কুঁদঘাটে ম্যানহোলে তলিয়ে ৪ শ্রমিকের মর্মান্তিক মৃত্যু, আশঙ্কাজনক আরও ৩ শ্রমিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন

কুঁদঘাটে ম্যানহোলে তলিয়ে ৪ শ্রমিকের মর্মান্তিক মৃত্যু, আশঙ্কাজনক আরও ৩ শ্রমিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন

কুঁদঘাটে ম্যানহোলে নেমে তলিয়ে মৃত্যু ৪ ঠিকাকর্মীর।

বৃহস্পতিবার কুঁদঘাটের পূর্ব পুঁতিয়ারি এলাকার একটি পাম্প হাউজের কাছে ম্যানহোল পরিষ্কার করতে নেমে আচমকাই জলে তলিয়ে যান কলকাতা পুরসভার (Kolkata Municipal Corporation) বেশ কয়েকজন ঠিকাকর্মী।

  • Share this:

    #কলকাতাঃ কুঁদঘাটে ম্যানহোলে তলিয়ে ৪ শ্রমিকের মর্মান্তিক মৃত্যু। আশঙ্কাজনক আরও ৩ কর্মী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। বৃহস্পতিবার কুঁদঘাটের পূর্ব পুঁতিয়ারি এলাকার একটি পাম্প হাউজের কাছে ম্যানহোল পরিষ্কার করতে নেমে আচমকাই জলে তলিয়ে যান কলকাতা পুরসভার (Kolkata Municipal Corporation) বেশ কয়েকজন ঠিকাকর্মী। বহুক্ষণ তল্লাশি চালানোর পরে বাকি চারজনকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়। পরে উদ্ধার হন আরও তিন শ্রমিক। এরপর তড়িঘিড়ি তাঁদের হাসপাতালে পাঠানো হলেও শেষ রক্ষা হয়নি। মারা গিয়েছেন চারজন। তাঁদের মধ্যে একই পরিবারের দু'জন রয়েছেন। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আরও তিনজন হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, দুর্ঘটনাগ্রস্থ আরও তিন ঠিকা শ্রমিকের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাঁরা বাঘাজতীন স্টেট জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

    প্রত্যক্ষদর্শী এবং পথচারীরা জানিয়েছেন, এ দিন দুপুর ১২.৩০ মিনিট নাগাদ  পুরসভার ১৪৪ নম্বর ওয়ার্ডে কুঁদঘাট পাম্প হাউসের কাছে ম্যানহোলে পাইপ সংযুক্তিকরণের কাজ করছিলেন পুরসভার কর্মীরা। সেখানেই কাজ করছিলেন ওই সাত ঠিকা শ্রমিকও। কাজ করার জন্য তাঁরা ম্যানহোলে নামার পরে আচমকাই তলিয়ে যান। প্রথমে সহকর্মীরা  বুঝতে না পারলেও দীর্ঘক্ষণ তাঁরা উপরে উঠে না আসায় আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। তড়িঘড়ি খবর দেওয়া হয় দমকলে। ঘটনাস্থলে পৌঁছয় বিপর্যয় মোকাবিলা দফতরের কর্মীরা। ডুবুরি নামিয়ে তল্লাশি চালানো হয়। ঘণ্টা দুয়েকের চেষ্টায় তাঁদের উদ্ধার করা সম্ভব হয়। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃত শ্রমিকরা সকলেই মালদহের হরিশ্চন্দ্রপুরের বাসিন্দা। তাঁরা ঠিকাকর্মী হিসেবে পুরসভায় কাজ করছিলেন। এ দিন যে চার শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে তাঁরা হলেন, জাহাঙ্গীর আলম (২২), সাবির হোসেন, মহম্মদ আলমগীর এবং লিয়াকত আলি (২০)।  জাহাঙ্গীর এবং মহম্মদ আলমগীর সম্পর্কে দুই ভাই।

    পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, গুরুতর অসুস্থ চার শ্রমিকের মধ্যে দু'জনকে বাঘাযতীন স্টেট জেনারেল হাসপাতালে এবং দু'জনকে এসএসকেএম হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসকরা মৃত বলে ঘোষণা করেন। বাকি তিনজন বাঘাযতীন স্টেট জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, তাঁদের সকলের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

    তথ্য: সুকান্ত মুখোপাধ্যায়।

    Published by:Shubhagata Dey
    First published: