• associate partner
corona virus btn
corona virus btn
Loading

চোট ভাগ্যে বারবার ধাক্কা খেয়েছে সুপারম্যানের স্বপ্ন, অস্ট্রেলিয়া সফরে অনিশ্চিত ঋদ্ধি

চোট ভাগ্যে বারবার ধাক্কা খেয়েছে সুপারম্যানের স্বপ্ন, অস্ট্রেলিয়া সফরে অনিশ্চিত ঋদ্ধি

এখন দেখার বিসিসিআই কর্তারা শেষ পর্যন্ত কি সিদ্ধান্ত নেন ঋদ্ধির অস্ট্রেলিয়া সফর নিয়ে।

  • Share this:

#কলকাতা: চোট তাঁকে বারবার সমস্যায় ফেলেছে। চোট এবং অস্ত্রোপচারের কারণে ভারতীয় দলের বাইরে থাকতে হয়েছে অনেকটা সময়। তাঁর ঘনিষ্ঠরা অনেক সময় বলেন ছেলেটার কপালই মন্দ। গুরুত্বপূর্ণ সময়ে চোট বারবারই লড়াই থেকে পিছিয়ে দিয়েছে। এবারও সেই চোট সমস্যায় জর্জরিত ঋদ্ধিমান সাহা।

এই মুহূর্তে ভারতের সেরা উইকেটরক্ষকের অস্ট্রেলিয়া সফর ঘিরে একটা অনিশ্চয়তার মেঘ। হ্যামস্ট্রিংয়ের চোটে আইপিএলের প্লেঅফে খেলা হয়নি। এমআরআই করার পর দেখা গেছে হ্যামস্ট্রিং ছিঁড়েছে। দুটো পায়ে চোট রয়েছে। চিকিৎসকের পরামর্শ মেনে আপাতত বিশ্রাম। মঙ্গলবার আইপিএল ফাইনাল হওয়ার পরই ১২ নভেম্বর অস্ট্রেলিয়া উড়ে যাবে ভারতীয় দল। করোনা আবহে টি-টোয়েন্টি, একদিন এবং টেস্ট দলের ক্রিকেটাররা একসঙ্গে অস্ট্রেলিয়া যাবেন। সেই দলে রয়েছেন বাংলা ঋদ্ধিমান। তবে শেষ পর্যন্ত সেই বিমানে উঠবেন কিনা তা এখনও চূড়ান্ত নয়। বিসিসিআই সূত্রে খবর, ঋদ্ধির মেডিক্যাল রিপোর্ট দেখার পর চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে প্রথমে একদিনের সিরিজ এবং তারপর টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলবে ভারতীয় দল। ১৭ ডিসেম্বর থেকে টেস্ট সিরিজ শুরু। চার ম্যাচের টেস্ট সিরিজ। সেই টেস্ট সিরিজে উইকেটকিপার হিসেবে রবি শাস্ত্রী দলের প্রথম পছন্দ অবশ্যই ঋদ্ধিমান সাহা। অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে বাউন্সের বিরুদ্ধে ঋদ্ধি উইকেটকিপিং বিরাট ভরসা। তবে টেস্ট সিরিজে খেলতে পারবেন কিনা তা নিয়ে এখনও নিশ্চয়তা মেলেনি। এমনিতে হ্যামস্ট্রিংয়ের চোট হলে সাধারণত দুই থেকে তিন সপ্তাহ বিশ্রামের প্রয়োজন হয়। টেস্ট সিরিজের আগে ঋদ্ধির হাতে এক মাস সময় রয়েছে ফিট হওয়ার জন্য। অস্ট্রেলিয়ায় গিয়ে দলের সঙ্গে থেকেই ফিট হতে পারবেন ঋদ্ধি। তবে ঋদ্ধিকে নিয়ে যাবার ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন বিসিসিআই। মেডিক্যাল রিপোর্ট খতিয়ে দেখেই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে খবর।

Photo Courtesy: Sunrisers Hyderabad Photo Courtesy: Sunrisers Hyderabad

দিল্লির বিরুদ্ধে গ্রুপের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে ব্যাট করার সময় হ্যামস্ট্রিংয়ে চোট পান ঋদ্ধি। দুরন্ত ৮৭ রান করার পর উইকেটকিপিং করেননি। বরফ লাগিয়ে কিছুটা স্বস্তি মেলে। সেই ম্যাচের পর আরও দুটি ম্যাচে খেলেন পাপালি। সব সমালোচনার যোগ্য জবাব দেন ব্যাটিংয়ে পারফর্ম করে। একদিনের দলে ঋদ্ধিকে সুযোগ দেয়ার ব্যাপারেও দাবি জোরালো হয়। সচিনের প্রশংসা মেলে। তবে এর মধ্যেই চোট বাড়তে থাকায় প্লে অফ পর্ব থেকে নিজেকে সরিয়ে নেন ঋদ্ধি। ঝুঁকি নিয়ে ম্যাচ খেলতে রাজি হননি। ফ্র্যাঞ্চাইজির পক্ষ থেকে এমআরআই করা হয়।

রবিবার দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ার ম্যাচে নামার আগে সানরাইজার্সের অধিনায়ক ওয়ার্নার জানিয়ে দেন ঋদ্ধির হ্যামস্ট্রিং ছিঁড়ে গেছে। ঋদ্ধির ঘনিষ্ঠ মহল সূত্রে খবর, অতীতে বছর কয়েক আগে চোট নিয়ে কলকাতার বিরুদ্ধে ইডেনে প্লে-অফে খেলেছিলেন ঋদ্ধি। তাতে হিতে বিপরীত হয়। চোট বেড়ে যাওয়ায় শেষ পর্যন্ত অস্ত্রোপচার করতে হয় ইংল্যান্ডে। টিম ইন্ডিয়ার হয়ে বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ সিরিজ খেলতে পারেননি। তাই এবার ঝুঁকি নিতে রাজি হননি পাপালি। তবে এখন দেখার বিসিসিআই কর্তারা শেষ পর্যন্ত কি সিদ্ধান্ত নেন ঋদ্ধির অস্ট্রেলিয়া সফর নিয়ে।

ঈরন রায় বর্মন

Published by: Siddhartha Sarkar
First published: November 9, 2020, 12:56 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर