• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • AUTO DRIVERS NOT GETTING PASSENGERS IN DIFFERENT ROUTES AS METRO RAIL CLOSED FOR LAST FEW MONTHS SS

গত ৬ মাসে ক্ষতি হয়েছে বিপুল, মেট্রো চালুর খবরে এবার আশায় বুক বাঁধছেন অটো চালকরাও

Representational Image

কলকাতার লাইফলাইন মেট্রো, করোনার জেরে প্রায় ৬ মাস ধরে বন্ধ। তার জেরে বিপাকে মহানগরের ৫০-এর বেশি রুটের অটোচালক ও মালিকরা।

  • Share this:

    #কলকাতা: কোনও মেট্রো স্টেশন থেকে ছাড়ে ৭ টি রুটের অটো, কোনও স্টেশন থেকে ছাড়ে ৫ টি। মহানগরে প্রায় ৫০ টি রুটের অটোচালকরা যাত্রী পেতে মেট্রোর উপর নির্ভরশীল। করোনা কালে মেট্রো বন্ধ থাকায় আঁধার নেমে এসেছে সেই সব অটোচালকদের। আনলক ফোরে মেট্রো চালুর খবরে আশায় বুক বাঁধছেন তাঁরা।

    কলকাতার লাইফলাইন মেট্রো, করোনার জেরে প্রায় ৬ মাস ধরে বন্ধ। তার জেরে বিপাকে মহানগরের ৫০-এর বেশি রুটের অটোচালক ও মালিকরা। এক অটো চালকের কথায়,  ‘‘মেয়ের স্কুলে আর ফিস দিতে পারব না। বাড়িতে অশান্তি চলছে। মালিককে আগে ৪০০ টাকা দিতাম, এখন ৫০ টাকা দিই। নিজেদেরই আয় নেই।’’

    যতীন দাস পার্ক মেট্রো স্টেশনের সামনে থেকে ৭টি রুটের অটো চলে। হাজরা থেকে বেহালা, খিদিরপুর, বালিগঞ্জ ফাঁড়ি, বন্ডেলগেট, বালিগঞ্জ, গড়িয়াহাট, টলিগঞ্জ। চালকদের দাবি, সব রুটেই কমেছে যাত্রী। এক অটোচালক জানান, ‘‘ আশি শতাংশ যাত্রী কমেছে। আয় করব কী, খাব কী। বাড়িতে টাকা দিতে পারি না। অশান্তি হয়।যা আয় করি, নিজেদের হাতে স্যানিটাইজার দিই কোনও মতে, প্যাসেঞ্জারকে দেব কী ! ’’

    দমদমে অটোচালকদের অবস্থা আরও খারাপ। মেট্রো স্টেশন লাগোয়াই ট্রেনের স্টেশন। দুইই বন্ধ। পালা করে সপ্তাহে ২ দিন করে অটো চালাচ্ছেন চালকরা। মেট্রো পরিষেবা চালু হলে স্যানিটাইজেশন কী হবে, তা নিয়েও চিন্তায় যাত্রীরা। এক যাত্রীর কথায়, ‘‘ অটোতে যাত্রী নেই। আমরা বসে থাকছি। মেট্রো চালু হলে স্যানিটাইজেশন একটা চিন্তা থাকছেই।’’

    Published by:Siddhartha Sarkar
    First published: