• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • নবান্নে মমতা-চন্দ্রবাবু বৈঠক শেষে মহাজোটের বার্তা, ডিসেম্বরেই ঠিক হবে ২০১৯-এর রণকৌশল

নবান্নে মমতা-চন্দ্রবাবু বৈঠক শেষে মহাজোটের বার্তা, ডিসেম্বরেই ঠিক হবে ২০১৯-এর রণকৌশল

  • Share this:

    #কলকাতা: নবান্নে মমতা বন্দ‍্যোপাধ‍্যায় ও চন্দ্রবাবু নায়ডুর জোট-বৈঠক। বৈঠক শেষে দুজনের মুখেই মোদি সরকার বিরোধী মহাজোটের সুর। জানালেন, ১১ ডিসেম্বর, সংসদের শীতকালীন অধিবেশনের আগে দিল্লিতে বৈঠক করবে বিজেপি বিরোধী দলগুলি। সেখানেই ঠিক হবে, ২০১৯-এর রণকৌশল।

    আরও পড়ুন: Amritsar Attack: নম্বরহীন বাইক-মুখ ঢাকা ওরা কারা! CCTV ফুটেজে সন্দেহভাজন জঙ্গিরা

    মোদি বিরোধী মহাজোটের প্রস্তুতি সংসদের অধিবেশনের আগেই দিল্লিতে বিজেপি বিরোধী দলগুলির বৈঠক সেখানেই ঠিক হবে ২০১৯-এর লোকসভা ভোটের রণকৌশল পশ্চিমবঙ্গে লোকসভার আসন ৪২টি। অন্ধ্রপ্রদেশে ২৫টি। দুটি রাজ‍্য মিলিয়ে ৬৭।

    আরও পড়ুন: SBI এর বিশেষ অফার ! ফ্রি-তে পাওয়া যাচ্ছে ৫ লিটার পেট্রোল

    এই সংখ‍্যা লোকসভা ভোটে একটা বড় ফ‍্যাক্টর। এ হেন দুই রাজ‍্যের মুখ‍্যমন্ত্রীই সোমবার নবান্নে একান্তে বৈঠক করেন। বৈঠক শেষে চন্দ্রবাবু নায়ডু ও মমতা বন্দ‍্যোপাধ‍্যায়, দু'জনের গলাতেই এক সুর। মোদি সরকার-বিরোধী জোটের সুর। যে সুর শোনা যাচ্ছে রাহুল গান্ধি, অখিলেশ যাদবদের গলাতেও।

    আরও পড়ুন: Chhattisgarh Election 2nd Phase: কংগ্রেসের মাথাব্যথা সেই যোগী, কেন?

    মুখ‍্যমন্ত্রী মমতা বন্দ‍্যোপাধ‍্যায় বলেন,‘বিরোধীরা সবাই এখন এক সুরে কাজ করছে.....আমরা একসঙ্গে কাজ করব। দেশকে বাঁচানোর জন‍্য একজোট। বিজেপি বিরোধী মহাজোটের মুখ সবাই। কেউ একজন নন। ’

    অন্যদিকে চন্দ্রবাবু নায়ডু বলেন, ‘মোদি সরকার গণতন্ত্রের পক্ষে বিপজ্জনক। অকারণে ইডি-সিবিআই দিয়ে ভয় দেখাচ্ছে। পেট্রোল-ডিজেলের দাম হুহু করে বেড়েছে। এই সব কিছুর বিরুদ্ধে মমতা সরব। আমরাও চাই মমতাকে পাশে পেতে। ২০১৯ সালে বিজেপিকে দেশছাড়া করতে চাই। সবাই মিলে মহাজোট করতে চাই ৷

    এ বছরই এনডিএ ছেড়েছেন চন্দ্রবাবু নায়ডু। তারপর থেকেই তিনি মোদি সরকারের বিরুদ্ধে সরব। ইতিমধ‍্যেই অখিলেশ যাদব, মায়াবতী থেকে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী দেবেগৌড়ার সঙ্গে তিনি বৈঠক করেছেন। ২২ নভেম্বর দিল্লিতে সব বিজেপি বিরোধী দলগুলির বৈঠক ডেকেছিলেন তিনি। তবে পাঁচ রাজ্যের ভোটের জন্য সে বৈঠক পিছিয়ে হবে সংসদের অধিবেশন শুরুর আগে।

    সম্প্রতি সিবিআই নিয়ে দুই রাজ‍্যের মুখ‍্যমন্ত্রীই মোদি সরকারের সঙ্গে সংঘাত চরমে নিয়ে গেছেন। প্রথমে অন্ধ্রপ্রদেশ, তারপর বাংলায় প্রত‍্যাহার করা হয়েছে সিবিআই তদন্তের 'সাধারণ সম্মতি'। যার জেরে রাজ‍্য সরকারের অনুমতি ছাড়া, এই দুই রাজ‍্যে, সিবিআই তদন্ত করত পারবে না। মোদি সরকারের বিরুদ্ধে এই যুদ্ধং দেহী আবহেই নবান্নে বৈঠক করলেন মমতা-চন্দ্রবাবু। শুরু হয়ে গেল মহাজোটের ভিতটা আরও পোক্ত করা।

    First published: