Amit Shah: 'বিজেপি-র জয়ে বড় ভূমিকা নেবেন মহিলারাই', মমতার দাবি ওড়ালেন শাহ

Amit Shah: 'বিজেপি-র জয়ে বড় ভূমিকা নেবেন মহিলারাই', মমতার দাবি ওড়ালেন শাহ

মহিলা ভোট নিয়ে মমতার দাবি নাকচ শাহের৷

নরেন্দ্র মোদি সরকার যে সামাজিক প্রকল্পগুলি এনেছে, তারই সুফল ভোটবাক্সে বিজেপি পাবে বলেই আত্মবিশ্বাসী অমিত শাহ৷

  • Share this:

    #কলকাতা: মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) রবিবারই নিউজ ১৮ বাংলাকে দেওয়া এক্সক্লুসিভ সাক্ষাৎকারে দাবি করেছিলেন, এবারের নির্বাচনে (West Bengal Election 2021)মহিলারাই হবেন 'গেম চেঞ্জার', 'ট্রাম্প কার্ড'৷ তাঁর যুক্তি ছিল রাজ্য সরকারের 'কন্যাশ্রী', 'রূপশ্রী'-র মতো প্রকল্পের জন্য মহিলাদের সমর্থন থাকবে তৃণমূলের (TMC) দিকেই৷ স্বাস্থ্য সাথী কার্ডও মহিলাদের নামেই দেওয়া হচ্ছে৷ আবার ভোট জিতলে মহিলাদের মাসে ৫০০ থেকে ১০০০ টাকা 'হাত খরচ' দেওয়ার প্রতিশ্রুতিও দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী৷

    যদিও মুখ্যমন্ত্রীর এই দাবি মানতে নারাজ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ (Amit Shah)৷ তাঁর পাল্টা দাবি, এবার বাংলায় বিজেপি-র (BJP) জয়ে বড় ভূমিকা নিতে চলেছেন মহিলারাই৷ কারণ মহিলাদের উন্নয়নে নরেন্দ্র মোদি সরকার যে সামাজিক প্রকল্পগুলি এনেছে, তারই সুফল ভোটবাক্সে বিজেপি পাবে বলেই আত্মবিশ্বাসী অমিত শাহ৷ সোমবার নিউজ ১৮-কে দেওয়া এক্সক্লুসিভ সাক্ষাৎকারে এমনই দাবি করেছেন তিনি৷

    মমতার দাবি খারিজ করে দিয়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, 'আমার মনে হয় এবার বিজেপি-র জয়ে বড় ভূমিকা নেবেন বাংলার মহিলারা৷ যখনই কোনও হিংসাত্মক ঘটনা ঘটে, সব থেকে বেশি যন্ত্রণা সহ্য করতে হয় মহিলাদেরই৷ একই ভাবে যখনই দারিদ্র্য বাড়ে, অরাজকতা দেখা দেয়, তাতে সবথেকে বেশি কষ্ট হয় মহিলাদেরই৷ গোটা বাংলাj ৩৩ শতাংশ এলাকায় ক্ষতিকারক ফ্লুরাইড যুক্ত জল পান করা হয়৷ অথচ গঙ্গা- যমুনার পুরো জল এখানে আসে৷ ভূগর্ভের মাত্র সাত ফুট নীচেই জল রয়েছে৷ অথচ গ্রামে নলের মাধ্যমে পরিস্রুত জল দেওয়ার ব্যবস্থা নেই৷ আর উনি মহিলাদের কথা বলছেন?'

    কেন্দ্রীয় প্রকল্পগুলির উল্লেখ করে শাহ বলেন, 'শৌচালয়ও মোদিজি তৈরি করে দিচ্ছেন৷ বাড়ির ছাদও ব্যবস্থাও মোদিজি পাঠিয়েছেন৷ এবার পরিস্রুত পানীয় জলও মোদিজিই দেবেন৷ মুখেই শুধু মহিলাদের কথা বললে হয়না৷ রান্নার গ্যাসের সিলিন্ডারটাও মোদিজিই দিচ্ছেন৷ মহিলারাও তা ভাল করে জানেন যে ঝুপড়ি ঘরে ধোঁয়া নেই তাঁর কারণ মোদিজি৷ তাঁদের উন্মুক্ত জায়গায় শৌচকর্ম করতে হচ্ছে না, তার কৃতিত্বও মোদিজির৷ আর ভবিষ্যতে তাঁদের পরিবারের স্বাস্থ্যেরও খেয়াল রাখবেন মোদিজিই৷' মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কটাক্ষ করে অমিত শাহ বলেন, 'মহিলা মুখ্যমন্ত্রী যদি সত্যিই মহিলাদের চিন্তা করতেন তাহলে হয়তো আজকে এই দিনটা দেখতে হত না৷'

    রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের একাংশও বলছেন, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভাগুলিতে এবার মহিলাদের উপস্থিতি থাকছে চোখে পড়ার মতো৷ যা আত্মবিশ্বাসী করে তুলেছে তৃণমূল নেতৃত্বকে৷ যদিও সেই দাবি উড়িয়ে দিচ্ছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী৷ তাঁর দাবি, ২০১৬ সালেও মানুষ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারের উপরে ক্ষুব্ধ ছিলেন, কিন্তু সেই সময় এখানে বিজেপি-র সংগঠন মজবুত ছিল না৷ ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনেও বিজেপি-র শক্তি নিয়ে বাংলার মানুষের মনে কিছুটা শঙ্কা ছিল৷ কিন্তু লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি এ রাজ্যে ১৮টি আসনে জয়ী হওয়ার মানুষের সব দ্বিধা দূর হয়ে গিয়েছে বলে দাবি করেছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published:

    লেটেস্ট খবর