Home /News /kolkata /

টালিগঞ্জের আবাসনে আত্মঘাতী চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্ট, মৃত্যুর কারণ খুঁজছে পুলিশ

টালিগঞ্জের আবাসনে আত্মঘাতী চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্ট, মৃত্যুর কারণ খুঁজছে পুলিশ

এই আবাসনেই থাকতেন জগদীশ প্রসাদ আগারওয়াল।

এই আবাসনেই থাকতেন জগদীশ প্রসাদ আগারওয়াল।

পুলিশ সূত্রে খবর, এ দিন সকালে দশটা নাগাদ ওই আবাসনের একটি ঘরের দরজা ভেঙে ওই বৃদ্ধের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার করা হয়।

  • Share this:

কলকাতা: টালিগঞ্জের শ্যামাপ্রসাদ মুখার্জী রোডে একটি বহুতল থেকে এক বৃদ্ধর ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার করল পুলিশ। শনিবার সকালে ১৭১ নম্বর শ্যামাপ্রসাদ মুখার্জী রোডের একটি আবাসনের দোতলায় ঘটনাটি ঘটে। পুলিশ সূত্রে খবর ওই বৃদ্ধের নাম জগদীশ প্রসাদ আগারওয়াল (৬৫)।

পুলিশ সূত্রে খবর, এ দিন সকালে দশটা নাগাদ ওই আবাসনের একটি ঘরের দরজা ভেঙে ওই বৃদ্ধের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার করা হয়। সিলিং ফ্যানের সঙ্গে বিছানার চাদর পেঁচিয়ে ঝুলতে দেখা গিয়েছে জগদীশবাবুকে। মৃতের পরিবারের লোকেরা পুলিশকে জানিয়েছেন, বেশ কয়েকবছর ধরেই মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন। বেশ কয়েকবার আত্মহত্যার চেষ্টা করেছিলেন তিনি। অবসাদের জেরেই বৃদ্ধ আত্মহত্যা করেছেন বলে প্রাথমিক তদন্তে পুলিশ মনে করছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, এদিন সকালে পরিবারের সকলের সঙ্গেই খাওয়া-দাওয়া করেন জগদীশ। সকালের খাবার খাওয়ার পরে শরীর খারাপ লাগছে বলে জানান। তারপর নিজের ঘরে গিয়ে দরজা ভেতর থেকে বন্ধ করে দেন। সকালের খাবার খাওয়ার পরে তাঁর ছেলে ব্যক্তিগত কাজে বাড়ির বাইরে বের হন। তাঁর স্ত্রীও অন্য ঘরে টিভি দেখছিলেন। ছেলে কাজ থেকে ফিরে বাবার সাড়া শব্দ না পেয়ে দরজায় কড়া নাড়ে।

ভিতর থেকে কোনও শব্দ না আসায় সন্দেহ হয় পরিবারের লোকেদের। খবর দেওয়া হয় টালিগঞ্জ থানায়। পুলিশ এসে দরজা খুলে দেখে ফ্যানের সঙ্গে বিছানার চাদর জড়িয়ে ঝুলছে জগদীশ।

জগদীশবাবুর এই সিদ্ধান্তে তাঁর পরিবার পরিজনেরা প্রত্যেকেই স্তব্ধ। পরিবার সূত্রে পুলিশ জানতে পেরেছে, দীর্ঘ কয়েকবছর ধরেই হৃদরোগ-সহ বিভিন্ন জটিল রোগে ভুগছিলেন জগদীশ। রোগের কারণে তিনি অবসাদে ভুগছিলেন নাকি অন্য কোনও কারণে অবসাদে ভুগে তিনি চরম সিদ্ধান্ত নিলেন তা পরিবারের থেকে জানার চেষ্টা করছে পুলিশ।

Published by:Arka Deb
First published:

Tags: Suicide

পরবর্তী খবর