• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • BAISAKHI BANERJEE CALLS DILIP GHOSH INVITING HIM FOR LUNCH DMG

দিলীপকে ফোন বৈশাখীর, গলল বরফ! এবার কি সক্রিয় হবেন শোভন?

দিলীপকে ফোন বৈশাখীর৷

বিজয়ার শুভেচ্ছা জানানোর পাশাপাশি গোলপার্কের ফ্ল্যাটে দিলীপবাবুকে মধ্যাহ্নভোজে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন বৈশাখীদেবী৷

  • Share this:

#কলকাতা: বিজয়া সম্মেলনী ঘিরে ফের গেরুয়া শিবিরের সঙ্গে সম্পর্কের তাল কেটে ছিল শোভন চট্টোপাধ্যায় ও বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের৷  বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়কে আমন্ত্রণ না জানানোর জন্য শোভন চট্টোপাধ্যায় বা বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় কেউই রবিবার ইজেডিসিসি-তে আয়োজিত বিজেপি-র বিজয়া সম্মেলনী অনুষ্ঠানে যাননি। রবিবার দুপুরে বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় স্পষ্ট করে জানিয়ে দিয়েছিলেন, বিভাজন করা হচ্ছে বলেই বিজয়া সম্মিলনীতে যাবেন না তাঁরা। যদিও বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ রবিবারই দাবি করেন, তিনি বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ করছিলেন কিন্তু ফোন সুইচড অফ ছিল। অবশেষে বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব ও রাজ্য নেতৃত্বের একাংশের কথায় রবিবার রাতেই রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ কে ফোন করেন বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়{ তার পরেই কেটে যায় সব জটিলতা৷

বিজয়ার শুভেচ্ছা জানানোর পাশাপাশি গোলপার্কের ফ্ল্যাটে দিলীপবাবুকে মধ্যাহ্নভোজে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন বৈশাখীদেবী৷ এ প্রসঙ্গে বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন 'রবিবার সকাল থেকেই আমাকে কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব রাজ্য নেতৃত্বের একাংশ বলছিলেন বিজয়া সম্মিলনী ঘিরে বিভ্রান্তি দূর করার জন্য দিলীপ দা যোগাযোগ করার চেষ্টা করছেন। কিন্তু কোনও কারণে যোগাযোগ করতে পারছেন না। তারপর যেহেতু বিজেপির বিজয় সম্মেলনে ছিল তো সেই অনুষ্ঠান শেষ হওয়ার পর আমি নিজেই দিলীপ ঘোষকে ফোন করি। অনেকদিন বাদে দিলীপ দার সঙ্গে কথা হল।"

তবে ফোন করার পরে জটিলতা কাটল কিনা সেই প্রসঙ্গে বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় জানান " আগামী দিনে আমরা যদি বিজেপিতে কাজ করি তাহলে ওনার নেতৃত্বে কাজ করতে হবে। দিলীপদার মধ্যে আন্তরিকতার অভাব নেই। এমন কেউ কেউ পদে বসে আছেন যাঁদের মন্তব্যের জন্য ভুল বোঝাবুঝি তৈরি হয়। আশা করি আগামী দিনে কাজের ক্ষেত্রে এই ভুল বোঝাবুঝি বা বিভ্রান্তিগুলি হবে না।'

প্রসঙ্গত শোভন চট্টোপাধ্যায়কে বিজেপিতে সক্রিয় করার জন্য গোলপার্কের ফ্ল্যাটে গিয়েছিলেন কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক অরবিন্দ মেনন ও রাজ্য নেতা অমিতাভ চক্রবর্তী। বিজেপিতে যোগদানের পর থেকেই সক্রিয় ভাবে দেখা যায়নি শোভন চট্টোপাধ্যায় ও বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়কে। বরঞ্চ রাজ্য নেতৃত্বের একাংশের বিরুদ্ধে ক্ষোভ জানিয়েছিলেন বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়। এমনকি সেই ক্ষোভের কথা গিয়ে পৌঁছে ছিল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ পর্যন্ত। যদিও গত শুক্রবারের বৈঠকের পর পরই জল্পনা বাড়তে থাকে বিজেপিতে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পেতে চলেছেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। শুধু তাই নয় পদ পেতে চলেছেন বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় ও। সূত্রের খবর খুব শীঘ্রই বিজেপির তরফে এর ঘোষণা হতে চলেছে। তবে রবিবারের রাতের ফোনে আপাতত বিজেপি সঙ্গে ফের যে জটিলতা তৈরি হয়েছিল সেই জটিলতা যে অচিরেই কেটে গেল সে বিষয়ে নিশ্চিত রাজ্য বিজেপি নেতৃত্ব।

সোমরাজ বন্দ্যোপাধ্যায়

Published by:Debamoy Ghosh
First published: