দেব নয়, ‘শঙ্কর’ যেন কমলেশ্বর নিজেই, একান্ত আড্ডায় শোনালেন অ্যামাজন অভিযানের গল্প !

সামনেই মুক্তি ৷ তাই এখন ভীষণ ব্যস্ততা ৷ তবুও ‘অ্যামাজন অভিযান’ ছবি নিয়ে যদি কেউ কথা বলতে চান, একেবারেই না নেই পরিচালক কমলেশ্বর মুখোপাধ্যায়ের মুখে

Akash Misra | News18 Bangla
Updated:Dec 19, 2017 07:58 PM IST
দেব নয়, ‘শঙ্কর’ যেন কমলেশ্বর নিজেই, একান্ত আড্ডায় শোনালেন অ্যামাজন অভিযানের গল্প !
Photo: SVF
Akash Misra | News18 Bangla
Updated:Dec 19, 2017 07:58 PM IST

#কলকাতা: সামনেই মুক্তি ৷ তাই এখন ভীষণ ব্যস্ততা ৷ তবুও ‘অ্যামাজন অভিযান’ ছবি নিয়ে যদি কেউ কথা বলতে চান, একেবারেই না নেই পরিচালক কমলেশ্বর মুখোপাধ্যায়ের মুখে ৷ বরং নিজেই সময় ঠিক করে, অনর্গল অ্যামাজন আড্ডা দিতে একেবারে রেডি কমলেশ্বর ৷ তাই তো ফোনের এপার থেকে প্রশ্ন কম, বরং পরিচালকের সঙ্গে অ্যামাজন আড্ডা-ই হয়ে গেল প্রায় ২০ মিনিট ! তবে বার্তালাপের সময় কুড়ি মিনিট হলেও, কথা কথায় অ্যামাজন দর্শন করালেন পরিচালক ৷ তিনিই যে বিভুতিভূষণের শঙ্কর ৷ যার হাতের মুঠোয় অ্যামাজনের রুট ম্যাপ ! তবে স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন ‘দেব না থাকলে  চাঁদের পাহাড় তৈরিই করতাম না!’

Director-kamaleswar-mukherjee Director-kamaleswar-mukherjee

অ্যামাজন অভিযান কতটা চাঁদের পাহাড় টু?

না না, ব্যাপারটা ওরকম নয় ৷ যদি সিকোয়েল হিসেবে ভাবা হয়, এই ছবি একেবারেই চাঁদের পাহাড় যেখানে শেষ, সেখান থেকে শুরু নয় ৷ বরং নতুন করে শঙ্করের অন্য এক অভিযান ৷ আসল ব্যাপারটা হল, চাঁদের পাহাড় তৈরি করার পর, সবার মধ্যেই একটা আশা জেগেছিল এরকম ধরণের আরেকটা ছবি করার ৷ আর তখনই বার বার সবাই আমাকে বলতেন চাঁদের পাহাড় টু করবেন না? আমার কিন্তু বেশ লাগত এই ব্যাপারটা, কিন্তু কখনই এই নামটাকে নিয়ে সিরিয়াস ভাবে কিছু ভাবিনি ৷ এমনকী, ভেক্টটেশ ফিল্মসের কাছে অনেকে জিজ্ঞেস করেছিল চাঁদের পাহাড় টুয়ের কথাও ৷ পুরো ব্যাপারটাই আসলে মুখে মুখে প্রচারিত ৷ চাঁদের পাহাড় তৈরি করেছিলাম বিভুতিভূষণের লেখনি থেকে অনু্প্রাণিত হয়ে ৷ আর অ্যামাজন অভিযান, আমার প্রিয় সাহিত্যিক সেই বিভুতিভূষণকেই ট্রিবিউট দিতে তৈরি ৷

চিত্রনাট্য লেখার সময় থেকে রেইকি, তারপর সিনেমার শ্যুটিং ৷ ভাবনায় কোনও রদবদল?

হ্যাঁ, তা তো হয়েইছে ৷ তবে চিত্রনাট্য খুব একটা বদল না হলেও, অ্যামাজনে পৌঁছে বার বার লোকেশন পাল্টাতে পাল্টাতে ক্লান্ত হয়ে গিয়েছিলাম ৷ আসলে অ্যামাজন তো রেইন ফরেস্ট, তাই রেইকির সময় যে জায়গাটা বেছে এসেছিলাম, পরে শ্যুটিংয়ের সময় গিয়ে দেখি সেটায় জল ভর্তি ! এরকম বহু জায়গার ক্ষেত্রে ঘটেছে ৷ তবে এই পরিবর্তন চিত্রনাট্যে খুব একটা এফেক্ট ফেলেনি৷

image-2017-12-17-2

গান, নাচের বাইরেও যে গোটা একটা ছবি বিদেশে গিয়ে শ্যুটিং হতে পারে বা বলা ভালো বাংলা থবিকে এতটা লার্জস্কেলে ভাবা, সেটা কিন্তু আপনি দেখিয়ে দিয়েছেন, এই চ্যালেঞ্জটা কি কেরিয়ারে প্রথম থেকেই মনে পুষে রেখেছিলেন যে এরকম একটা চমক দেবেন?

দেখুন, ব্যাপারটা আমি ঠিক এই ভাবে ভাবিনি কোনওদিন ৷ বিভুতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের লেখাকে পর্দায় আনতে গেলে তো একটু লার্জ ভাবে ভাবতেই হয় ৷ ছোটো করে ভাবার মতো তো উনি কোনও কিছুই লেখেন না ৷ তাই তো উনি আমার কাছে সেরা সাহিত্যিক ৷ আর এ ব্যাপারে প্রথমেই ধন্যবাদ জানাব ভেঙ্কটেশ ফিল্মসকে ৷ ভেঙ্কটেশ সঙ্গে ছিল বলেই এত বড় ভাবে ভাবতে পেরেছি ৷ যখন বাংলা ছবি লোকে দেখতে ভুলে গিয়েছিল সেই সময় আমার দিকে তাকিয়ে ‘চাঁদের পাহাড়ে’-এর মতো বিগ বাজেটের ছবি করার ঝুঁকি নিয়েছিল ভেঙ্কটেস ফ্লিমস। ওঁদের কুর্নিশ। হিট ফ্লপ পরের কথা। কিছু লোক আবার হলমুখি হয়েছে। আমাজনের মতো ছবি হচ্ছে। এটা বাংলা ছবির পক্ষে আশার কথা ৷ তাই নিজের তমক কখনই একে বলব না ৷

প্রথমে চাঁদের পাহাড়, অ্যামাজন, ককপিট ৷ দেবের সঙ্গে পর পর তিনটে ছবি ৷ ককপিটে তো দেবই প্রযোজক ৷ এই তিনটে ছবিতে দেব কতটা পরিণত ?

প্রথমেই একটা কথা বলে রাখি ৷ দেব না থাকলে হয়তো চাঁদের পাহাড় তৈরিই হতো না ! আর এখন বলব দেব না থাকলে অ্যামাজনও তৈরি হতো না ৷ আমার দেবের সঙ্গে দারুণ বন্ধুত্বের সম্পর্ক ৷ শুধু দেব কেন? রুক্মিণী, দেবের পরিবার সবার সঙ্গেই আমার যোগাযোগটা বেশ ভালো ৷ আমি দেবকে যতটা কাছ থেকে দেখছি, একটা কথা বলতে পারি যত দিন যাচ্ছে দেব কিন্তু ততটাই পরিণত হচ্ছে ৷ আর এটা দেবের কেরিয়ারের পক্ষে খুবই পজেটিভ সাইন ৷ ওর ভাবনা-চিন্তা, নিজেকে ক্রমশ বদলে নেওয়া খুব ভালো সাইন ! এই অভ্যাস দেবের থাকলে ওকে কেউ আটকাতে পারবে না ৷ তা নায়ক ও প্রযোজক দুই ক্ষেত্রেই !

image-2017-12-17-1

একদিকে চাঁদের পাহাড়, অ্যামাজন, ক্ষত, অন্যদিকে ককপিট ৷ নানারকম ছবি তৈরি করছেন, এর পিছনে কোনও বিশেষ কারণ?

আমি পরিচালক হিসেবে কখনই নিজেকে এক জায়গায় বেঁধে রাখতে চাইনি ৷ নানারকম ছবি তৈরি করতে চেয়েছি ৷ ভবিষ্যতেও তাই চাইব ৷ তাই এ ধরণের এক্সপেরিমেন্ট একেবারেই ইচ্ছে করে ৷

অ্যামাজনের পড়ে শঙ্করকে আরও কোথায় নিয়ে যাবেন ?

চাইলে শঙ্করকে অনেক জায়গাতেই নিয়ে যাওয়া যায় ৷ কারণ, শঙ্কর এমনই এক চরিত্র যাকে অনায়েসে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া যায় ৷ এর ভান্ডারের শেষ নেই ৷ তবে অ্যামাজনের পর শঙ্কর কোথায় যাবে তা পুরোটাই নির্ভর করছে প্রযোজকের ওপরে ৷ প্রযোজক যতদিন চাইবে ততদিন শঙ্করের অভিযান চলতে থাকবে !

First published: 07:31:55 PM Dec 19, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर