ভোটবাজারে গরু পাচার তদন্তে জোর, বিজেপির 'হিন্দু' তাস দেখছেন অধীর চৌধুরী

ভোটবাজারে গরু পাচার তদন্তে জোর, বিজেপির 'হিন্দু' তাস দেখছেন অধীর চৌধুরী

অধীররঞ্জন চৌধুরী।

গেরুয়া শিবির ও তৃণমূলকে বিঁধতে অধীরের হাতিয়ার গরু পাচার কাণ্ড। এই কাণ্ডে দুই শিবিরের আঁতাত দেখছে পাচ্ছেন তিনি।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: দিল্লিতে দলে ভাঙন দিনের আলোর মতো স্পষ্ট। কিন্তু তা নিয়ে মন্তব্য না করে আত্মবিশ্বাসী অধীর চৌধুরী পাখির চোখ করছেন বাংলার ভোটকেই। বাম-কংগ্রেস জোট এই ভোটপর্বে রাজ্যের প্রধান শাসক ও বিরোধী দলের সঙ্গে টক্কর দেবে সমানে সমানে এমনটাই মত তাঁর। গেরুয়া শিবির ও তৃণমূলকে বিঁধতে অধীরের হাতিয়ার গরু পাচার কাণ্ড। এই কাণ্ডে দুই শিবিরের আঁতাত দেখছে পাচ্ছেন তিনি।

মঙ্গলবারই গরু পাচার কাণ্ডে প্রায় সাত ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় বিএসএফ কমান্ডান্ট পদমর্যাদার এক আধিকারিক সতীশ কুমারকে। তদন্তে অসহযোগিতার কারণে বুধবার তাঁকে গ্রেফতার করে সিবিআই। আর এতেই নতুন অস্ত্র পেয়ে গিয়েছেন অধীর।

বুধবার বাদুরিয়ার সভায় আরও একবার গরু পাচার কাণ্ডের কথা তুলে আনেন অধীর চৌধুরী। তাঁর কথায় বিজেপ-তৃণমূল আঁতাত না থাকলে এই ঘটনা কখনওই সম্পর্ক নয়। যুক্তি হিসেবে অধীর দেখাচ্ছেন, রাজ্যে ক্ষমতায় রয়েছে তৃণমূল, এদিকে বিএসএফ চলে কেন্দ্রের অঙ্গুলিহেলনে। বিজেপি নেতাদের একাংশের বরাভয় না থাকলে জল এতদূর গড়াতে পারে না।

বুধবার অধীর চৌধুরী বাদুরিয়ার ওই সভায় বলেন,কেউ কেউ কংগ্রেসের নাম আনছে এই কাণ্ডে। আমি হাতজোড় করে সনির্বন্ধ অনুরোধ করছি, কংগ্রেসের কোনও স্থানীয় নেতা এর সঙ্গে যদি যুক্ত থাকেন, তবে দয়া করে দল থেকে বেরিয়ে যান। কংগ্রেস অসাম্প্রদায়িক জাতীয় দল, এই জাতীয় কাজের কোনও জায়গা নেই।

মঙ্গলবারও অবশ্য এই কাণ্ড ছুঁয়ে গিয়েছিলেন অধীর চৌধুরী। তাঁর কথায় অ্যাম্বুলেন্সে করে টাকা যাচ্ছে তৃণমূলে। অধীর মনে করছেন ভোটর আগে এই নিয়ে এত তৎপরতার মূল কারণ হিন্দু ভোটকে এক জায়গায় আনার বিজেপির পুরনো তাস।

গত সেপ্টেম্বরে বিএসএফ কমান্ডার জিবু ম্যাথুর আয়ের উৎস খুঁজতে গিয়ে বাংলার গরু পাচার চক্রের সন্ধান পায় সিবিআই। পৃথক মামলা শুরু হলে, বিএসএফ, কাস্টমস-সহ বিভিন্ন দফতরের একাধিক আধিকারিকের নাম উঠে আসে। শুরু হয় তদন্ত। অভিযুক্ত হিসেবে এফআইআর-এ উঠে আসে সতীশের নাম। নানা ভাবে জলঘোলা হওয়ার পরে মঙ্গলবার গ্রেফতার হন সতীশ।

Published by:Arka Deb
First published: