বর্ষা বিদায় নিতেই কলকাতার বাতাসে বাড়ছে ধূলিকণা, দূষণে হাঁসফাঁস শহর

বর্ষা বিদায় নিতেই কলকাতার বাতাসে বাড়ছে ধূলিকণা, দূষণে হাঁসফাঁস শহর
  • Share this:

#কলকাতা: বর্ষা বিদায় নিয়েছে। কলকাতা থেকে চলে গিয়েছে মৌসুমি বায়ু। তারপর থেকেই কলকাতার বাতাসে বাড়ছে দূষণের বিষ। সামনেই কালীপুজো। দূষণের হাঁসফাঁস কি আরও বাড়বে?

কলকাতার ফুসফুসে লাল ক্ষত। দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদের বোর্ড বলছে, মাত্রাছাড়া দূষণে প্রাণ ওষ্ঠাগত তিলোত্তমার। মৌসুমি বায়ু বিদায় নিয়েছে। বর্ষা চলে যেতেই কলকাতায় দূষণ বাড়ছে পাল্লা দিয়ে। ওয়ার্ল্ড হেল্থ অর্গানাইজেশনের নির্ধারিত সূচক অনুযায়ী,

- বাতাসে প্রতি ঘনমিটারে ভাসমান সূক্ষ্ম ধূলিকণা থাকার কথা ২৫ মাইক্রোগ্রাম

- লক্ষ্মীপুজোর দিন কলকাতার বাতাসে ছিল ২০০ মাইক্রোগ্রাম

- তারপর থেকে প্রতিদিনই এই পরিমাণ থাকছে ১৭০-১৮০ মাইক্রোগ্রাম

রবিবার ছুটির দিনে রাস্তায় গাড়ি কম। তা সত্ত্বেও ভিক্টোরিয়া বা বালিগঞ্জ গুরুসদয় দত্ত রোডে দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদের বোর্ডে দেখা গিয়েছে, সূচক ছাড়িয়েছে দূষণ। কালীপুজোয় বাজি ফাটবে। এরপর বড়দিন। উৎসবের মরশুম মানেই কি দূষণের চোখরাঙানি?

- রাস্তায় খাবারের দোকানের কয়লার উনুন, গাড়ির ধোঁয়া ও নির্মাণ থেকেও দূষণ বাড়ে

- ইলেকট্রিক বার্নার বা এয়ার আয়োনাইজার বসালে দূষণ কমতে পারে

দূষণের সূচক সীমা ছাড়ালেই সরকারি ভাবে মাইকিং করে সতর্ক করা হোক। মত পরিবেশবিদদের।

First published: 03:43:46 PM Oct 21, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर