Calcutta High Court: হাইকোর্টে নতুন ৫ বিচারপতি, এখনও শূন্য পদ কত? চমকে যাওয়ার মতো তথ্য

কলকাতা হাইকোর্ট

Calcutta High Court: কলকাতা হাইকোর্টের কলেজিয়াম সম্ভাব্য বিচারপতিদের নামের সুপারিশ পাঠায় সুপ্রিম কোর্টে। এরপর সুপ্রিম কোর্ট কলেজিয়াম সেগুলি বিবেচনার পর সুপারিশ পাঠান কেন্দ্রের কাছে।

  • Share this:

#কলকাতা: রাজ্যের বিচারপ্রক্রিয়া আরও দ্রুত হওয়ার আশা রেখে শুক্রবার কলকাতা হাইকোর্টে শপথ নিলেন নতুন ৫ বিচারপতি।  কলকাতা হাইকোর্টের অতিরিক্ত বিচারপতি পদে শপথ নিলেন ৫ জনই। সার্ভিস জজ থেকে উন্নিত হয়ে বিচারপতি হলেন রবীন্দ্রনাথ সামন্ত, সুগত মজুমদার, বিভাস পট্টনায়ক, মিস কেসং দোমা ভুটিয়া এবং আনন্দ কুমার মুখোপাধ্যায়। প্রত্যেকেই কোনও না কোনও জেলা জজের দায়িত্ব সামলেছেন।

রবীন্দ্রনাথ সামন্ত ও সুগত মজুমদারদের কলকাতা হাইকোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল পদে কাজের যথেষ্ট অভিজ্ঞতা রয়েছে। বিচারপতি রবীন্দ্রনাথ সামন্ত একসময় রাজ্য মানবাধিকার কমিশনের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা সামলেছেন। কলকাতা হাইকোর্ট সারা দেশের অন্যতম একটি চ্যাটার্ড হাইকোর্ট।  বিচারপতি থাকার কথা ৭২ জন। সাম্প্রতিক সময়ে কোনওদিনই ৭২ জন বিচারপতিকে পায়নি কলকাতা হাইকোর্ট। রাজ্য ছাড়া আন্দামান নিকোবরের বিচারের কাজ পরিচালনা হয় কোলকাতা হাইকোর্ট থেকেই। পরপর অনেক বিচারপতি অবসর নেওয়ায় বর্তমানে শূন্যপদ দাঁড়ায় ৪১। শুক্রবার ৫ জন শপথের পর হিসেবটা দাঁড়ায় ৩৬। ৫০% বিচারপতির পদ এখনও শূন্য। সম্প্রতি লোকসভায় কেন্দ্রের দেওয়া হিসেব অনুযায়ী সারা দেশে সুপ্রিম কোর্ট ও হাইকোর্ট মিলিয়ে শূনপদ বিচারপতি সংখ্যা ৪১৯। দেশে ১০৮০ অনুমোদিত বিচারপতি পদ। সেখানে রয়েছেন সর্বমোট ৬৬১।

তবে নতুন করে কিছু বিচারপতি পদ পূরণ হওয়ায় সংখ্যার গ্রাফটা কিছুটা উর্দ্ধমুখী। কোলকাতা হাইকোর্টে বিচারপতি নিযুক্ত হয় দুইভাবে। সার্ভিস জজদের পদোন্নতি  মাধ্যমে আর অন্যটি হল হাইকোর্টে ভালো কাজ করা আইনজীবীদের বিচারপতি নিযুক্ত করে। হাইকোর্টের কলেজিয়াম সম্ভাব্য বিচারপতিদের নামের সুপারিশ পাঠায় সুপ্রিম কোর্টে। এরপর সুপ্রিম কোর্ট কলেজিয়াম সেগুলি বিবেচনার পর সুপারিশ পাঠান কেন্দ্রের কাছে। এরপরের প্রক্রিয়াটি বারবার প্রলম্বিত হয় বলে প্রায়শই অভিযোগ ওঠে আইনজীবী মহলে। রাজনৈতিক সমীকরণের দিকে ওঠে অভিযোগের আঙুল। বর্তমানে কোলকাতা হাইকোর্টে ঝুলে থাকা মামলার সংখ্যা প্রায় ২.৫ লক্ষের কাছাকাছি। নতুন ৫ বিচারপতি শুক্রবার থেকেই শুরু করে দিয়েছেন বিচারের কাজ।

Published by:Suman Biswas
First published: