Home /News /kolkata /
Babul Supriyo: ঠিক এক বছরের মাথায় ফিরে পেলেন সবকিছু! অদ্ভুত সমাপতনে নিজেই অবাক বাবুল

Babul Supriyo: ঠিক এক বছরের মাথায় ফিরে পেলেন সবকিছু! অদ্ভুত সমাপতনে নিজেই অবাক বাবুল

শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে স্ত্রী কন্যার সঙ্গে বাবুল৷

শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে স্ত্রী কন্যার সঙ্গে বাবুল৷

রাজনীতির প্রথম ইনিংসটা যেমন ঝোড়ো ব্যাটিং করেছিলেন বাবুল সুপ্রিয়, দ্বিতীয় ইনিংসেও সাফল্য পেতে বেশি দিন অবশ্য অপেক্ষা করতে হয়নি তাঁকে৷

  • Share this:

    #কলকাতা: রাজনীতিতে এসে তাঁর উত্থান হয়েছিল উল্কার গতিতে৷ সাংসদ থেকে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিত্ব, কোনও কিছুর জন্যই খুব বেশি অপেক্ষা করতে হয়নি তাঁকে৷ সাত বছরের মাথায় সেই বাবুল সুপ্রিয় আকাশ থেকে মাটিতে আছড়ে পড়েছিলেন৷ বিধানসভা নির্বাচনে প্রার্থী হয়ে হারের মুখে দেখা, তার পর কেন্দ্রীয় মন্ত্রিত্ব হারানোর হতাশায় রাজনীতি থেকেই সন্ন্যাস নেওয়ার কথা জানিয়েছিলেন বাবুল৷ গত বছর ২ অগাস্ট ফেসবুকে তিনি এই সিদ্ধান্ত জানানোর পর রীতিমতো হইচই পড়ে গিয়েছিল৷ বাবুলের সিদ্ধান্ত অবাক করেছিল অনেককেই৷

    রাজনীতির প্রথম ইনিংসটা যেমন ঝোড়ো ব্যাটিং করেছিলেন বাবুল সুপ্রিয়, দ্বিতীয় ইনিংসেও সাফল্য পেতে বেশি দিন অবশ্য অপেক্ষা করতে হয়নি তাঁকে৷ আসানসোলের সাংসদ পদে ইস্তফা দিয়ে সবাইকে অবাক করেই তৃণমূলে যোগ দিয়েছিলেন৷ তার পর বালিগঞ্জ থেকে জিতে বিধায়কও হয়েছিলেন৷ আর এ দিন রাজভবনে রাজ্যের পূর্ণ মন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন বাবুল৷

    আরও পড়ুন: মন্ত্রী হলেন বাবুল সুপ্রিয়, মমতার মন্ত্রিসভায় আট নতুন মুখ

    ক্যালেন্ডারের হিসেব বলছে, গত বছর যে দিন রাজনীতিকে বিদায় জানানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন, তার ঠিক এক বছরের মাথায় ফের মন্ত্রিত্ব ফিরে পেলেন বাবুল৷ আশ্চর্য এই সমাপতনে বাবুল নিজেও অবাক৷ এ দিন শপথ নেওয়ার পর রাজ ভবনে নিজেই জানালেন সেকথা৷

    সদ্য মন্ত্রী হওয়া বাবুল বলেন, 'যখন কেন্দ্রীয় মন্ত্রিত্ব থেকে ইস্তফা দেওয়ার জন্য সময় দেওয়া হয়েছিল, তখন গত বছর ৩ অগাস্টই সব কিছু ছেড়ে দেব বলে ফেসবুকে জানিয়েছিলাম৷ পুরোন কথা মনে করতে চাই না৷ কিন্তু সেই ৩ অগাস্ট আবার শপথ নিলাম৷ কাকতালীয় হলেও এটা সত্যিই অদ্ভুত৷'

    বাবুলের ফেসবুক প্রোফাইলে দেখা যাচ্ছে, ২০২১ সালের ২ অগাস্ট ইংরেজিতে একটি পোস্ট করে রাজনীতি থেকে সন্ন্যাস নেওয়ার কথা জানিয়েছিলেন তিনি৷ সেই সময় কেন্দ্রীয় বন প্রতিমন্ত্রী ছিলেন বাবুল৷ তার আগে কিছুটা ইচ্ছের বিরুদ্ধেই বাবুলকে টালিগঞ্জ কেন্দ্রে অরূপ বিশ্বাসের বিরুদ্ধে প্রার্থী করে বিজেপি৷

    ভোটের হার এবং তাঁর পর কেন্দ্রীয় মন্ত্রিত্ব খুইয়ে হতাশ হয়ে পড়েন বাবুল৷ এই সবকিছুর জেরেই পর থেকেই বিজেপি-র সঙ্গে দূরত্ব বাড়তে থাকে তাঁর৷ ২০২১ সালের অক্টোবর মাসে আসানসোলের সাংসদ পদ থেকেও ইস্তফা দেন তিনি৷ তার পরেই অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাত ধরে তৃণমূলে আগমন ঘটে বাবুলের৷

    এ দিন রাজ ভবনে বাবুল এসেছিলেন পাজামা- পাঞ্জাবি পরিহিত হয়ে৷ কেন্দ্রের পর রাজ্যের মন্ত্রী হিসেবে বাবুলের শপথগ্রহণের সাক্ষী থাকলেন স্ত্রী রচনা এবং একরত্তি মেয়ে নয়না৷ মন্ত্রী করার জন্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পাশাপাশি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রতিও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন বাবুল৷ তিনি বলেন, 'মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী যাঁকে চিরকাল দিদি বলে এসেছি, তাঁর প্রতি কৃতজ্ঞতা৷ অভিষেককে ধন্যবাদ জানাই৷'

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published:

    Tags: Babul supriyo

    পরবর্তী খবর