অমিত শাহ বলেছেন মমতার মুখে কেবল চার মৃতের নাম, দিনভর চলল তৃণমূলের ফ্যাক্টচেক

অমিত শাহ বলেছেন মমতার মুখে কেবল চার মৃতের নাম, দিনভর চলল তৃণমূলের ফ্যাক্টচেক

রাজগঞ্জের সভায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

সাংসদ সুখেন্দুশেখর রায় থেকে ডেরেক ওব্রায়েন, তথ্য তুলে দিয়ে তৃণমূল ব্রিগেডের সকলেরই ব্যখ্যা তথ্যের অপলাপ করছেন অমিত শাহ।

  • Share this:

    #কলকাতা: শীতলকুচি কাণ্ড নিয়ে ভোটের বাংলা উত্তাল। চলছে অভিযোগ এবং পাল্টা অভিযোগে পালা। কেন্দ্রীয় বাহিনীর গুলি চালনার ঘটনায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ মুখ খুলেছেন এদিন। তিনি ঘটনা নিয়ে শোকপ্রকাশ করেও শেষমেশ তৃণমূলকে বিঁধতে ছাড়েননি। রাজনীতিকরণের অভিযোগের পাশাপাশি তিনি বলেছেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই ঘটনায় মৃত চারজনের নাম বলছেন, আরও এক রাজবংশী যুবক (আনন্দ বর্মন) শীতলকুচিতে মারা গেলেও তাঁর নাম তাঁর মুখে আসেনি। এর ঠিক পরেই তৃণমূল আসরে নামল শাহী বক্তব্যকে চ্যালেঞ্জ করেই। সাংসদ সুখেন্দুশেখর রায় থেকে ডেরেক ওব্রায়েন, তথ্য তুলে দিয়ে তৃণমূল ব্রিগেডের সকলেরই ব্যখ্যা তথ্যের অপলাপ করছেন অমিত শাহ।

    এদিন সন্ধ্যায় ডেরেক ওব্রায়েন একটি ট্যুইট করেন। সেখানে তিনি রাজগঞ্জের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভার ছবি পোস্ট করেন। সেই ছবিতে দেখা যায়  একটি শহিদ বেদি তৈরি করে শ্রদ্ধার্ঘ জানাচ্ছেন তৃণমূল নেত্রী, সেখানে লেখা পঞ্চশহিদ স্মরণে। আনন্দ বর্মনের নামও লেখা ছিল সেখানে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজেও 'আমার পাঁচ ভাই'  বলেই কথা শুরু করেন।

    দেখা যাক ঠিক কী বলেছিলেন অমিত শাহ। এদিন শাহকে বলতে শোনা যায়, কাল শীতলকুচিতে এক রাজবংশী যুবকও মারা গেল, আপনার হৃদয়ে এতটুকুও ব্যথা লাগল না। ভোটব্য়াঙ্ক আর তুষ্টিকরণের রাজনীতি করছেন আপনি। ওই যুবককে কোনও শ্রদ্ধাঞ্জলিও জানাননি।

    ঘটনাচক্রে তৃণমূলের একটি সাংবাদিক সম্মেলন থেকে সুখেন্দুশেখর রায়ও এর প্রতিবাদ করেন। তিনি বলেন, তৃণমূল নেত্রী পাঁচজনের নামই সমানভাবে উচ্চারণ করেছেন। তিনি উল্টে প্রশ্ন তুলেছেন শাহ কন প্রতিক্রিয়া দিতে এতটা সময় নিলেন।

    বর্তমান পরিস্থিতিতে তৃণমূল নেত্রী পা বাড়িয়ে রয়েছেন শীতলকুচিতে যাওয়ার জন্য। তাঁর স‌ঙ্গে মৃতদের পরিবারবর্গের একপ্রস্থ কথাও হয়েছে ভিডিও কলে। পাশাপাশি  নির্বাচন কমিশনের অনুমতি নিয়ে আহতদের ২ লক্ষ টাকা করে এবং নিহতদের ৫ লক্ষ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য সরকার। তবে জানা গিয়েছে, প্রশাসনিক বিধি মেনে এই ক্ষতিপূরণ মৃত ও আহতদের পরিবারের কাছে পৌঁছে দেবেন কোচবিহারের জেলাশাসক।

    Published by:Arka Deb
    First published:

    লেটেস্ট খবর