কলকাতা পুরসভায় নোবেল সরণী, সরণী'তে এলেন অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়

কলকাতা পুরসভায় নোবেল সরণী, সরণী'তে এলেন অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়

নোবেলজয়ী নাগরিক-কে নিয়ে বিশেষ পরিকল্পনা রয়েছে পুরসভার। রাজ্য সরকারের সঙ্গে এই বিষয়ে আলোচনার পরই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত

  • Share this:

ARNAB HAZRA

#কলকাতা: কলকাতা কার? আমরা বলি বাঙালি'র। দেশের সীমানা ছাড়িয়ে এই প্রশ্নটা করলে, উত্তর আসে নানা রকম। কেউ বলেন রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, কেউ বলেন স্বামী বিবেকানন্দ, কেউ বলেন স্যার রোনাল্ড রস, কেউ বলেন অমর্ত্য সেন, আবার কেউ সুভাষচন্দ্র বসু, কেউ অমর্ত্য সেন। আসলে বিশ্বের আঙিনায় কলকাতাকে চিনিয়েছেন অনেক অনেক দিকপাল। "বাঙালি" বৃত্তকে যাঁরা করেছেন বিশ্বময়। ২০১৯ বিশ্ব পেয়েছে আর এক বাঙালিকে। প্রাক্তন প্রেসিডেন্সির হাত ধরেই দেশে এসেছে অর্থনীতির আরও এক নোবেল পদক। হ্যাঁ, অর্থনীতিবিদ অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়-এর কথা বলছি।

কলকাতার ভূমিকে গৌরবান্বিত করা অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায় ষষ্ঠ নোবেল পদক এনে দিয়েছেন শহরে।সেই নোবেল জয়ী অর্থনীতিবিদ-কে, বলা ভালো কলকাতার এক সহনাগরিক-কে শুক্রবার বিশেষ সম্মান জানালো কলকাতা পুরসভা। কলকাতার প্রথম নাগরিক তথা মেয়র ফিরহাদ হাকিমে'র হাত ধরে এদিন অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়-এর বিশেষ ছবি জায়গা পেল৷

1684_IMG_20191227_151132

পুরসভার তথ্য সংগ্রহশালায়। কলকাতা পুরসভার তথ্য ও সংস্কৃতি বিভাগের তথ্যভাণ্ডারে শুক্রবার থেকেই ঢুকে পড়লো অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়। ম্যালেরিয়া ভেক্টর আবিষ্কার স্যার রোনাল্ড রস, বিজ্ঞানী সি ভি রামন, বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, কলকাতার "মা" মাদার টেরেজা, অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেনের পাশে এখন থেকে দেখা যাবে অর্থনীতিবীদ অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়-কে।মেয়র ফিরহাদ হাকিম জানান," কলকাতা পুরসভা অনেক দিকপালদের পেয়েছে। নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়কে আমরা পুরসভার সংগ্রহশালায় জায়গা দিলাম। পড়ুয়ারা এই সংগ্রহশালা ঘুরে দেখতে পারেন। নোবেলজয়ী নাগরিক-কে নিয়ে বিশেষ পরিকল্পনাও রয়েছে পুরসভার। রাজ্য সরকারের সঙ্গে এই বিষয়ে আলোচনার পরই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।"

আরও পড়ুন - ঘরে মামীকে একলা পেয়ে শরীর ছিঁড়ে খেল ভাগ্নে, সঙ্গে হল পুরো ঘটনার ভিডিও রেকর্ডিং

সূত্রের খবর, অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায় সময় দিতে পারলেই তাকে বিশেষ সম্বর্ধনা জানাবে পুরসভা। ২০৫ বর্গ কিলোমিটার জুড়ে ছড়িয়ে রয়েছে শতাব্দীপ্রাচীন কলকাতা পুরসভা। ঘোড়ায় টানা বাস থেকে ইলেকট্রিক বাস। তিলোত্তমার যানবাহন বদলেছে। কালের নিয়মে অনেক কিছু হারিয়েও গেছে।

তবু আজও যা অক্ষয় অমলিন হয়ে রয়ে গেছে তা কলকাতার "সম্মান"। যে সম্মানে'র ছটায় আজও সম্মানিত বাংলা, বাঙালি ও দেশ।

আরও দেখুন

First published: 08:40:27 PM Dec 27, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर