কলকাতা

corona virus btn
corona virus btn
Loading

রাতভর অবস্থান এসএসসির চাকরিপ্রার্থীদের, "আদালত রায় দিলেই  দ্রুত শিক্ষক নিয়োগ", জানালেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়

রাতভর অবস্থান এসএসসির চাকরিপ্রার্থীদের,

‘‘ প্রয়োজনে ১০ দিনের মধ্যে যাবতীয় নিয়োগ প্রক্রিয়া শেষ করে দেব।ওনারা দাবি করতেই পারেন শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনার। কিন্তু নিয়োগ প্রক্রিয়া তো আমাদের হাতে নেই এটা আদালতের হাতেই রয়েছে।"

  • Share this:

#কলকাতা: এসএসসির চাকরিপ্রার্থীদের অবস্থান নিয়ে অবশেষে মুখ খুললেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। মঙ্গলবার থেকে রাতভর অবস্থান চলা নিয়ে কিছুটা হলেও অস্বস্তিতে স্কুল শিক্ষা দপ্তর। বুধবার দুপুর বেলায় রাজ্যের অবস্থান স্পষ্ট করে দিলেন শিক্ষা মন্ত্রী। উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের দেরি নিয়ে কার্যত আদালতের ওপর এই কিছুটা বল ঢেলে দিলেন এদিন শিক্ষা মন্ত্রী। অবশ্য তিনি স্পষ্ট করে জানিয়ে দিলেন আদালত রায় দিলেই শীঘ্রই নিয়োগ শেষ করে দেবে রাজ্য সরকার।

শিক্ষামন্ত্রীকে এদিন এসএসসির চাকরিপ্রার্থীদের অবস্থান বিক্ষোভ আন্দোলন নিয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন " উচ্চ প্রাথমিকে নিয়োগ প্রক্রিয়া এখনো আদালতের বিচারাধীন। আদালত রায় দিলে আমরা শীঘ্রই নিয়োগ প্রক্রিয়া শেষ করব। প্রয়োজনে ১০ দিনের মধ্যে যাবতীয় নিয়োগ প্রক্রিয়া শেষ করে দেব।ওনারা দাবি করতেই পারেন শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনার। কিন্তু নিয়োগ প্রক্রিয়া তো আমাদের হাতে নেই এটা আদালতের হাতেই রয়েছে।"

উচ্চ প্রাথমিকে নিয়োগ প্রক্রিয়া এখনো পর্যন্ত আদালতের বিচারাধীন রয়েছে। অবস্থানরত চাকরিপ্রার্থীদের দাবি আদালতে ইতিমধ্যেই মামলার শুনানি শেষ হয়েছে। এ প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে এক চাকরিপ্রার্থী বলেন " আদালতে মামলার শুনানি শেষ হয়েছে। আমরা চাই দ্রুত যাতে আদালত তার রায় দেয়।" অবস্থানকারী আরো এক চাকরিপ্রার্থী বলেন " রাজ্য সরকারের তালবাহানা জন্যই নিয়োগ প্রক্রিয়া তে এত দেরি। দীর্ঘ ৭ বছর ধরে উচ্চ প্রাথমিকের নিয়োগ প্রক্রিয়া শেষ করতে পারিনি রাজ্য সরকার। সরকারকে দ্রুত নিয়োগ প্রক্রিয়া শেষ করতে হবে। আমরা চাই শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা।" তবে অবস্থানরত চাকরিপ্রার্থীদের দাবি মেনে শিক্ষা মন্ত্রী আলোচনায় বসবেন নাকি সেই বিষয়ে এখনো পর্যন্ত কোনও স্পষ্ট ইঙ্গিত অবশ্য পায়নি চাকরিপ্রার্থীরা শিক্ষামন্ত্রীর তরফে। স্কুল শিক্ষা দফতর সূত্রে খবর যেহেতু এসএসসির নিয়োগ প্রক্রিয়া এখনও পর্যন্ত আদালতের বিচারাধীন আপাতত অবস্থানকারী চাকরি প্রার্থীদের সঙ্গে আলোচনায় গিয়েও আদপে কোনো লাভ হবে না।

মঙ্গলবার উচ্চ প্রাথমিকে চাকরিপ্রার্থীদের করুণাময়ী থেকে বিকাশ ভবন পর্যন্ত মিছিল করার কথা ছিল। চাকরিপ্রার্থীদের অভিযোগ করুণাময়ী তে চাকরিপ্রার্থীদের জমায়েত শুরুর পর থেকেই পুলিশ তাদেরকে আটক করতে শুরু করে। তার জেরে শেষমেষ মিছিল না হলেও মঙ্গলবার বেলা থেকেই স্কুল সার্ভিস কমিশনের সদর দপ্তর এর সামনে অবস্থান বিক্ষোভ শুরু করেন এসএসসির চাকরিপ্রার্থীরা।

গত বছর পুজোর আগে ১৪ হাজারেরও বেশি শূন্য পদে নিয়োগের জন্য প্রাথমিকভাবে মেধাতালিকা প্রকাশ করেছিল স্কুল সার্ভিস কমিশন।কিন্তু তারপর মেধাতালিকায় অস্বচ্ছতা এবং গরমিলের অভিযোগ নিয়ে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয় চাকরিপ্রার্থীদের একাংশ। উচ্চ প্রাথমিকে নিয়োগ প্রক্রিয়ার ওপর স্থগিতাদেশ দেয় কলকাতা হাইকোর্ট। সেই মামলার শুনানি ইতিমধ্যে শেষ হয়ে গিয়েছে বলেই দাবি চাকরিপ্রার্থীদের একাংশের। যদিও মামলার রায় বেরোনোর পর পর অনলাইন কাউন্সেলিং সহ নিয়োগ প্রক্রিয়া যাতে দ্রুত হয় তার জন্য একাধিক সরলীকরণ প্রক্রিয়া করা হয়েছে বলেই এসএসসি সূত্রে খবর। যদিও শিক্ষামন্ত্রী এদিনের মন্তব্য থেকে স্পষ্ট আদালতের রায় বেরোলে দ্রুত নিয়োগ প্রক্রিয়া শেষ করবে রাজ্য সরকার। তবে আপাতত তাদের দাবি না মানা পর্যন্ত কমিশনের সদর দফতরের সামনে অবস্থান বিক্ষোভ চালিয়ে যাবেন বলে জানিয়েছেন অবস্থানকারী চাকরিপ্রার্থীরা।

সোমরাজ বন্দ্যোপাধ্যায়

Published by: Elina Datta
First published: December 2, 2020, 7:01 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर