শহরে মাঠের অভাব, হাজার চেষ্টা করেও মিলল না মাঠ, বাধ্য অভিভাবক

শহরে মাঠের অভাব, হাজার চেষ্টা করেও মিলল না মাঠ, বাধ্য অভিভাবক

শনিবারের ঘটনার পরে ধোবিয়াতলা পার্কে বরিবারও দেখা মিলল কচিকাঁচাদের। আতঙ্কে অভিভাবক নজরে রাখবেন সারাদিন ৷ আহত শাহনওয়াজের মাঠে আতঙ্ক৷

  • Share this:
#কলকাতা: শহরে মাঠের অভাব, খোলার মাঠের অভাবে শৈশবের সময় যাচ্ছে মোবাইলে। শহরে এখনো হাতেগোনা কয়েকটি পার্ক। সকালে বয়স্কদের প্রাতঃভ্রমণ হোক বা বিকালে কচিকাঁচাদের খেলা, সবই হয় শহরের বুকে ছোট একটু ফাঁকা জমিতে। শনিবার ট্যাংরার ধোবিয়াতলা পার্কে একটি লোহার গেট ভেঙে যা ঘটেছে তা এখন সবারই জানা। যদিও শনিবারের পর রবিবার সকাল থেকেই অনেকেই চেনা, পরিচিত সেই পার্ককে এসে ঘুরে দেখলেন অনেকবার। মনে হল যেন নিজের এলাকায় অচেনা পার্ক । চিন্তা করছেন নিজের সন্তানের জন্য। সকাল হতেই রোজের মত বাড়ির ছোটদের সময় করেই সুযোগ খোঁজে মাঠের জন্য। রবিবার ছিল অনেকটা সময়, যতই সময় থাক ধোবিয়াতলার পার্কের জন্য ছিল বাবা-মায়ের মানা। ছোটদের হাজারও আবদারে অগত্যা বিকল্প মাঠের সন্ধান না দিকে পেরে যেতে দিতে হল সেই পার্কেই। ছোটদের আবদার মেনে নিলেও সন্তানের জন্য ছিল চিন্তা। এলাকার বাসিন্দা মহম্মদ ইমরান বলেন আজ মানা করার পরেও আসতে চাইল, কি করব এই পার্ক ছাড়া কোথায় পাঠাব, তাই নজর রাখছি। রবিবার বিকালে ফুটবল খেলা দেখার জন্য ভিড় মনে হলেও ভিড় ছিল অভিভাবকদের, নজরে রাখবেন সারাদিন। আহত মহম্মদ শাহনওয়াজ রবিবার অনেকটা সুস্থ থাকলেও নিজের মুখেই জানালো খেলার জন্য পার্কে যাবে, কিন্তু ঐ গেটের কাছে আর যাবে না । আহত শাহনওয়াজের মা-এর একই কথা, রোজের মত আর ছাড়বেন না পার্কে। নিজের সময় না হলে পার্কে যাওয়া মানা। কলকাতা পুরসভার ৫৮ নম্বর ওয়ার্ডের ঘটনায় মেয়রের স্পষ্ট বক্তব্য,  এই ঘটনা দুঃখজনক হলেও ঘটনায় যাতের গাফিলতি তদন্ত করে দেখা হবে। কোন সাহায্যের দরকার হলে মিলবে সবই। এই ঘটনার শহরবাসীকে ফের বুঝিয়ে দিলো শৈশবের জন্য যে এক টুকরো মাঠ বা পার্কের প্রয়োজন সেটি নেই। নিজের সন্তানকে হাজারো নির্দেশ দেওয়া সত্বেও দিতে পারল না বিকল্প মাঠের সন্ধান।  এখন এলাকাবাসীর চিন্তা এই ঘটনার পর মাঠ বন্ধ করে দিলো বাচ্চাগুলো যাবে কোথায়।
Susovan Bhattacharjee
First published: January 19, 2020, 11:54 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर