Home /News /kolkata /
Arpita Mukherjee: আবার মিলল অর্পিতার টাকার হদিশ, এবার বাড়ি নয়, ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টেও রয়েছে কয়েক কোটি

Arpita Mukherjee: আবার মিলল অর্পিতার টাকার হদিশ, এবার বাড়ি নয়, ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টেও রয়েছে কয়েক কোটি

ওই সব অ্যাকাউন্ট ‘ফ্রিজ’ করার প্রক্রিয়াও শুরু করেছে ইডি।

  • Share this:

    #কলকাতা: প্রায় প্রতিদিনই কলকাতা শহর ও শহরতলি থেকে উদ্ধার হয়ে চলেছে একের পর এক টাকার পাহাড়, তবু শেষ হচ্ছে না! ফের মিলল অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের 'নতুন' টাকার হদিশ! সংবাদ সংস্থা পিটিআই সূত্রে খবর, ইডি অর্পিতার এমন অন্তত তিনটি ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের হদিস পেয়েছেন, যেখানে অন্তত ২ কোটি টাকা আছে। ওই সব অ্যাকাউন্ট ‘ফ্রিজ’ করার প্রক্রিয়াও শুরু করেছে ইডি।

    শুধু নিজের নামে ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টই নয়, একাধিক ভুয়ো সংস্থা তৈরি করারও অভিযোগ উঠেছে অর্পিতার বিরুদ্ধে। ইতিমধ্যেই সেই অ্যাকাউন্টগুলি চিহ্নিত করেছে ইডি, ওই সব অ্যাকাউন্টে লেনদেন কেমন হত, এখন তা-ই খতিয়ে দেখছে কেন্দ্রীয় সংস্থা। তবে, এখনই ওই অ্যাকাউন্টগুলি ফ্রিজ করার কথা ভাবছে না ইডি। লেনদেনের প্রকৃতি খতিয়ে দেখার পর এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে ইডি সূত্রে জানা গিয়েছে।

    আরও পড়ুন: গাড়ির ভিতরে লক্ষ লক্ষ টাকা, হাওড়ায় আটক ঝাড়খণ্ডের তিন কংগ্রেস বিধায়ক

    অর্পিতা মুখোপাধ্যায় আর পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের নামে, বেনামি নানা জমির সন্ধান মিলতে শুরু করেছে ইতিমধ্যেই। পার্থ ঘনিষ্ঠ অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের ফ্ল্যাট থেকে প্রায় ৫০ কোটি টাকা উদ্ধারের পর এবার বিভিন্ন জায়গায় তাঁদের জমি ও বাড়ি নিয়ে শোরগোল পড়েছে। জমি রয়েছে বোলপুর শান্তিনিকেতন এলাকায়, বোলপুরে ‘অপা’ নামের বাড়িটি অর্পিতার নামেই। সেই জমির বিশদ তথ্য হাতে এসেছে নিউজ ১৮ বাংলার। শ্যামবাটি মৌজায় থাকা এই জমির প্লট নম্বর ৩৫৪। খতিয়ান নম্বর ১৯২৯। মোট জায়গার পরিমাণ ০.১৭ একর (প্রায় ৭ কাঠা)। এই জমিটি রয়েছে অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের নামে। তাঁর মায়ের নাম লেখা রয়েছে মিনতি মুখোপাধ্যায়। জমির দলিলে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের স্বাক্ষর করা রয়েছে, রয়েছে তাঁর ছবিও। ২০১২ সালে এই জমিটি হস্তান্তর হয়েছিল। যদিও বাড়ির কেয়ারটেকার পার্থ চট্টোপাধ্যায় বা অর্পিতাকে কোনওদিনই এখানে দেখেননি বলেই জানিয়েছেন।

    আরও পড়ুন: 'বুঝেছিলাম ম্যাডাম আর উনি ভালো বন্ধু', মুখ খুললেন অর্পিতার গাড়ির চালক

    অন্যদিকে, এবার মুখ খুললেন অর্পিতার গাড়ির চালক প্রণব ভট্টাচার্য। সাত মাস অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের গাড়ির চালক হিসেবে কাজ করে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে 'ম্যাডামের' পরিচয়ের কথা জানতেন প্রণব৷ কিন্তু প্রভাবশালী মন্ত্রী এবং অর্পিতা ম্যাডাম যে বিশেষ বন্ধু, কিছুদিন যাবৎ তা বুঝতে পেরেছিলেন বলে দাবি প্রণবের৷ তাঁর কথায়, 'শেষ দিকে বুঝতে পেরেছিলাম ম্যাডাম আর উনি ভালো ফ্রেন্ড৷ একদিন রাতে ম্যাডাম ফেরার সময় আমাকে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের নাকতলার বাড়িতে নিয়ে যেতে বললেন৷ ওখানে নেমে আমাকে গাড়ি নিয়ে ফিরে আসতে বলেন৷ আমি চলে আসি৷'

    Published by:Rukmini Mazumder
    First published:

    Tags: Arpita Mukherjee

    পরবর্তী খবর