• associate partner
corona virus btn
corona virus btn
Loading

IPL 2020 : পুজোর উপহার দিল কেকেআর, তরুণ বরুণে পুড়ে গেল দিল্লি, ৫৯ রানে জিতল শাহরুখের দল

IPL 2020 : পুজোর উপহার দিল কেকেআর, তরুণ বরুণে পুড়ে গেল দিল্লি, ৫৯ রানে জিতল শাহরুখের দল
Photo Courtesy- IPL/Twitter

জিইয়ে রাখল প্লে অফের আশা৷ দারুণ খুশি নাইট ফ্যানরা৷

  • Share this:

#আবুধাবি:  এভাবেও ফিরে আসা যায়- প্রমাণ করল নাইটরা৷ এবার আর হারকে জিতনেওয়ালে কো বাজিগর কহতে হ্যায় বলার দরকার হল না৷  শেষ ম্যাচে বিরাট কোহলির দলের কাছে নক্কারজনক হারের পর কেকেআর ফ্যানরা বেশ মুষড়ে পড়েছিলেন৷ আর বাঙালির সেরা উৎসবের সেরা দিন অর্থাৎ দুর্গাষ্টমীতে আপামর বাঙালি কেকেআর ফ্যানের মন ভাল করে দিল শাহরুখ খানের ছেলেরা৷ দাপটের সঙ্গে ব্যাটিং-বোলিং করে দারুণ ফর্মে থাকা দিল্লিকে হারাল কেকেআর৷

এদিন টসে জিতে কলকাতা নাইট রাইডার্সকে (KKR) ব্যাট করতে পাঠায় দিল্লি ক্যাপিটাল্স (DC)৷ সিদ্ধান্তটা শুরুতে দিল্লির জন্য দারুণ ক্লিক করে যায়৷ এ মরশুমে কেকেআরকে ভরসা দেওয়া ব্যাট শুভমান গিল এদিন একেবারে ফ্লপ৷ মাত্র ৮ বলে ৯ রান করে প্যাভিলিয়নের রাস্তা ধরেন তিনি৷ নোর্ৎজের বিষাক্ত বোলিংয়ের শিকার তিনি৷ দ্বিতীয় উইকেট তুলে নিতেও দেরি করেননি তিনি৷ ১২ বলে ১৩ রান করা রাহুল ত্রিপাঠিকেও আউট করে দেন তিনি৷ অধিনায়কত্বের বোঝা ছেড়ে ব্যাটিংয়ে মন দেবেন জানিয়েছিলেন দীনেশ কার্তিক, কিন্তু তিনিও ফ্লপ৷ তাঁর অবদান মাত্র ৩৷  তাঁকে আউট করেন রাবাদা৷ এরকম ধুঁকতে থাকা নাইট ব্যাটিংয়ের হাল ধরেন নীতিশ রানা ও সুনীল নারিন৷ ওপেনিং স্লট হারিয়েছেন, কিন্তু এদিন দলের দুঃসময়ে হাত চালিয়ে দ্বিধাহীণ ভাবে খেলতে শুরু করেন নাইটদের বোলিং অলরাউন্ডার৷ নারিন এদিন মাত্র ৩২ বলে ৬৪ রানের একটি ঝোড়ো ইনিংস খেলেন৷

তাঁর এদিনের ইনিংস সাজানো ৬ টি চার ও ৪ টি ছয় দিয়ে৷ তাঁকে আউট করেন রাবাদা৷ অধিনায়ক ইয়ন মর্গ্যানও এদিন বেশি কিছু করতে পারেননি৷ তিনি ৯ বলে ১৭ করলেও বড় কিছু করতে পারেননি৷ তাঁর এদিনের ইনিংস ছিল ২ টি চার ও ১ টি ছয়৷ তবে নীতিশ রানা কোনও ভুল করেননি৷ দলের জন্য একটি দায়িত্বশীল ইনিংস খেলেন তিনি৷ তাঁর ৫৩ বলে ৮১ রান করেন তিনি৷

তাঁর ইনিংস সাজানো ১৩ টি চার ও ১ টি ছয় দিয়ে৷ এতেই বোঝা যাচ্ছে কতটা দায়িত্বশীল ভাবে নিজের ইনিংস প্ল্যান করেছিলেন তিনি৷

এঁদের ব্যাটে ভর দিয়ে ২০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৯৪ রান করে কেকেআর৷

এদিকে রান তাড়া করতে নেমে শুরুতেই হোঁচট খায় দিল্লি৷ শূন্য রানে আউট হয়ে যান অজিঙ্ক রাহানে৷ দুটি শতরান করা বোমা ফর্মে থাকা শিখর ধাওয়ানকেও এদিন খাপ খুলতে দেননি কামিন্স৷ ৬ বলে ৬ রান প্যাভিলিয়নে ফেরত যান তিনি৷

পরপর ২ টি আউটের ধাক্কা সামলাতে খানিকটা চেষ্টা করেছিলেন অধিনায়ক শ্রেয়স আইয়ার৷ তিনি ৩৮ বলে ৪৭ রান করেন৷ ঋষভ পন্থকে সঙ্গে নিয়ে তিনি যখন ব্যাট করছিলেন তখন দিল্লি একটা চেষ্টা করছিল৷ পন্থ এদিন করেন ৩৩ বলে ২৭ রান৷

তবে বিধ্বংসী ফর্মে থাকা বরুণ চক্রবর্তীর আগুনে বোলিংয়ে ঝলসে যায় দিল্লি৷ এই দুই ক্রিকেটারকেই প্যাকআপ করে দেন তিনি৷ এদিন এরপরেও তিনি হেটমেয়ার, স্টোয়নিস, অকসর প্যাটেলকে আউট করে দেন৷ টি টোয়েন্টিতে নিজের সেরা বোলিংটা এদিন করে নিলেন বরুণ চক্রবর্তী৷

এদিন তাঁর বোলিং স্পেল ৪ ওভারে ২০ রান দিয়ে ৫ উইকেট নেন তিনি৷ লেগ ব্রেক গুগলি বোলার এদিন নিজের কেরিয়ারের স্বপ্নের স্পেলটা করে ফেললেন৷ নারিন ও রানার ব্যাট এবং বরুণ ও কামিন্সের বলে এদিন ম্যাচ পকেটে পুরে প্লে অফের আশা জিইয়ে রাখল শাহরুখ খানের নাইটরা৷

Published by: Debalina Datta
First published: October 24, 2020, 7:09 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर