corona virus btn
corona virus btn
Loading

অমিত শাহের ভার্চুয়াল মিটিং-এ মন ভরল বিজেপির ?  

অমিত শাহের ভার্চুয়াল মিটিং-এ মন ভরল বিজেপির ?  

প্রায় মাস তিনেক পর, লকডাউন, করোনা কাণ্ডে থমকে যাওয়া সভা সমিতির কাজ আবার শুরু করেছে বিজেপি। কিন্তু প্রথাগত মিটিং, মিছিল নয়। সবটাই ভার্চুয়াল

  • Share this:

#কলকাতা: অমিত শাহের ভার্চুয়াল মিটিং শুনে কি মন ভরল বিজেপির?  অমিত শাহের হুঙ্কার কি অমিত শাহের মতই শোনাল ?  নাকি রাজ্য বিজেপির অবস্থা এখন, পড়ে পাওয়া চোদ্দ আনার মত, নাক্কুর বদলে চাক্কু পেলাম টাক ডুমাডুম।

প্রায় মাস তিনেক পর, লকডাউন, করোনা কাণ্ডে থমকে যাওয়া সভা সমিতির কাজ আবার শুরু করেছে বিজেপি। কিন্তু প্রথাগত মিটিং, মিছিল নয়। সবটাই ভার্চুয়াল।  বিহার, ওড়িশার পর মঙ্গলবার রাজ্যে ভার্চুয়াল মিটিং করলেন মোদির বিশ্বস্ত সেনাপতি, ক্যাবিনেটের  নাম্বার টু অমিত শাহ। বিরোধীরা তো বটেই, বিজেপির নেতা-কর্মীদেরও একাংশ বলছেন, '' হুমকি, হুঙ্কার সবই হল, কিন্তু কোথায় যেন সেই মেজাজে খরার টান।'' গলায় খানিকটা হতাশার সুর নিয়ে  বিরোধীদের  অনেকে বলছেন, '' এ কোন অমিত!  কোথায় সেই হুঙ্কার ?  রনংদেহী মেজাজ?  রাজ্যে লোকসভা ভোটের প্রচারে এসে প্রায়শই যে অমিতকে বলতে শোনা যেত, ''তৃণৃূমূলকো উখাঢ়কে ফেক দুঙ্গা ",  আজকের ভাষনে তাকে খুঁজেই পাওয়া গেল না।''

তবে, বিজেপির অন্দরে সবাই যে এমনটা বলছেন তা নয়। ভাষন শুনে বেরনোর পথে এক রাজ্য নেতা বললেন, '' দীর্ঘদিন পরে অমিতজির ভাষন শুনলাম। কে বলবে দিল্লিতে বিজেপির  সদর দফতর দীনদয়াল মার্গের কনফারেন্স রুমে দাঁড়িয়ে '' ভার্চুয়াল মিটিং " করলেন অমিত শাহ ! এতো মিনি ব্রিগেডে অমিতের ভাষন। " প্রায় ৫০ মিনিটের ভাষনে এদিন শুরু থেকেই স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিতে অমিত ছিলেন আগ্রাসী ও আক্রমনাত্মক। ২০২১-এর বিধানসভা ভোটে রাজ্যে পরিবর্তন করাই যে মোদির এই বিশ্বস্ত সেনাপতির লক্ষ্য, সেটা বলায় কোনও রাখঢাকই রাখেননি অমিত।

রাজ্যের শাসক দলের বিরুদ্ধে আক্রমণ শানাতে অমিত কখনও হাতিয়ার করেছেন কিষান নিধি যোজনা বা আয়ুষ্মান  ভারতের মত কেন্দ্রীয় প্রকল্পকে,  আবার কখনও পরিযায়ী শ্রমিকদের 'শ্রমিক ট্রেন '-কে মুখ্যমন্ত্রীর 'করোনা এক্সপ্রেস' বলে মন্তব্যকে।  করোনা আবহেই ঠিক করে দিয়েছেন ২১-এর নির্বাচনের ইস্যু।  তবে, রাজ্য রাজনীতির পর্যবেক্ষকদের একাংশের মত,  ইস্যু যাই হোক অমিত শাহের শরীরী ভাষার বিশেষ কোন ফারাক চোখে পড়েনি।  মনে হয়নি, দিল্লির কনফারেন্স রুমে বসে, হাতে গোনা গুটিকয় রাজ্য নেতা ও দিল্লির দলীয় মুখপত্রের সামনে ভাষন দিচ্ছেন অমিত।

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষক বিশ্বনাথ চক্রবর্তীর মতে,  '' আইটি ভিত্তিক প্রচারে অন্যান্য রাজনৈতিক দলের চেয়ে বিজেপি, বিশেষ করে সর্বভারতীয় বিজেপি অনেকটাই এগিয়ে। আর, অমিত শাহ একজন পোড় খাওয়া রাজনীতিক। ফলে, এরা বিষয়টা ভাল ভাবেই সামলে নিতে পেরেছেন। " যদিও মাঠে ময়দানে রাজনীতি করা শাসক ও বিরোধীদলের নেতাদের মতে, প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে অমিত শাহদের মত ভার্চুয়াল মিটিং করা গেলেও, কর্মী, সমর্থকদের কতটা উজ্জীবিত করা যাবে, তা এখনও পরিক্ষীত নয়।  হুমকি, হুঙ্কার দিলেও ভরা ব্রিগেড বা উপচে পড়া শহীদ মিনারের সভায় দাঁড়িয়ে এই হুঙ্কারই অন্য মাত্রা পেতে পারত।  তবে, এমনও হতে পারে, করোনা, আমফানজনিত পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখেই এখনই সুর সপ্তমে না চড়িয়ে ভবিষ্যতের জন্য তুলে রাখলেন অমিত!

ARUP DUTTA

Published by: Rukmini Mazumder
First published: June 9, 2020, 11:30 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर