• associate partner
corona virus btn
corona virus btn
Loading

আইপিএলের টাইটেল স্পনসর চিনা মোবাইল সংস্থা VIVO-ই, থাকছে কোভিড রিপ্লেসমেন্ট

আইপিএলের টাইটেল স্পনসর চিনা মোবাইল সংস্থা VIVO-ই, থাকছে কোভিড রিপ্লেসমেন্ট

১৯ সেপ্টেম্বর থেকেই শুরু আইপিএল। শুধু বদলে গেল ফাইনালের দিন। ৮ তারিখের বদলে সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে ফাইনাল হবে ১০ নভেম্বর।

  • Share this:

#কলকাতা: আইপিএলে থাকছে চিনা স্পনসরই। চালু হচ্ছে কোভিড সাবস্টিটিউট। টুর্নামেন্ট চলাকালীন কোভিড ১৯-এ কোনও ক্রিকেটার আক্রান্ত হলে পরিবর্ত ক্রিকেটার নিতে পারবে ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলি। আইপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের বৈঠকে এমনটাই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে রবিবার। ১৯ সেপ্টেম্বর থেকেই শুরু আইপিএল। শুধু বদলে গেল ফাইনালের দিন। ৮ তারিখের বদলে সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে ফাইনাল হবে ১০ নভেম্বর। দিন বদলের সঙ্গেই প্রথা ভাঙল বোর্ড। এই প্রথম রবিবারের বদলে ফাইনাল হবে মঙ্গলবার।

কথা ছিল বৈঠক শুরু হবে রবিবার বেলা ১২টায়। কিন্তু প্রায় ছ’ঘণ্টা পর, বিকেল পাঁচটায় শুরু হয় আইপিএলের গভর্নিং কাউন্সিলের ভার্চুয়াল বৈঠক। কীসের অপেক্ষায় এত দেরি হল, তা খোলসা করেননি বোর্ড কর্তারা ৷ ৫৩ দিনে হবে ৬০টি ম্যাচ। প্রাথমিক ভাবে ঠিক হয়েছে, ডবল হেডার হবে ১০টি। ম্যাচ শুরু সময় এগিয়ে আনা হল আধ ঘণ্টা। ভারতীয় সময় সন্ধে সাড়ে সাতটায় শুরু হবে ম্যাচ ।

এদিকে ভারত-চিন সীমান্ত সংঘর্ষে সম্প্রতি উত্তাল হয়েছে পূর্ব লাদাখ। গালোয়ানের ঘটনার পর কূটনৈতিক স্তরে দু’দেশের সম্পর্কে টানাপোড়েন বেড়েছে। ইতিমধ্যেই দু’দফায় বেশ কিছু চিনা অ্যাপ নিষিদ্ধ করেছে দিল্লি। সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডও দাবি করেছিল, আইপিএল স্পনসর চিনা মোবাইল কোম্পানি ভিভোর সঙ্গে সম্পর্কের পর্যালোচনা করার। কিন্তু রবিবার জল্পনার অবসান ঘটিয়ে চুক্তি মেনেই এই মরশুমে আইপিএলের টাইটেল স্পনসর চিনা মোবাইল সংস্থা ভিভোতেই সিলমোহর বসানো হল।

দলগুলির কাছে থাকছে কোভিড রিপ্লেসমেন্ট নেওয়ার সুযোগ। এই পরিবর্তনের ক্ষেত্রে কোন নির্দিষ্ট সংখ্যাা থাকছে না। যত ক্রিকেটার আক্রান্ত হবে সম সংখ্যায় বিকল্প ক্রিকেটার নেওয়া যাবে। এদিনের বৈঠক থেকেই প্রতি দলকে ভিসার প্রক্রিয়া শুরুর কথা বলা হয়েছে। ২৬ অগাস্টের পর থেকে বিরাট-ধোনিদের নতুন ডেরা হতে চলেছে সংযুক্ত আরব আমিরশাহি। লকডাউনের জেরে বন্ধ আন্তর্জাতিক উড়ান। তাই দেশি-বিদেশি সব ক্রিকেটারদের থাকছে চাটার্ড উড়ানের ব্যবস্থা। ২৪০ পাতার সুরক্ষা বিধি চূড়ান্ত করতে দায়িত্ব দেওয়া হচ্ছে এক বেসরকারি সংস্থাকে।

আইপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের বৈঠকে চূড়ান্ত হলো সবকিছু। তবে এখনও বিদেশের মাটিতে আইপিএল করার পুরোপুরি অনুমতি দেয়নি কেন্দ্র। সবুজ সংকেত আসেনি বিদেশ এবং কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক থেকে। সূত্রের দাবি, লিখিত না হলেও বিদেশের মাটিতে আইপিএল করার ব্যাপারে কেন্দ্রের থেকে মৌখিক সম্মতি আদায় করেছেন বোর্ড কর্তারা।

বৈঠক শেষে বোর্ড সচিব জয় শাহের বিবৃতি.... "দুবাই, শারজা ও আবুধাবিতে আইপিএল ম্যাচ করার কথা ভেবেছে বোর্ড। তবে এর জন্য কেন্দ্রের অনুমতির অপেক্ষা করা হচ্ছে।" ২১৪-এর পর আবার ২০২০। ফের আইপিএলের আসর সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে। আইপিলের দিন চূড়ান্ত হওয়ার দিনেই এমিরেটস ক্রিকেট বোর্ডের দাবি, আমিরশাহি সরকারের অনুমতিতে টুর্নামেন্টের পরবর্তী সময়ে ম্যাচ দেখার সুযোগ পাবেন তিরিশ শতাংশ দর্শক। এই পরিস্থিতিতে ১ থেকে ১০ নভেম্বর তিনটি দল নিয়ে  মেয়েদের চ্যালেঞ্জার্স হতে চলেছে সংযুক্ত আমিরশাহিতে। ঘোষণা বোর্ড প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের।

Eeron Roy Barman

Published by: Siddhartha Sarkar
First published: August 3, 2020, 7:36 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर