে নিজের ফেসবুক প্রোফাইলে শোভনের নাম জুড়ে ফের শোরগোল ফেললেন বৈশাখী।

    Published by:Suman Biswas
    First published: