corona virus btn
corona virus btn
Loading

রিসার্চ পেপার চূড়ান্ত করলেও নোবেল দিচ্ছে না কমিটি! অভিমানে হাওড়া ব্রিজের মাথায় মহিলা

রিসার্চ পেপার চূড়ান্ত করলেও নোবেল দিচ্ছে না কমিটি! অভিমানে হাওড়া ব্রিজের মাথায় মহিলা

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে পুলিশ জানতে পেরেছে মহিলার নাম ডলি বসু । তিনি উত্তর ২৪ পরগনার অশোকনগরের বসিন্দা ।

  • Share this:

#কলকাতা: ঘড়ির কাঁটায় তখন বিকেল পাঁচ'টা । কলকাতা থেকে হাওড়ার দিকে যাওয়ার পথে হাওড়া ব্রিজের চার নম্বর পিলারে আচমকাই উঠে পড়েন এক মহিলা । এরপর উপর থেকে একাধিক দাবি জানাতে শুরু করেন । ঘটনাস্থলে পৌঁছয় উত্তর  বন্দর থানার পুলিশ এবং দমকল বিভাগের আধিকারিকরা । অনেক বোঝানোর পর ধীরে ধীরে তিনি নিজেই নিচে নেমে আসেন ।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে পুলিশ জানতে পেরেছে মহিলার নাম ডলি ঘোষ । তিনি উত্তর ২৪ পরগনার অশোকনগরের কচুয়ার ঘোষ পাড়ার বসিন্দা । কিন্তু ঠিক কী কারণে ওই মহিলা হাওড়া ব্রিজের মাথায় চড়ে বসলেন ! সেই প্রশ্নের উত্তর খুঁজতেই রীতিমতো হিমশিম খাচ্ছেন তাবড় পুলিশ আধিকারিকরা ।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, মহিলা মানসিক ভারসাম্যাহীন, প্রতি মুহূর্তেই তিনি কারও না কারও বিরুদ্ধে অভিযোগ জানাচ্ছেন । কখনও অভিযোগ করছেন পরিবারের বিরুদ্ধে, কখনও প্রধানমন্ত্রী তো কখনও আবার নোবেল জয়ী অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেনের বিরুদ্ধে । নোবেল প্রদানকারী কমিটির বিরুদ্ধেও অভিযোগ রয়েছে তাঁর । এদিন প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের পর পুলিশ জানিয়েছেন, পারিবারিক অশান্তির জেরেই সম্ভবত মানসিক ভারসাম্য হারিয়েছেন মহিলা । প্রাথমিক ভাবে তার ছবি ও তার বিবৃতি অনুযায়ী মহিলার পরিবারের লোকজনদের খোঁজ চালানো হচ্ছে ।

ডলি ঘোষের দাবি, তাঁর সারগেসি বিষয়ে তাঁর গবেষণা নোবেল কমিটির দ্বারা চূড়ান্ত হয়েছিল । কিন্তু বয়স কম থাকার তখন তিনি পুরস্কার গ্রহণ করেননি । কমিটিকে জানিয়েছিলেন, নোবেল পাওয়ার বয়স হলে, তিনি সেই পুরস্কার নিয়ে আসবেন । আর সে কথা জানতেন নোবেল কমিটির সদস্যরা ছাড়াও নোবেল জয়ী অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেন । ঠিক তার পরই তিনি বলেন, তিনি নাকি তাঁর ছেলেকে অমর্ত্য সেনের কাছে পাঠিয়েছিলেন । এখন তিনি তার ছেলেদের ফেরত দিচ্ছেন না । এমনকি নোবেলের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী তার আবেদনে সারা দিচ্ছেন না, এমনই অভিযোগ তাঁর ।

পুলিশ জানিয়েছে, এদিন বিকেল ঠিক পাঁচটা নাগাদ ব্রিজের ওপর দিয়ে যাওয়ার সময় এক ব্যক্তির নজরে আসে একজন মহিলা ব্রিজের ওপরে উঠছেন । তিনি দৌড়ে গিয়ে ব্রিজের ওপর পুলিশ কিয়স্কে গিয়ে জানান, দৌড়ে আসেন নর্থ পোর্ট থানার পুলিশ । খবর দেওয়া হয় দমকলে । হাওড়া থেকে ছুটে  আসেন দমকলকর্মীরা । এসে পৌঁছায় কলকাতা পুলিশের বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী ।  তবে দমকল কর্মী ও পুলিশ কর্মীদের আবেদনে সারা দিয়ে নিজে প্রায় ৪৫ মিনিট পর ব্রিজের মাথা থেকে নিজেই হেঁটে নিচে নেমে আসেন । এরপর তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয় নর্থ পোর্ট থানায় ।

Published by: Shubhagata Dey
First published: June 8, 2020, 12:50 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर