পাহাড় পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনায় মুখ্যমন্ত্রীর আহ্বান সত্ত্বেও দ্বিধায় মোর্চা

পাহাড় পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনায় মুখ্যমন্ত্রীর আহ্বান সত্ত্বেও দ্বিধায় মোর্চা

পাহাড় পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনায় মুখ্যমন্ত্রীর আহ্বান সত্ত্বেও দ্বিধায় মোর্চা

  • Share this:

#দার্জিলিঙ: মুখ্যমন্ত্রীর আলোচনায় বসার আহ্বানে পা বাড়িয়ে পাহাড়ের একাধিক রাজনৈতিক দল। কিন্তু, দ্বিধায় মোর্চা। কোনও স্পষ্ট বার্তা দেননি বিমল গুরুং। অথচ, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বার্তার চব্বিশ ঘণ্টার মধ্যে আলোচনায় বসতে রাজি দলেরই একাংশ। এনিয়ে কেন্দ্রীয় কমিটির বৈঠকে সিদ্ধান্ত হবে বলে জানিয়েছেন মোর্চা নেতা অমর রাই। তবে আলোচনার টেবলে গোর্খাল্যান্ডের প্রসঙ্গ যে উঠবেই সে কথাও জানিয়ে দিয়েছেন তিনি।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আহ্বানে আলোচনার টেবিলে বসতে রাজি পাহাড়ের একাধিক রাজনৈতিক দল। কিন্তু, কী ভাবছে গোর্খা জনমুক্তি মোর্চা? এক সময়ের অনড় অবস্থান থেকে সরে এসে এখন আলোচনার পক্ষেই সওয়াল করছেন মোর্চা নেতাদের একাংশ।

 মুখ্যমন্ত্রীর আলোচনার আহ্বান নিয়ে এখনও পর্যন্ত দলকে কোনও বার্তা দেননি বিমল গুরুং। আনুষ্ঠানিকভাবে নিজেদের অবস্থান এখনও স্পষ্ট করেনি মোর্চা। কিন্তু, জিএনএলএফের তরফে নবান্নে ইমেল পাঠানোর পর বন্ধ দরজা যে খানিকটা হলেও খুলেছে তা মানছে রাজ্য সরকার।

 পাহাড়ে গোর্খাল্যান্ডের জিগির তুলে কার্যত বাঘের পিঠে চড়েছেন মোর্চা নেতারা। তা স্পষ্ট স্থানীয় বাসিন্দাদের কথাতেও।  গলছে পাহাড়ের বরফ। তাতে অবশ্য রাজ্য সরকারকে কৃতিত্ব দিতে নারাজ বামেরা।

কিছুদিন আগেও রাজ্যের সঙ্গে কথা বলার কোনও উৎসাহই দেখায়নি মোর্চা। হঠাৎ করে এমন উলটপুরাণ কেন?

Loading...

কেন মোর্চার উলটপুরাণ?

- মোর্চার দাবি শুনেও ফিরিয়ে দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার

- নবান্নের সঙ্গে আলোচনার পরামর্শই দিয়েছে নয়াদিল্লি

- বোমা বিস্ফোরণ-সহ একাধিক ঘটনায় কাঠগড়ায় তাবড় মোর্চা নেতারা

- বিমল গুরুং-সহ অন্যান্যদের বিরুদ্ধে ইউএপিএ ধারা প্রয়োগ

- পাহা়ড়ে দীর্ঘ বনধে মোর্চার ওপর চাপ বাড়ছে

- বনধে পাহাড়বাসীর রুটিরুজিতে টান

এসব নানা চাপেই একটু একটু করে নিজেদের অবস্থান নরম করে নিয়েছে মোর্চা।

First published: 04:55:54 PM Aug 23, 2017
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर
Listen to the latest songs, only on JioSaavn.com