• হোম
  • »
  • খবর
  • »
  • কলকাতা
  • »
  • ADHIR CHOWDHURY ON MAMATA BANERJEE PRADESH CONGRESS PRESIDENT ADHIR CHOWDHURY SAID NO CANDIDATE AGAINST MAMATA BANERJEE IN BHOWANIPORE BY POLL SB

Adhir Chowdhury on Mamata Banerjee: ভবানীপুরের ভবিষ্যতে 'কাঁটা' হতে নারাজ অধীর, প্রার্থী দিতে মরিয়া CPM! জোটে ঘোঁট

ভবানীপুর ঘিরে জোটে ঘোঁট?

Adhir Chowdhury on Mamata Banerjee: CPIM একপ্রকার স্পষ্ট করে দিয়েছে, ভবানীপুরে নিয়ম মোতাবেক কংগ্রেস প্রার্থী না দিলে প্রার্থী দেবে বামেরাই।

  • Share this:

কলকাতা: ভবানীপুরের উপনির্বাচনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে প্রার্থী দিচ্ছে না কংগ্রেস। সংযুক্ত মোর্চার নিয়মে ভবানীপুরে প্রার্থী দেওয়ার কথা কংগ্রেসের। কিন্তু এবার সেই আসনে মমতার বিপক্ষে প্রার্থী দিতে নারাজ প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী। এখনও আনুষ্ঠানিকভাবে একথা কংগ্রেসের তরফে না বলা হলেও বিষয়টি নিশ্চিত। আর কংগ্রেস প্রার্থী না দিলে সিপিএম যে ওই আসনে প্রার্থী দেবেই তা স্পষ্ট। আর শুধু ভবানীপুরেই প্রার্থী দেওয়া নিয়ে কংগ্রেস-বাম জোটে এখন অশনি সংকেত। এমনকী অনেকে বলছেন, পরিস্থিতি এমনই যে ভেঙেও যেতে পারে জোট।

একুশের নির্বাচনে 'ত্রিস্তরীয়' জোট করেও ভরাডুবি হয়েছ বাম-কংগ্রেস-আইএসএফ জোটের। নতুন দল আইএসএফ একমাত্র ভাঙড় আসনটি জিতলেও একটি আসন ছিনিয়ে আনতে পারেনি কংগ্রেস ও বামেরা। যা নিয়ে আক্ষেপ শোনা গিয়েছে স্বয়ং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Mamata Banerjee) গলাতেও। এমনকী কংগ্রেসের ভরাডুবিকে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরীর (Adhir Chowdhury) অতিরিক্ত তৃণমূল বিরোধিতার ফল বলে মন্তব্য করেছিলেন কংগ্রেসের বর্ষীয়ান কেন্দ্রীয় নেতা বীরাপ্পা মইলি। প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতির পদ থেকে অধীরকে সরিয়ে দেওয়ার দাবিও উঠেছে। এই পরিস্থিতিতে একেবারে অন্য সুর শোনা গেল প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরীর গলায়। আগামী উপনির্বাচনে ভবানীপুর আসনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে প্রার্থী না দিয়ে তাঁকে সম্মান জানানোর কথা বলেছেন অধীর। কিন্তু অধীরের সুরে সুর মেলাতে নারাজ জোটসঙ্গী CPIM। তাঁরা একপ্রকার স্পষ্ট করে দিয়েছেন, ভবানীপুরে নিয়ম মোতাবেক কংগ্রেস প্রার্থী না দিলে প্রার্থী দেবে বামেরাই।

কংগ্রেস সূত্রে খবর, ভবানীপুরে প্রার্থী দিতে চান না বলা আসলে অধীরের একটা চাল। নিজের গদি বাঁচাতেই তাঁর এই পদক্ষেপ বলে মনে করছেন অনেকে। কারণ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে অধীর চৌধুরীর যা সংঘাত, তাতে এহেন পদক্ষেপ অবাক করেছে সকলকেই। কিন্তু অধীরের পথে হাঁটতে নারাজ বামেরা। সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তীর মতে, 'এটা তো বিধানসভার সম্পূর্ণ নির্বাচন নয়, বরং একটা কেন্দ্রের উপনির্বাচন। তাই সমর্থনের কোনও বিষয় থাকছে না। তাই সেখানে প্রার্থী না দেওয়ার কোনও কারণ দেখছি না। এটাই তো গণতান্ত্রিক রীতি। আর ভবানীপুর কেন্দ্রে যে তৃণমূল বিরোধী ভোট, সংযুক্ত মোর্চা প্রার্থী না দিলে সেই ভোট তো বিজেপি পেতে পারে। তাই তো আমরা চাই না।'

শুধু তাই নয়, অধীরের নতুন অবস্থান নিয়ে কংগ্রেসের অন্দরে এমনটাও বলা হচ্ছে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে সম্মান জানাতে হলে জোট ছেড়ে বেরিয়ে আসুন তিনি। সংযুক্ত মোর্চার সঙ্গে জোট ছিন্ন করুন। কংগ্রেস প্রার্থী না দিলেও সংযুক্ত মোর্চার তরফ থেকে তো প্রার্থী দেওয়া হবে। তাহলে কীভাবে সম্মান জানাবেন তিনি?

রাজ্য–রাজনীতিতে বরাবর মমতা বিরোধী হিসেবে পরিচিত অধীর। সেখানে আজ তিনি জানিয়েছেন, রাজ্যের আসন্ন উপনির্বাচনে ভবানীপুর কেন্দ্রে কোনও প্রার্থী দিতে চান না। অধীরের দাবি সৌজন্যের কারণেই তিনি প্রার্থী দিতে চান না। এই মর্মে তিনি উচ্চতর নেতৃত্বের কাছে নিজের বক্তব্য জানিয়েছেন। যদিও সিপিএম যা অবস্থান নিতে চলেছে, তাতে জোটের ভবিষ্যৎ নিয়ে এখন থেকেই শঙ্কিত অনেকে।

Published by:Suman Biswas
First published: