Home /News /kolkata /
৩৩ বছর পর কলকাতা মেট্রোয় তৈরি হচ্ছে শৌচালয়

৩৩ বছর পর কলকাতা মেট্রোয় তৈরি হচ্ছে শৌচালয়

সাধারণ যাত্রীদের প্রস্তাব ও মানবাধিকার কমিশনের সুপারিশ মেনে অবশেষে স্টেশনে শৌচালয় তৈরির উদ্যোগ নিল মেট্রো কর্তৃপক্ষ ৷

  • Share this:

    #কলকাতা: ৩৩ বছর পর অবশেষে কথা রাখল কলকাতা মেট্রো ৷ সাধারণ যাত্রীদের প্রস্তাব ও মানবাধিকার কমিশনের সুপারিশ মেনে অবশেষে স্টেশনে শৌচালয় তৈরির উদ্যোগ নিল মেট্রো কর্তৃপক্ষ ৷ ইতিমধ্যেই শৌচালয় তৈরির পরিকল্পনা নিয়ে কলকাতা পুরসভার সঙ্গে আলোচনায় বসছে মেট্রো ৷

    ১৯৮৪ থেকে যাত্রা শুরু করেছে কলকাতার লাইফ লাইন ৷ ক্রমে ক্রমে যাত্রী সংখ্যার সঙ্গে সঙ্গে বেড়েছে ট্রেন ৷ বিস্তৃত হয়েছে মেট্রো লাইন, তৈরি হয়েছে নতুন স্টেশন ৷ কিন্তু এই সুদীর্ঘ ২৭.২২ কিমি যাত্রাপথে কোথাও ছিল না শৌচাগার ৷ সবোর্চ্চ ঘণ্টা দেড়েকের সফরে প্রকৃতির ডাক এলে কষ্টেসৃষ্টে চেপে থাকা ছাড়া উপায় ছিল না যাত্রীদের ৷

    অফিসারদের ব্যবহারের জন্য শৌচালয় থাকলেও তা ব্যবহারের অনুমতি ছিল না কোনও যাত্রীর। এর ফলে চুড়ান্ত অসুবিধার মধ্যে পড়তেন যাত্রীরা। বিশেষ করে মহিলারা। যাত্রীদের অসুবিধার কথা নিয়ে একাধিকবার প্রশ্ন তোলে বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলি। যদিও হুশ ফেরেনি মেট্রোর। শেষমেষ গোটা বিষয়টি নজরে নিয়ে আসে মানবাধিকার কমিশন।

    দীর্ঘ সময় ধরে যাত্রীদের থেকে আসা প্রস্তাব ও মানবাধিকার কমিশনের সুপারিশ মেনে প্রথম ধাপে চারটি স্টেশনে টয়লেট তৈরির পরিকল্পনা করেছে কলকাতা মেট্রো ৷ কলকাতা পুরসভা ও মেট্রো কর্তৃপক্ষের মধ্যে হয় বৈঠক। তারপরেই কলকাতা মেট্রোয় তৈরি করা হল চারটি শৌচালয়। নোয়াপাড়া ও ক্ষুদিরাম স্টেশনের মধ্যে ভিতরে তৈরি করা হয়েছে শৌচালয়। শোভাবাজার ও বেলগাছিয়া স্টেশনের বাইরে তৈরি করা হয়েছে শৌচালয়। এর ফলে উপকৃত হবেন মেট্রোর প্রায় ৬ লাখ ৫০ হাজার নিত্যযাত্রী ৷

    আগামী কয়েক মাসের মধ্যে শৌচালয় তৈরি করা হবে রবীন্দ্রসদন মেট্রো স্টেশনে। তবে বাকি স্টেশনে শৌচালয় তৈরি করা হবে না বলে জানাচ্ছে মেট্রো। কারণ হিসাবে বলা হচ্ছে স্টেশনের ১০০ মিটারের মধ্যে রয়েছে শৌচালয়।

    মেট্রোর এই সিদ্ধান্তে খুশি মানবাধিকার সংগঠনগুলি। তবে প্রতিটি স্টেশনে শৌচাগারের দাবি জানিয়ে তারা ফের দ্বারস্থ হতে চলেছে রেল বোর্ডের।

    শৌচালয় তৈরি ছাড়াও যাত্রীদের সুবিধার্থে বেশ কিছু উদ্যোগ নিয়েছে মেট্রো,

    - দমদম মেট্রো স্টেশনে যাত্রীদের জন্য তৈরি করা হবে একটি লিফট -মহানায়ক উত্তম কুমার ও নোয়াপাড়া স্টেশনে ২টি নতুন প্ল্যাটফর্ম খুলে দেওয়া হবে -কবি সুভাষ ও মহানায়ক উত্তম কুমার স্টেশনে বসছে সোলার পাওয়ার প্ল্যান্ট, সৌর শক্তিতে চলবে দুই স্টেশন -এছাড়া সমস্ত স্টেশনেই মিলবে ওয়াই-ফাই পরিষেবা -চাঁদনি চক মেট্রো স্টেশনে বসবে অতিরিক্ত একটি এয়ার কন্ডিশনার

    বাংলা নববর্ষে নতুনভাবে সেজে উঠছে কলকাতা মেট্রো ৷

    First published:

    Tags: Human Right Commission, Kolkata metro, Kolkata Metro Rail, Toilet

    পরবর্তী খবর