• associate partner
corona virus btn
corona virus btn
Loading

দলের নেতিবাচক দিক নিয়ে কিছু বলছেন কি? হারের পর মুখ খুললেন দিল্লি-অধিনায়ক শ্রেয়স আইয়ার!

দলের নেতিবাচক দিক নিয়ে কিছু বলছেন কি? হারের পর মুখ খুললেন দিল্লি-অধিনায়ক শ্রেয়স আইয়ার!
Photo Courtesy -IPL

প্লে-অফের প্রথম ম্যাচ হেরে যান শ্রেয়স, ধাওয়ানরা।

  • Share this:

#দুবাই: প্লে-অফের প্রথম ম্যাচে মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের কাছে হার শিকার করতে হয়েছে। একটা সময় ভালো জায়গায় থাকলেও, হার্দিক, ঈশানরা ম্যাচের রং বদলে দেন। আর এর জেরে ৫৭ রানে হেরে যায় অধিনায়ক শ্রেয়স আইয়ারের দল। তবে ম্যাচ হারলেও মাইন্ডসেট পজিটিভ রাখতে চান অধিনায়ক। দলের নেগেটিভ দিকগুলি নিয়ে কোনও কথা বলতে চান না। আসুন জেনে নেওয়া যাক কী বললেন দিল্লি ক্যাপিটাল্সের অধিনায়ক শ্রেয়স আইয়ার। অধিনায়ক শ্রেয়সের কথায়, ম্যাচটা খুব কঠিন হয়ে গিয়েছিল। তবে দলের নেতিবাচক দিক নিয়ে কথা বলে লাভ নেই। বরং পরের ম্যাচে পজিটিভ মাইন্ডসেট নিয়ে নামতে হবে পুরো দলকে। গতকালের ম্যাচের প্রথম ইনিংসের শেষের দিকে যে দিল্লি ভুল করেছে, তা অবশ্য স্পষ্ট হয়েছে অধিনায়কের কথায়। শ্রেয়স জানান, ম্যাচের প্রথমের দিকে পরিস্থিতি এ রকম ছিল না। দু'টি বড় উইকেট ছিনিয়ে নিয়েছিল দিল্লি। ১৩-১৪ ওভারের আশেপাশে তখন ১১০ রানে চার উইকেট। এই সময়ে যদি আরও দু'টি উইকেট পড়ে যেত, তা হলে হয় তো রানটা নিয়ন্ত্রণে থাকত। ১৭০ রানের আশেপাশে টার্গেট হত। কিন্তু আশানুরূপ কিছুই হয়নি। তবে এটি খেলার অংশই বলে জানাচ্ছেন অধিনায়ক। তাঁর কথায়, ম্যাচের প্রতিটি রাত নিজের ইচ্ছে মতো হয় না। শেষ পাঁচ ম্যাচে এ নিয়ে চারটি ম্যাচ হারল দিল্লি। কী ভাবে উইনিং মোমেন্টাম খুঁজে পাবে দল? অধিনায়ক বলছেন, আপাতত মাইন্ডসেট পজিটিভ রাখতে হবে। সামনে কী কী সুযোগ রয়েছে, সেটাকে কাজে লাগাতে হবে। তবে এত দিন অর্থাৎ এই ১৪ ম্যাচে সতীর্থরা সবাই মিলে যে চেষ্টা চালিয়েছে, কঠিন পরিশ্রম করেছে, তাকে কুর্নিশ জানিয়েছেন শ্রেয়স।

গতকালের ম্যাচে দিল্লির কাছে পাওনা হল রবিচন্দ্র অশ্বিন। অন্যান্য বোলাররা যেখানে কার্যত দিশেহারা, সেখানে চার ওভার বল করে ২৯ রান দিয়ে তিন উইকেট নেন অশ্বিন। তাই এই স্পিনারের প্রশংসা করতে ভোলননি অধিনায়ক শ্রেয়স। শ্রেয়স আইয়ার বলেন, ব্রিলিয়ান্ট, বরাবরই টিমের পাশে দাঁড়িয়েছেন অশ্বিন। পরিস্থিতি বুঝে ব্যাটসম্যানদের খেলান তিনি। একই সঙ্গে বিপক্ষে দলের ব্যাটসম্যানদের প্রশংসাও করেছেন দিল্লির অধিনায়ক। তাঁর কথায়, মুম্বই টিমে প্রতিটি ব্যাটসম্যান ফর্মে রয়েছেন। বিশেষ করে নিচের দিকে পোলার্ড ও হার্দিক রয়েছেন। যে কোনও মুহূর্তে বড় স্কোর খাড়া করে দিতে পারেন তাঁরা। তাই উপরের দিকে ব্যাটসম্যানরাও হাত খুলে খেলতে পারেন। প্রসঙ্গত, কাল প্লে অফের প্রথম ম্যাচে টসে জিতে বল করার সিদ্ধান্ত নেয় দিল্লি ক্যাপিটালস। তবে দুবাই ইন্টারন্যাশনাস স্টেডিয়ামে তাঁদের এই সিদ্ধান্ত খুব একটা কাজে দেয়নি। ওপেনার ডিকক, মাঝে সূর্যকুমার ও ঈশান কিষান এবং শেষে হার্দিকের দুরন্ত ইনিংসে ২০ ওভারে ২০০ রান করে মুম্বই ইন্ডিয়ানস। এ দিকে শুরুতেই বেশ কয়েকটি উইকেট পড়ে যায় দিল্লির। স্টোয়নিস, অক্ষর পটেলরা চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু ১৪০ রানে থেমে যায় দিল্লির ইনিংস। আর প্লে-অফের প্রথম ম্যাচ হেরে যান শ্রেয়স, ধাওয়ানরা।

Published by: Debalina Datta
First published: November 6, 2020, 11:56 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर