কলকাতা

corona virus btn
corona virus btn
Loading

দীর্ঘ ৯ মাস পর ফের চেকিং শুরু, কলকাতায় মদ্যপ অবস্থায় ধরা পড়ল ২৬ জন গাড়ি চালক

দীর্ঘ ৯ মাস পর ফের চেকিং শুরু, কলকাতায় মদ্যপ অবস্থায় ধরা পড়ল ২৬ জন গাড়ি চালক
Representational Image

মঙ্গলবার রাতে কলকাতায়, ৩২৬ জন গাড়ির চালককে ধরা হয়েছে ট্রাফিক আইন অমান্য করার অপরাধে। কলকাতা ট্রাফিক পুলিশের দাবি, এর মধ্যে ২৬ জন গাড়ি চালাচ্ছিলেন মদ্যপ অবস্থায়।

  • Share this:

#কলকাতা: মঙ্গলবার রাতে কলকাতায়, ৩২৬ জন গাড়ির চালককে আটক করা হয়েছে ট্রাফিক আইন অমান্য করার অপরাধে। কলকাতা ট্রাফিক পুলিশের দাবি, এর মধ্যে ২৬ জন গাড়ি চালাচ্ছিলেন মদ্যপ অবস্থায়। করোনার সংক্রমণের সম্ভাবনা এড়াতে, ব্রেদালাইজার ব্যবহার করা সম্ভব হয়নি অতিমারীর এই গোটা সময় জুড়ে। সে কারণে, এতদিন বন্ধ ছিল মদ্যপ অবস্থায় বাইক এবং গাড়ি চালকদের ধরপাকড়। দীর্ঘ নয় মাস পর, পুলিশ ফের শুরু করে এই অভিযান। তবে এবার ব্রেদালাইজার ব্যবহার না করেই।

ট্রাফিক নিয়ম ভাঙ্গার অপরাধে যাঁদের ধরা হয়েছে, তার অধিকাংশই গাড়ি চালাচ্ছিলেন পার্ক স্ট্রিট, থিয়েটার রোড, লউডন স্ট্রিট, বেন্টিঙ্ক স্ট্রিট, ওয়াটারলু স্ট্রিট, শোভাবাজার এবং গোলপার্ক এলাকায়। মঙ্গলবার রাত ১০.৩০ থেকে রাত ১টা পর্যন্ত চলে পুলিশের অভিযান। সূত্রের খবর, মোট ২৬ জন ধরা পড়েছেন মদ্যপ অবস্থায়। কলকাতা ট্রাফিক পুলিশের ডেপুটি কমিশনার রূপেশ কুমার জানিয়েছেন, এরকম চেকিং এখন চলতে থাকবে।

তবে শুধু মদ্যপ গাড়ি অথবা বাইক চালক নন, ১০৪ জন বাইক চালককে ধরা হয়েছে ট্রাফিক আইন ভেঙ্গে একজনের বেশি রাইডারকে বাইকে চাপিয়ে নিয়ে যাওয়ার অপরাধে। এছাড়াও ১৬৩ জনকে ধরা হয়েছে হেলমেট ছাড়া বাইক চালানোর জন্য। পুলিশ এদিন ব্রেদালাইজার ছাড়াই, চালকদের সঙ্গে কথা বলে বোঝার চেষ্টা করে কেউ মদ্যপ অবস্থায় গাড়ি চালাচ্ছেন কি না।

বালিগঞ্জের একজন ট্রাফিক পুলিশ জানিয়েছেন, “মদ্যপান করেছেন কি না একথা সোজাসুজি জিজ্ঞাসা না করে, আমরা এদিন গাড়ি দাঁড় করিয়ে চালকদের সঙ্গে কথা বলতে শুরু করি। সেই ব্যক্তি কি ভাবে কথা বলছেন, তা শুনেই বোঝার চেষ্টা করি তিনি আদৌ সুস্থ অবস্থায় আছেন নাকি নেশাতুর। কারও সম্পর্কে সন্দেহ হলেই তাঁকে জানিয়েছি আমাদের সহকর্মীর সঙ্গে হাসপাতালে যেতে অ্যালকোহল টেস্ট করাতে।” কোনও ব্যক্তি হাসপাতালে যেতে না চাইলে বলা হয়, তাঁর বিরুদ্ধে অ্যাকশন নেওয়া হবে।

প্রসঙ্গত, ট্রাফিক আইন অনুযায়ী প্রতি ১০০ মিলিলিটার রক্তে ৩০ মিলিগ্রামের বেশি অ্যালকোহল পাওয়া গেলে তার শাস্তি ৬ মাসের জেল অথবা ২০০০ টাকা জরিমানা।

Published by: Antara Dey
First published: December 24, 2020, 10:09 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर