‘মার খাওয়ার গল্প নয়, মার দেওয়ার গল্প শুনতে চায়’, সংগঠনকে চাঙ্গা করতে অমিত শাহের দাওয়াই

‘মার খাওয়ার গল্প নয়, মার দেওয়ার গল্প শুনতে চায়’, সংগঠনকে চাঙ্গা করতে অমিত শাহের দাওয়াই
Amit Shah In Kolkata

মার খাওয়ার গল্প তিনি শুনতে চান না। বরং তিনি শুনতে চান মার দেওয়ার গল্প।

  • Share this:

#কলকাতা: মার খাওয়ার গল্প তিনি শুনতে চান না। বরং তিনি শুনতে চান মার দেওয়ার গল্প। এরাজ্যে দুর্বল সংগঠনকে চাঙ্গা করতে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতির দাওয়াই এটাই। আর টার্গেট দেড় কোটি ভোট। তাই চল্লিশ লক্ষ সদস্যকে মাথাপিছু দুটি করে বুথের দায়িত্ব নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন অমিত শাহ। কতটা কাজ করতে পারলেন রাজ্যের নেতারা, তা বুঝতে আগামী জানুয়ারিতে ফের আসবেন তিনি।

সাংগঠিনক সভা। মঞ্চে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি। শ্রোতার আসনে জেলা সভাপতি থেকে বুথস্তর পর্যন্ত বিজেপির নেতা-কর্মীরা। ২০২১ সালে রাজ্যে ক্ষমতার আসার লক্ষ্য আগেই স্থির করে দিয়েছিলেন। সেই লক্ষ্যে কতটা এগোন গেল? তথ্য- পরিংসংখ্যান ধরে ধরে বাস্তব অবস্থাটা তুলে ধরলেন অমিত। সর্বভারতীয় সভাপতির সামনে সব অর্থেই মুখ লুকাতে হল বিজেপি নেতা-কর্মীদের।

আক্রান্ত হওয়ার অভিযোগ করে লাভ নেই। পালটা মার দেওয়ার মতো সংগঠন গড়ে তুলতে হবে। এতদিনেও সেটা করতে পেরেছেন কী?

বুথস্তর পর্যন্ত সংগঠন তৈরির কাজ কতটা এগোল? শেষ কয়েকটি নির্বাচনে প্রত্যাশিত ফলের ধারেকাছে পৌঁছন গেল না কেন?

৬ দফা কর্মসূচির কয় দফা রূপায়ণ করতে পেরেছেন?

আপনারা সত্যি লুকানোর চেষ্টা করছেন। সংগঠন তৈরির একমাত্র বাধা তৃণমূল নয়। ধোঁকা দেওয়ার চেষ্টা করে লাভ নেই

বুথস্তরের সংগঠন তৈরি করার জন্য বাম কর্মীদের দলে নিয়ে আসুন। প্রয়োজনে বিক্ষুব্ধ তৃণমূল কর্মীদেরও দলে নিন।

রাজ্যে বিজেপি সরকার গড়তে পারলেই স্বপ্নপূরণ হবে।

অমিত শাহর বক্তব্যে প্রথম দিনেই উদ্দীপ্ত রাজ্য সভাপতি।

তবে অস্বস্তিতেও পড়তে হয়েছে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতিকে। গরু পাচার থেকে শিশু পাচারের মত একাধিক অভিযোগে দলের কর্মী নেতাদের জড়িয়ে পড়ার অভিযোগ শুনতে হয়েছে তাঁকে। আর এখানেই চড়া সুরে বিজেপিকে আক্রমণ শানিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস।

পশ্চিমবঙ্গের প্রতিবেশি ঝাড়খন্ড, বিহার, অসমে ইতিমধ্যে ক্ষমতায় এসেছে বিজেপি। ওড়িশাতেও ভাল অবস্থান। পথের কাঁটা বাংলায় দাপট বাড়ানোর অমিত-কৌশল কতটা কাজে এল তা দেখতে জানুয়ারির সতেরো ও আঠারো তারিখ ফের এরাজ্যে আসবেন অমিত শাহ।

First published: 09:56:17 AM Sep 12, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर