Home /News /kolkata /
Anubrata Mondal: বিপুল সম্পত্তির হদিশ, গ্রেফতার অনুব্রত মণ্ডলের দেহরক্ষী! চাপ বাড়ল তৃণমূল নেতার?

Anubrata Mondal: বিপুল সম্পত্তির হদিশ, গ্রেফতার অনুব্রত মণ্ডলের দেহরক্ষী! চাপ বাড়ল তৃণমূল নেতার?

দেহরক্ষীর গ্রেফতারে চাপে অনুব্রত?

দেহরক্ষীর গ্রেফতারে চাপে অনুব্রত?

Anubrata Mondal: সিবিআই সূত্রে খবর, বীরভূমকে করিডোর হিসেবে ব্যবহারের সময় সাইগাল মারফত একাধিক প্রভাবশালীর সঙ্গে যোগাযোগ হয় এনামূল হক ও সতীশ কুমারের পাচারের টাকা থেকেও লাভবান হয়েছে সাইগাল।

  • Share this:

    #কলকাতা: গরু পাচার মামলায় গ্রেফতার অনুব্রত মণ্ডলের (Anubrata Mondal) দেহরক্ষী সাইগাল হোসেন। তাঁকে গ্রেফতার করল সিবিআই। কিছু দিন আগে সাইগালের বাড়িতে তল্লাশি চালায় সিবিআই। আজ তাঁকে নিজাম প্যালেসে তলব করা হয়েছিল। সেখানে জেরার মুখে নিজের প্রচুর সম্পত্তি উৎস বলতে পারেনি সায়গল। তাই তাঁকে এদিন গ্রেফতার করে সিবিআই।

    প্রসঙ্গত, সিবিআই সূত্রে খবর, বীরভূমকে করিডোর হিসেবে ব্যবহারের সময় সাইগাল মারফত একাধিক প্রভাবশালীর সঙ্গে যোগাযোগ হয় এনামূল হক ও সতীশ কুমারেরপাচারের টাকা থেকেও লাভবান হয়েছে সাইগাল। পাচারের টাকা লগ্নির ক্ষেত্রে সাইগাল মধ্যস্থতাকারী হিসেবে কাজ করেছিল বলে দাবি সিবিআই-এর। সাইগাল নিজের প্রভাব খাটিয়ে পাচারকারীদের সাহায্য করেছিল বলে অভিযোগ। সাইগালের আয় ব্যয়ের হিসেবে বিস্তর ফারাক বলে জানা যাচ্ছে সিবিআই সূত্রে।

    আরও পড়ুন: নামী কোম্পানির সসে মারাত্মক ভেজাল, ধ্বংস হচ্ছে শরীর! হতবাক ইবি কর্তারা

    প্রসঙ্গত, গত সপ্তাহেই ফের বীরভূমের তৃণমূল জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলকে (Anubrata Mondal) তলব করেছিল সিবিআই। কড়া নির্দেশ ছিল, গত বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার মধ্যে ভোট পরবর্তী অশান্তি মামলায় কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার সামনে হাজির হতে হবে অনুব্রত মণ্ডলকে। যদিও আগে সিবিআই-এর দফতরে গেলেও তারপর ফের অসুস্থ বোধ করায় সিবিআই-এর কাছে ১৫ দিন সময় চেয়েছিলেন তৃণমূল নেতা। কিন্তু সেই আবেদনে সাড়া দেয়নি কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। অগত্যা ওইদিন সকাল ১১টা ৪০ মিনিটে সিজিও কমপ্লেক্সে হাজির হন অনুব্রত মণ্ডল।

    আরও পড়ুন: আদালতে হাততালি, তর্কাতর্কি! রোদ্দুর রায়ের পুলিশ হেফাজত, তারিখ জানিয়ে দিলেন বিচারক

    যদিও অসুস্থতার কারণে মে মাসের শেষ দিকে হাজিরা এড়িয়ে সময় চেয়েছিলেন অনুব্রত মণ্ডল। চিকিৎসকরা তাঁকে ১৫ দিন বিশ্রামে থাকার পরামর্শ দিয়েছেন, এই দাবি করে আইনজীবী পাঠিয়ে ভোট পরবর্তী অশান্তি মামলায় সময় চেয়ে নিয়েছিলেন বীরভূমের এই তৃণমূল নেতা। এই সময়কালের মধ্যে ফের সিবিআইয়ের তরফে সমন ইস্যু করে তলব করা হয়। এই পরিস্থিতিতে অনুব্রত মণ্ডলের দেহরক্ষী গ্রেফতার হওয়ায় বীরভূমের জেলা তৃণমূল সভাপতির চাপ আরও বাড়ল বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

    Published by:Suman Biswas
    First published:

    Tags: Anubrata Mondal, CBI

    পরবর্তী খবর