• associate partner
corona virus btn
corona virus btn
Loading

KKR vs SRH: কামিন্স-বরুণদের দুরন্ত বোলিংয়ের পর ব্যাটে দিল জিতলেন গিল, সহজ জয় নাইটদের

KKR vs SRH: কামিন্স-বরুণদের দুরন্ত বোলিংয়ের পর ব্যাটে দিল জিতলেন গিল, সহজ জয় নাইটদের
Photo Courtesy: IPLT20.com/BCCI

৭ উইকেটে জয়ী কেকেআর ৷

  • Share this:

Photo Courtesy: IPLT20.com/BCCI

সানরাইজার্স হায়দরাবাদ: ১৪২/৪ (২০ ওভার)

কলকাতা নাইট রাইডার্স: ১৪৫/৩ (১৮ ওভার)

৭ উইকেটে জয়ী কলকাতা নাইট রাইডার্স

#আবুধাবি: প্রথম ম্যাচে মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের বিরুদ্ধে ধরাশায়ী হওয়ার পর শনিবার হায়দরাবাদের বিরুদ্ধে ম্যাচ ছিল নাইটদের জন্য ঘুরে দাঁড়ানোর লড়াই ৷ আর সেই কাজে দারুণভাবে সফল শাহরুখ খানের দল ৷ ১৪৩ রানের টার্গেট তাড়া করতে নেমে ২ ওভার বাকি থাকতেই এদিন ম্যাচ জিতল কেকেআর ৷ সৌজন্যে অবশ্যই শুভমান গিল ৷ ৬২ বলে ৭০ রান করে শেষপর্যন্ত অপরাজিত থাকেন তিনি ৷ নাইটরাও ম্যাচ বের করে নেয় অনায়াসে ৷ ৭ উইকেটে হেরে এই নিয়ে পরপর দুটি ম্যাচে হার হজম ওয়ার্নারের সানরাইজার্সের ৷

টস জিতে এদিন প্রথমে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে ১৪২ রান তোলে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ ৷ ফলে জয়ের জন্য কলকাতার সামনে টার্গেট দাঁড়ায় ১৪৩ রানের ৷ রান তাড়া করতে নেমে একসময় তিন-তিনটি উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে গিয়েছিল কেকেআর ৷ কিন্তু নারিন, কার্তিকদের ব্যর্থতা ঢেকে দেন শুভমান গিল ৷ প্রথমে নীতিশ রানা (২৬) এবং পরে ইয়ন মর্গ্যানের সঙ্গে জুটিতে দলকে জয় এনে দেন শুভমান ৷ ২৯ বলে ৪২ রান করে নট আউট থাকেন মর্গ্যান ৷

এ দিন সানরাইজার্স হায়দরাবাদের বিরুদ্ধে বল হাতে দারুণ ছন্দে ধরা দেন প্যাট কামিন্স। হায়দরাবাদের বিস্ফোরক ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নারকে হাত খুলতেই দেননি অজি পেসার। বারবার ঝামেলায় ফেলেন আরেক ওপেনার জনি বেয়ারস্টোকেও। ওয়ার্নার-বেয়ারস্টো শুরু থেকে রুদ্র মূর্তি ধরতে না পারায় সানরাইজার্স হায়দরাবাদও ঝড় তুলতে পারেনি। শুরু থেকে রানের গতি না বাড়ায় ২০ ওভারে হায়দরাবাদ  ১৪২ রানই স্কোরবোর্ডে তুলতে সমর্থ হয়।

এ দিন শুরু থেকেই সানরাইজার্সের বিরুদ্ধে ছন্দে ছিল কেকেআর-এর বোলিং আক্রমণ৷ প্রথম ম্যাচে প্রত্যাশার ধারে কাছে না গেলেও এ দিন বল হাতে দুরন্ত পারফরম্যান্স করেন প্যাট কামিন্স৷ ৪ ওভারে মাত্র ১৯ রান দিয়ে একটি উইকেট নেন তিনি৷ শুরুতেই জনি বেয়ারস্টোকে ফিরিয়ে দিয়ে হায়দরাবাদ ব্যাটিংকে ধাক্কা দেন কামিন্সই৷ তবে কেকেআর-এর বোলিং আক্রমণে এ দিনের চমক ছিল তরুণ স্পিনার বরুণ চক্রবর্তী৷ গত বছর আইপিএল-এ আরসিবি-র হয়ে খেললেও সেভাবে সুযোগ পাননি বরুণ৷ এ দিন অবশ্য বল হাতে আক্রমণে এসে বিপজ্জনক ডেভিড ওয়ার্নারকে ফিরিয়ে দেন তরুণ এই স্পিনার৷ চার ওভারে মাত্র ২৫ রান দেন তিনি৷ তাঁকে খেলতে গিয়ে যথেষ্ট সমস্যায় পড়েন ওয়ার্নার, মনীশ পাণ্ডেরা ৷ ভাল বোলিং করেছেন মাভি এবং অ্যান্দ্রে রাসেলও ৷

হায়দরাবাদের হয়ে এ দিন প্রথম এগারোয় সুযোগ পেয়েছিলেন বাংলার ঋদ্ধিমান সাহা৷ চার নম্বরে নেমে খুব আক্রমণাত্মক ব্যাটিং করতে না পারলেও মনীশ পাণ্ডের সঙ্গে ৬২ রানের পার্টনারশিপ গড়েন তিনি৷ ৩১ বলে ৩০ রান করেন ঋদ্ধি ৷ তিন নম্বরে নেমে হায়দরাবাদের হয়ে সর্বোচ্চ ৫১ রান করেন মণীশ পান্ডে৷

Published by: Siddhartha Sarkar
First published: September 26, 2020, 11:43 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर