Bengal BJP leaders in Delhi: শুভেন্দু পথেই কেন দিল্লিতে সৌমিত্র-অর্জুনরা! উঠে আসছে অধিকার প্রতিষ্ঠার নতুন জল্পনা

শুভেন্দু যেতেই কেন দিল্লিতে গেলেন বিজেপির তিন নেতা!

Bengal BJP leaders in Delhi:-এই ত্রয়ীর দিল্লি যাওয়ার কারণ নিয়েও অন্ধকারে রাজ্য বিজেপির নেতারা। অবশ্য রাজনৈতিক মহলে উঠে আসছে গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের এক নতুন তত্ত্ব।

  • Share this:

#কলকাতা: রবিবার দিল্লি গিয়েছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। রাজ্যের পরিস্থিতি নিয়ে একে একে  তিনি কথা বলেছেন, জে পি নাড্ডা, অমিত শাহ, নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে। তাঁর ঠিক ৩ দিনের মাথায় দিল্লিতে হাজির অর্জুন সিং, সৌমিত্র খাঁ, নিশীথ প্রামানিকরাও। হঠাৎ কেন এই ত্রয়ীর দিল্লি গমন! এই নিয়ে নানা মুনির নানা মত। শুভেন্দুর দিল্লি যাত্রা প্রসঙ্গে দিলীপ ঘোষ বলেছিলেন, বৈঠক আছে শুভেন্দু জানতেন। কিন্তু শুভেন্দু কেন দিল্লিতে তিনি জানেন না। ঠিক তেমনই এই ত্রয়ীর দিল্লি যাওয়ার কারণ নিয়েও অন্ধকারে রাজ্য বিজেপির নেতারা। অবশ্য রাজনৈতিক মহলে উঠে আসছে গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের এক নতুন তত্ত্ব।

মঙ্গলবারই শুভেন্দু অধিকারীর নিজে বলছেন, প্রতিষ্ঠানবিরোধিতার মুখ এই মুহুর্তে তিনি। আর নিঃসন্দেহেই এই ধারণাটিকে গুরুত্ব দিচ্ছে কেন্দ্র। কারণ যে কোনও মূল্যে মমতা বন্দ্যপাধ্যায়কে হারানো মোদি-শাহের কাছে বড় চ্যালেঞ্জ ছিল এই নির্বাচনে। ভরাডুবির সময়ে খড়কুটোর মতো এটুকুকেই আকড়ে ধরতে চেয়েছেন কেন্দ্রর নেতারা। এই বৈতরণী পার করে দেওয়াটা শুভেন্দু অধিকারীকে ডিভিডেন্ট দিয়েছে, এ কথা মানতেই হবে। পাশাপাশি এই উত্থানই সূত্রপাত ঘটিয়েছে এক দ্বন্দ্বেরও।

শুভেন্দু মঙ্গলবার অবশ্য বলেন দিলীপ ঘোষ এবং তিনি একই জেলার লোক। মিডিয়া তাঁদের নিয়ে কোনও মনগড়া তত্ত্ব খাড়া করতে পারবে না। কিন্তু শুভেন্দুর পক্ষ থেকে সৌজন্যে থাকলেও বরাবর ঠোঁটকাটা বলে পরিচিত দিলীপ ঘোষ রাখঢাক না রেখেই বলেছেন, শুভেন্দু কেন দিল্লিতে তা তিনি জানেন না। দিল্লির নেতারাই সে কথার জবাব দিতে পারবে। অর্থাৎ বিজেপিতে যে কার্যত দুটি মেরু প্রতিষ্ঠিত হয়েছে, তাই বুঝিয়ে দিচ্ছে ঘটনাপ্রবাহ, শরীরী ভাষা।

উল্লেখ্য, দীর্ঘদিন ধরে কৈলাস বিজয়বর্গীয়, অরবিন্দ মেনন, শিবপ্রকাশ দিলীপ ঘোষের বিরোধিতা করা তথাগত রায়ও গতকাল দিল্লিতে পৌঁছেছেন। বেছে বেছে এই সময়ে তাঁর রাজধানীতে কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে দেখা করতে যাওয়াটা কি নিছক কাকতালীয়, প্রশ্ন থাকছেই।

বলাই বাহুল্য, রাজনীতিতে গোষ্ঠী থাকলেই গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব হয়। রাজনৈতিক মহলের পর্যবেক্ষণ. রাজ্যের ভোট হিংসা সহ বিবিধ নিয়ে আলোচনা করতে শুভেন্দু যখন দিল্লিতে, দলের অন্দর থেকেই তিনি বার্তা পেয়েছেন একা সওয়াল নয়, সমবেত ধ্বনি চাই। তাতে একদিকে যেমন অধিকার প্রতিষ্ঠিত হবে, অন্য দিকে সওয়ালও জোরালো হবে। অর্থাৎ দলের শীর্ষস্তরের নেতারাই যেন তাঁকে আত্মপ্রকাশের আরও সুযোগ দিতে চাইছে। সেই কারণেই নীশিথ, অর্জুনদের আজ হয়তো দিল্লি ছুটে যাওয়া, এই তত্ত্বটিকে প্রতিষ্ঠা করতে চাইছেন কেউ কেউ। আর এই ধারণা যদি সত্যি হয়, তবে বিজেপির মধ্যেই মেরুকরণ ও বিভাজনের যে ইঙ্গিত তা আরও স্পষ্ট হবে ক্রমে।

Published by:Arka Deb
First published: