মেছো মাতব্বরির প্রতিবাদ করে খুন, ১ সাক্ষীতে ৪ যাবজ্জীবন, ২১ বছর পর হাইকোর্টে সাজা বহাল

মেছো মাতব্বরির প্রতিবাদ করে খুন, ১ সাক্ষীতে ৪ যাবজ্জীবন, ২১ বছর পর হাইকোর্টে সাজা বহাল

জগত গোপ, ভাদরু গোপ, বিশু গোপ, অজিত গোপ। এই চারজনের যাবজ্জীবন সাজা বহাল রেখেছে হাইকোর্ট

  • Share this:

ARNAB HAZRA

#কলকাতা: দিনটা ছিলো ১২ জুলাই ১৯৯৮। পুরুলিয়া বাঘমুন্ডির শিরকাদি'তে সেদিন তুমুল গন্ডগোল। পুকুরে মাছ তোলাকে ঘিরে হাতাহাতি।

বাম আমল। সালিশির মধ্যেই মিটে যায় বিষয়টি। তবে চাপা আতঙ্ক একটা ছিলই। পরদিন ১৩ জুলাই, শিরকাদি প্রাথমিক বিদ্যালয় যাচ্ছিলেন প্রধান শিক্ষক অবোধসরণ গোপ। দুপুর ১২টা নাগাদ বিদ্যালয়ের গেটে আক্রান্ত হলেন। টাঙি, ভোজালি, কুড়ুলের কোপে মুহূর্তে দেহ ছিন্নভিন্ন।

শরীর থেকে আলাদা হয়ে গেলো মাথা। ঘটনা জেনে শিউরে উঠলো গোটা বাগমুন্ডি। পুলিশের তদন্তে দোষী সাব্যস্ত হলো ৬ জন।

মে ২০১২, পুরুলিয়া অতিরিক্ত জেলা দায়রা বিচারক ৬ জনকে যাবজ্জীবন সাজা শোনালো। এরপর থেকে হাইকোর্টে চলছিল ক্রিমিনাল আপিল মামলা। সোমবার সেই মামলার রায় ঘোষণা করে কলকাতা হাইকোর্ট। জগত গোপ, ভাদরু গোপ, বিশু গোপ, অজিত গোপ। এই চারজনের যাবজ্জীবন সাজা বহাল রেখেছে হাইকোর্ট। আশাধণ ও ষষ্ঠী গোপ-কে বেকসুর খালাস ঘোষণা করেছে আদালত। সরকারি আইনজীবী সঞ্জয় বর্ধন জানাচ্ছেন, "সাক্ষী মাথুর গোপ মামলায় নতুন মাত্রা জুড়েছে। তাঁর সাক্ষ্যতে চারজন দোষী সাব্যস্ত হয়েছে হাইকোর্টের কাছে। "

নিছক মাছ ধরার ঘটনা। গ্রাম বাংলার অতি পরিচিত। সেই মাছকে নিয়ে মাতব্বরি, প্রতিবাদ, খুন। কলকাতা হাইকোর্টের এই রায়, শিক্ষা দেবে দুষ্কৃতীদের। আশায় বাগমুন্ডি।

First published: 10:20:03 PM Dec 16, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर