• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত আংশিক বন্ধ থাকবে বালি ব্রিজ

৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত আংশিক বন্ধ থাকবে বালি ব্রিজ

কলকাতার বাইরে থেকে দক্ষিণেশ্বর মন্দির কিংবা বিমান বন্দর যেতে অন্যতম ভরসা বালি ব্রিজ। কিন্তু সেই ব্যস্ত ব্রিজই দীর্ঘদিন বেহাল।

কলকাতার বাইরে থেকে দক্ষিণেশ্বর মন্দির কিংবা বিমান বন্দর যেতে অন্যতম ভরসা বালি ব্রিজ। কিন্তু সেই ব্যস্ত ব্রিজই দীর্ঘদিন বেহাল।

কলকাতার বাইরে থেকে দক্ষিণেশ্বর মন্দির কিংবা বিমান বন্দর যেতে অন্যতম ভরসা বালি ব্রিজ। কিন্তু সেই ব্যস্ত ব্রিজই দীর্ঘদিন বেহাল।

  • ETV
  • Last Updated :
  • Share this:

    #কলকাতা: কলকাতার বাইরে থেকে দক্ষিণেশ্বর মন্দির কিংবা বিমান বন্দর যেতে অন্যতম ভরসা বালি ব্রিজ। কিন্তু সেই ব্যস্ত ব্রিজই দীর্ঘদিন বেহাল। যানবাহনের চাপে ফাটল ধরিয়েছে সেতুর বিভিন্ন জায়গায় ৷ যে কোনও সময় দুর্ঘটনা ঘটার আশঙ্কা। এই পরিস্থিতিতে বৃহস্পতিবার থেকে বালি ব্রিজে মেরামতি শুরু করেছে পূর্ত দফতর ও রেল। হাওড়া ট্রাফিক পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে ৩০ সেপ্টেম্বর রাত এগারোটা পর্যন্ত বন্ধ থাকবে দক্ষিণেশ্বরগামী লেনটি। ওই লেনের গাড়িগুলিকে নিবেদিতা সেতু দিয়ে ঘুরিয়ে দেওয়া হবে। তবে কলকাতা থেকে হাওড়াগামী যান চলাচল আগের মতোই থাকবে। হাওড়া গামী সমস্ত লোকাল রুটের বাস গুলি পুরনো বালি ব্রিজের উত্তর দিয়ে যাতায়াত করত। সেগুলি টোল প্লাজা ছাড়িয়ে বালি হল্ট বাস স্ট্যান্ডের পাশ দিয়ে নিবেদিতা সেতু ধরবে। দু-তিন চাকার গাড়িগুলি উভয় দিকে পুরনো বালি ব্রিজের দক্ষিণ দিকের রাস্তা দিয়ে যাতায়াত করবে। অন্যান্য সমস্ত গাড়ি টোল প্লাজা দিয়ে নিবেদিতা সেতু ধরবে ৷ সকাল আটটা থেকে রাত দশটা পর্যন্ত বামুনডাঙা আইল্যান্ড থেকে বালি হল্ট বাসস্ট্যান্ড পর্যন্ত ও জিটি রোড থেকে বালি খাল হয়ে হাওড়াগামী রাস্তায় মালবাহী গাড়ী প্রবেশের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে। এর ফলে বালি ব্রিজের উপর দিয়ে নিত্য যাতায়াতকারীদের সমস্যা যে কিছুটা হবে তা মেনে নিয়েছে পূর্ত দফতর। টোল প্লাজা দিয়ে গাড়ি ঘুরিয়ে দেওয়ার সময় যেমন লাগবে বেশি, তেমনি হয়রানি হবে বলেও আশঙ্কা যাত্রীদের। দীর্ঘ দিন ধরেই বালি ব্রিজের দক্ষিণেশ্বরমুখী রাস্তার বেশ কয়েকটি জায়গায় ফাটল দেখা দিচ্ছিল। সেই ফাটল বেড়ে গিয়েই গর্ত তৈরি হচ্ছিল সেতুতে। বালি ব্রিজ লম্বা ৮৮০ মিটার, চওড়ায় প্রায় ৭ মিটার, তার মধ্যে ফুটপাথ রয়েছে ২মিটার। রাস্তাটির কংক্রিটের আস্তরণের নীচে রয়েছে ১১টি এক্সপ্যানশন জয়েন্ট ৷ তার নীচেই টার্ফ প্লেট ৷ ১১টির মধ্যে ৭টি এক্সপ্যানশন জয়েন্টের অবস্থা বেহাল ৷ ব্রিজের ৮৮০ মিটার লম্ব ও চওড়ায় সাড়ে সাত মিটার রাস্তাটির কংক্রিটের আস্তরণের নীচে রয়েছে ১১টি এক্সপ্যানশন জয়েন্ট। পূর্ত দফতর সূত্রের খবর, ৭টি এক্সপ্যানশন জয়েন্টের অবস্থা বেহাল। স্থানীয় বাসিন্দাদের প্রশ্ন এখন একটাই, সারাই তো হচ্ছে ব্রিজ, কিন্তু বর্ষা শুরু হয়ে যাওয়ায কাজ কতটা তাড়াতাড়ি হবে তা নিয়ে চিন্তায় রযেছেন সকলেই। ফলে চিকিৎসার পরেও, বালি ব্রিজ কতটা শক্তপোক্ত অবস্থায় ফিরে যাবে তা নিয়ে একটা সন্দেহ থাকছেই।

    First published: