পড়ুয়া নেই বিএড কলেজে, এখনও খালি ২৫ হাজার আসন

প্রশিক্ষণের জন্য কলেজ আছে। আসনও ফাঁকা। কিন্তু পড়ুয়া নেই। রাজ্যের বিএড কলেজগুলোয় এখন এমনই পরিস্থিতি। গত ৮ বছরে দু’দফায় শিক্ষক নিয়োগ করেছে স্কুল সার্ভিস কমিশন।

Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Aug 13, 2019 09:15 PM IST
পড়ুয়া নেই বিএড কলেজে, এখনও খালি ২৫ হাজার আসন
Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Aug 13, 2019 09:15 PM IST

#কলকাতা: দ্বিতীয় পর্যায়ে ভর্তি শেষ ১৪ অগাষ্ট। কিন্তু এখনও রাজ্যের বিএড কলেজগুলির বেশিরভাগ আসনই ফাঁকা। অথচ এ’রাজ্যে উচ্চ প্রাথমিক, নবম-দশম ও একাদশ-দ্বাদশে শিক্ষক নিয়োগে বিএড বাধ্যতামূলক। শিক্ষক নিয়োগে ধীর গতির জেরে বিএড পড়ার আগ্রহ কমছে।

প্রশিক্ষণের জন্য কলেজ আছে। আসনও ফাঁকা। কিন্তু পড়ুয়া নেই। রাজ্যের বিএড কলেজগুলোয় এখন এমনই পরিস্থিতি। গত ৮ বছরে দু’দফায় শিক্ষক নিয়োগ করেছে স্কুল সার্ভিস কমিশন। কিন্তু তাতে একাধিক আইনি জটিলতা। বারবার শিক্ষক নিয়োগে ধাক্কা খেয়েছে কমিশন। তার প্রভাব পড়েছে বিএডে পড়ুয়া ভর্তিতেও।

সরকারি বিএড কলেজ ১৮ ৷ বেসরকারি বিএড কলেজ ৪৩০ ৷ মোট আসন ৪০ হাজার ৷ ভর্তি মোটে ১৪ হাজার ৮৩৫ ৷ খালি আসন ২৫ হাজারেরও বেশি ৷

এ’রাজ্যে উচ্চ প্রাথমিক, নবম-দশম ও একাদশ-দ্বাদশে শিক্ষক নিয়োগে বিএড বাধ্যতামূলক। কিন্তু তা সত্ত্বেও পড়ুয়া ভর্তির হার তলানিতে। বিএডে দ্বিতীয় পর্যায়ে ভর্তি শেষ ১৪ অগাষ্ট। কিছু কিছু জেলার কলেজে ছাত্রের সংখ্যা দশও পেরোয়নি। এই পরিসংখ্যানে শোরগোল পড়েছে শিক্ষা মহলে। অন্যদিকে এবছর থেকে বিএড পড়ুয়াদের অ্যাটেনডেন্স রেজিস্টার তুলে দেওয়া হচ্ছে। বদলে চালু হচ্ছে বায়োমেট্রিক ব্যবস্থা। পড়ুয়ারা যাতে নিয়মিত ক্লাস করেন তার জন্যই এই নির্দেশিকা জারি করেছে এনসিটিই। তবে যাদের জন্য এই ব্যবস্থা তারাই এখন মুখ ফেরাচ্ছে।

First published: 09:15:36 PM Aug 13, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर