• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • কেন্দ্রীয় ট্রেড ইউনিয়নের কনভেনশন বয়কট করল AIUTUC ও AICCTU

কেন্দ্রীয় ট্রেড ইউনিয়নের কনভেনশন বয়কট করল AIUTUC ও AICCTU

ফের অস্বস্তিতে আলিমুদ্দিন। বৃহত্তর বামদলগুলির পর এবার জোট-প্রশ্নে ফাটল ধরল কেন্দ্রীয় ট্রেড ইউনিয়নগুলির যুক্তমঞ্চেও। শনিবার মৌলালিতে যুক্তমঞ্চের কনভেনশন বয়কট করল SUCI এবং CPIML(লিবারেশন)-এর শ্রমিক সংগঠনগুলি।

ফের অস্বস্তিতে আলিমুদ্দিন। বৃহত্তর বামদলগুলির পর এবার জোট-প্রশ্নে ফাটল ধরল কেন্দ্রীয় ট্রেড ইউনিয়নগুলির যুক্তমঞ্চেও। শনিবার মৌলালিতে যুক্তমঞ্চের কনভেনশন বয়কট করল SUCI এবং CPIML(লিবারেশন)-এর শ্রমিক সংগঠনগুলি।

ফের অস্বস্তিতে আলিমুদ্দিন। বৃহত্তর বামদলগুলির পর এবার জোট-প্রশ্নে ফাটল ধরল কেন্দ্রীয় ট্রেড ইউনিয়নগুলির যুক্তমঞ্চেও। শনিবার মৌলালিতে যুক্তমঞ্চের কনভেনশন বয়কট করল SUCI এবং CPIML(লিবারেশন)-এর শ্রমিক সংগঠনগুলি।

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #কলকাতা: ফের অস্বস্তিতে আলিমুদ্দিন। বৃহত্তর বামদলগুলির পর এবার জোট-প্রশ্নে ফাটল ধরল কেন্দ্রীয় ট্রেড ইউনিয়নগুলির যুক্তমঞ্চেও। শনিবার মৌলালিতে যুক্তমঞ্চের কনভেনশন বয়কট করল SUCI এবং CPIML(লিবারেশন)-এর শ্রমিক সংগঠনগুলি। যুক্তমঞ্চের দাবিদাওয়ার মধ্যে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার, ভোট পরবর্তী সন্ত্রাসের মতো রাজ্যের ইস্যুগুলি অন্তর্ভুক্ত করেছে সিটু। যারমধ্যে কংগ্রেসের সঙ্গে জোটের ছায়াই দেখছে বিক্ষুব্ধ শ্রমিক সংগঠনগুলি। শরিক-আপত্তিতে আগেই ফ্রন্টের যৌথ কর্মসূচি থেকে বাদ পড়েছে কংগ্রেস। কংগ্রেসের হাত ধরতে আপত্তি তুলেছে বাম সহযোগী দলগুলিও। এবার আলিমুদ্দিনের অস্বস্তি বাড়িয়ে, শ্রমিক সংগঠনগুলির যুক্তমঞ্চের কনভেনশন বয়কট করল SUCI এবং CPIML(লিবারেশন)-এর শ্রমিক সংগঠনগুলিও। সূত্রের খবর, কংগ্রেসের ছায়া এড়াতেই কনভেনশনে যোগ দেয়নি AIUTUC এবং AICCTU। ১২ দফা দাবিতে, দোসরা সেপ্টেম্বর দেশজোড়া ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে কেন্দ্রীয় ট্রেড ইউনিয়ন ও ফেডারেশনগুলির যুক্তমঞ্চ। তার সমর্থনে শুক্রবার মৌলালি যুবকেন্দ্রে কনভেনশন ডাকা হয়েছিল। কনভেনশন বয়কট করলেও, ২ সেপ্টেম্বর দেশজোড়া ধর্মঘটের পথ থেকে সরছে না SUCI এবং CPIML(লিবারেশন)-এর শ্রমিক সংগঠনগুলি। ধর্মঘটের সমর্থনে প্রচারও করবে দুই সংগঠন। তবে কনভেনশন বয়কটের পদক্ষেপে প্রকাশ্যে চলে এল কেন্দ্রীয় ট্রেড ইউনিয়নগুলির যুক্তমঞ্চের ফাটল। যারজেরে ফের অস্বস্তির মুখে পড়তে হল জোটপন্থী সিপিএমকে।

    First published: