corona virus btn
corona virus btn
Loading

ফের ভাড়া বৃদ্ধির দাবিতে সরব ৮টি বেসরকারি বাস সংগঠন, যাত্রী ও টিকিট বিক্রির হার কমেছে প্রায় ৬০%    

ফের ভাড়া বৃদ্ধির দাবিতে সরব ৮টি বেসরকারি বাস সংগঠন, যাত্রী ও টিকিট বিক্রির হার কমেছে প্রায় ৬০%    
File Photo

বেঙ্গল বাস সিন্ডিকেটের সহ সভাপতি টিটু সাহা জানাচ্ছেন, "দীর্ঘ দিন বসে থাকার পরে রাস্তায় বাস নেমেছে। এরই মধ্যে জ্বালানির খরচ বেড়েছে। এই পরিস্থিতিতে দৈনিক খরচ তোলা সম্ভব নয়। তাই ভাড়া বৃদ্ধি জরুরি।"

  • Share this:

#কলকাতা: বেসরকারি বাস ও মিনিবাসের ভাড়া বৃদ্ধির দাবিতে ফের সরব হলেন বাস সংগঠনের প্রতিনিধিরা। শুক্রবার আটটি বেসরকারি বাস সংগঠনের প্রতিনিধিরা দেখা করেন সরকার নিযুক্ত রেগুলেটরি কমিটির সাথে। ভাড়া না বাড়ালে বাস চালানো সম্ভব হচ্ছে না বলে দাবি বেসরকারি বাস সংগঠনের প্রতিনিধিদের৷

অন্যদিকে সোমবার থেকে গ্রেটার কলকাতায় যাত্রীদের যাতায়াতের জন্য আরও ৪০০ অতিরিক্ত বাস চলবে বলে জানিয়েছে রাজ্যের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক।২৭ মে থেকে রাস্তায় নেমেছে বেসরকারি বাস। প্রথম কয়েকদিন হাতে গোনা বাস চললেও, ধীরে ধীরে বেসরকারি বাসের সংখ্যা বেড়েছে রাস্তায়। যদিও বেসরকারি বাস সংগঠনের দাবি পুরনো ভাড়ায় বাস চালাতে গিয়ে তাদের যথেষ্ট অসুবিধার মধ্যে পড়তে হচ্ছে। এই অবস্থা ব্যখ্যা করে গত ২৭ মে থেকে ৩১ মে। ১ জুন থেকে ৭ জুন। ৮ জুন থেকে ১১ জুন পর্যন্ত যাত্রীর হার, স্টেজ প্রতি টিকিট বিক্রির হার সংক্রান্ত তথ্য তাঁরা জমা দিয়েছেন। সেই তথ্য অনুযায়ী বাস সংগঠনের দাবি, দুটি ক্ষেত্রেই তাদের ক্ষতি হচ্ছে।

সারা বাংলা বাস মিনিবাস সমন্বয় সমিতির সাধারণ সম্পাদক রাহুল চট্টোপাধ্যায় জানিয়েছেন, "বাসে যাত্রী কমেছে ৬০.২৬%। মিনিবাসে যাত্রী কমেছে ৫৬.০৪%। বাসে টিকিট বিক্রির হার কমেছে ৬০.৩০%। মিনিবাসে টিকিট বিক্রির হার কমেছে ৫৬.৫৩%।" সংগঠনের দাবি এই ক্ষতি নিয়ে বাস চালানো সম্ভব হচ্ছে না। অন্যদিকে বেঙ্গল বাস সিন্ডিকেটের সহ সভাপতি টিটু সাহা জানাচ্ছেন, "দীর্ঘ দিন বসে থাকার পরে রাস্তায় বাস নেমেছে। এরই মধ্যে জ্বালানির খরচ বেড়েছে। এই পরিস্থিতিতে দৈনিক খরচ তোলা সম্ভব নয়। তাই ভাড়া বৃদ্ধি জরুরি।"

সরকারের কাছে তারা যে রিপোর্ট পেশ করেছেন সেখানে উল্লেখ করেছেন, লকডাউনের আগে বাসে যাত্রী হত ৭৫৫ জন। তাদের থেকে টিকিট বিক্রি করে আয় হত ৫৯৭০ টাকা। এখন সেখানে যাত্রী হচ্ছে ৩০০ জন। টিকিট বিক্রি করে  মিলছে ২৩৭০ টাকা। অপরদিকে, মিনিবাসে যাত্রী হত ৪৫৫ টাকা। তা থেকে টিকিট বিক্রি করে পাওয়া যেত ৪৩২৫ টাকা। এখন যাত্রী হচ্ছে ২০০ জন। আর টিকিট বিক্রি করে পাওয়া যাচ্ছে ১৮৮০ টাকা।অন্যদিকে জেলায় যে সমস্ত বাস চলে তার ভাড়া বাড়ানোর দাবি জানালেন তারা। সেক্ষেত্রে তারা ৫০% ভাড়া বাড়ানোর দাবি রেখেছেন।।এরই মধ্যে রাজ্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক জানিয়েছে সোমবার থেকে বৃহত্তর কলকাতায় চলবে আরও ৪০০ অতিরিক্ত বাস। তার মধ্যে ২০০ এসি বাস চলবে বেসরকারি সংস্থার মাধ্যমে। ২০০ বাস চালাবে দক্ষিণবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ নিগম। এগুলি যদিও নন এসি বাস। হাওড়া স্টেশন, এসপ্ল্যানেড, বিবিদি বাগ, সেক্টর ৫ এলাকায় চলবে। এছাড়া জুড়ে দেওয়া হবে গড়িয়া, বেহালা, বারাসত, বারাকপুরের মতো জায়গা।

আবীর ঘোষাল

Published by: Siddhartha Sarkar
First published: June 12, 2020, 4:44 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर