শুভেন্দুর রোড শোয়ে ইটবৃষ্টি, পাল্টা বাইক ভাঙচুর! উত্তপ্ত চারু মার্কেট

শুভেন্দুর রোড শোয়ে ইটবৃষ্টি, পাল্টা বাইক ভাঙচুর! উত্তপ্ত চারু মার্কেট
শুভেন্দুর মিছিলের সময় উত্তেজনা৷

  • Share this:

    #কলকাতা: দক্ষিণ কলকাতার কয়েকজন নেতার হাতেই সব ক্ষমতা রয়েছে৷ বিজেপি-তে যোগ দেওয়ার পর থেকেই বার বার এই অভিযোগে সরব হয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী৷ সেই দক্ষিণ কলকাতাতে শুভেন্দুর রোড শো ঘিরেই উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ল চারু মার্কেট এলাকায়৷ শুভেন্দু অধিকারী- দিলীপ ঘোষের রোড শোকে কেন্দ্র করে বিজেপি- তৃণমূল সমর্থকদের মধ্যে পাথর ছোড়াছুড়ি শুরু হয়ে যায়৷ ভাঙচুর করা হয় একাধিক বাইক৷ ঘটনাস্থলে যান মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাসও৷

    এ দিন টালিগঞ্জ থেকে রাসবিহারী মোড় পর্যন্ত মিছিল করেন শুভেন্দু অধিকারী ও দিলীপ ঘোষ৷ বিজেপি শিবিরের অভিযোগ, মিছিল চারু মার্কেট এলাকাতে পৌঁছতেই তৃণমূলের বেশ কিছু সমর্থক শুভেন্দু অধিকারীকে উদ্দেশ করে কটূক্তি করেন, মিছিল লক্ষ্য করে ছোড়া হয় পাথর৷ এর পরই উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে৷ পাল্টা তৃণমূল সমর্থকদের দিকে তেড়ে যান বিজেপি সমর্থকরা৷ হাতের কাছে পেয়ে বেশ কয়েকটি বাইকও ভাঙচুর করেন বিজেপি সমর্থকরা৷ প্রায় তিরিশ মিনিট ধরে এলাকায় এই অশান্তি চলে৷

    যদিও এই ঘটনায় ফের একবার পুলিশি নিষ্ক্রিয়তার অভিযোগ উঠেছে৷ ঢিল ছোড়া দূরত্বে চারু মার্কেট থানা থাকলেও উত্তেজনার সময় পুলিশকে দেখা যায়নি বলে অভিযোগ৷ এ দিন মিছিল শুরুর আগেই ৮৯ নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূলের বিদায়ী কাউন্সিলর ও বর্তমান প্রশাসক মমতা মজুমদারের নেতৃত্বে শুভেন্দুর বিরুদ্ধে বিক্ষোভ দেখানো হচ্ছিল৷ ফলে আগে থেকে পুলিশ কেন সতর্ক হল না, সেই প্রশ্ন উঠছে৷ গোটা ঘটনায় আতঙ্কিত এলাকার বাসিন্দা ও ব্যবসায়ীরা৷


    ঘটনার পরে এলাকায় যান মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস৷ স্থানীয় তৃণমূল কর্মী ও এলাকাবাসীর সঙ্গে কথা বলেন তিনি৷ অরূপ বিশ্বাস পরে অভিযোগ করেন, 'আমাদের কয়েকজন কর্মী পতাকা লাগাচ্ছিলেন৷ কিন্তু মিছিল থেকে তাঁদের লক্ষ্য করে প্রথম পাথর ছোড়া হয়৷ এলাকায় ঢুকে সাধারণ মানুষকে ভাঙচুর করা হয়, তাণ্ডব চালানো হয়েছে৷ বিজেপি বাংলাকে অশান্ত করার চেষ্টা চলছে৷' অরূপ বিশ্বাস এলাকায় থাকার সময়ই নতুন করে ফের উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে৷ বাইকে করে যাওয়া দুই বিজেপি কর্মীকে রাস্তায় ফেলে বেধড়ক মারধরের অভিযোগ ওঠে৷ ছিঁড়ে ফেলা হয় বিজেপি-র পতাকা৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: