• Home
  • »
  • News
  • »
  • ipl
  • »
  • CHINESE SMARTPHONE MANUFACTURER VIVO PULLS OUT AS TITLE SPONSOR OF IPL 2020 SS

IPL স্পনসর হিসেবে সরল VIVO, খোঁজ নতুন স্পনসরের, দ্রুত টেন্ডার ডাকতে চলেছে বোর্ড

খুব অল্প দিনের মধ্যেই আইপিএলের নতুন স্পনসরের খোঁজে টেন্ডার ডাকতে চলেছে বিসিসিআই ৷

খুব অল্প দিনের মধ্যেই আইপিএলের নতুন স্পনসরের খোঁজে টেন্ডার ডাকতে চলেছে বিসিসিআই ৷

  • Share this:

    #মুম্বই: এ বছরের জন্য আইপিএল থেকে স্পনসর হিসেবে নিজেদের সরিয়ে নিল চিনা স্মার্টফোন সংস্থা ভিভো ৷ রবিবার আইপিএলের টাইটেল স্পনসর হিসেবে ভিভোতেই সিলমোহর বসায় বোর্ড। এরপরেই বিভিন্ন মহল থেকে সমালোচনার ঝড় ওঠে। তারপর দু’দিন যেতে না যেতেই আইপিএলের মূল স্পনসরশিপ থেকে সরে দাঁড়াল ভিভো ৷

    পূর্ব লাদাখের গালওয়ান সীমান্তে ভারত-চিন সেনার সংঘর্ষে শহিদ হন ২০ জন ভারতীয় জওয়ান। এরপরই দেশ জুড়ে চিনা সামগ্রী বয়কটের ডাক ওঠে। দু’দফায় বেজিংয়ের উপর ডিজিট্যাল স্ট্রাইক দিল্লি। নিষিদ্ধ অসংখ্য চিনা অ্যাপ। সেই সময় দাঁড়িয়ে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের প্রতিশ্রুতি ছিল, চিনা স্পনসরদের বিষয়টি তারাও পর্যালোচনা করে দেখবে। কিন্তু গত রবিবার আইপিএলের দিন ঠিক করতে বসে, ১৮০ ডিগ্রি ঘুরে মূল স্পনসর হিসেবে চিনা মোবাইল কোম্পানি ভিভোতেই সিলমোহর বসানো হয়।

    সূত্রের দাবি, পূর্ব লাদাখের ঘটনার পরেও ভিভোর নাম ঘোষণায় ক্ষোভ বাড়ে আইপিএলের অন্দরেই। সোমবার ভিভোর বিরুদ্ধে প্রতিবাদে সরব হয় বেশ কয়েকটি ফ্র্যাঞ্চাইজি। নিজেদের মধ্যে আলোচনা করে চিনা মোবাইল সংস্থার বিরুদ্ধে তাদের সিদ্ধান্তের কথা জানায় আইপিএল গভর্নিং কাউন্সিলকে। শুধু ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলি নয়, সোশ্যাল মিডিয়ায় আইপিএল ও ভিভোর বিরুদ্ধে প্রতিবাদের ঝড় ওঠে। ভিভোর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়ে চিঠি দেওয়া হয় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের কাছে।

    প্রাক্তণ ভারতীয় ক্রিকেট অরুণলালের মতে, ‘‘দেশের স্বার্থ আগে দেখা উচিত। ভিভো টাইটেল স্পনসর হিসেবে না থাকলেই খুশি হব ৷’’

    এক সর্বভারতীয় দৈনিকের খবর অনুযায়ী, কার্যত এই চাপের মুখেই এই বছরের জন্য আইপিএল থেকে নিজেদের সরিয়ে নিয়েছে চিনা এই মোবাইল কোম্পানি। তাদের এই ভাবনায় এখন বেশ বেকায়দায় ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। কারণ ২০১৭ চিনা মোবাইল কোম্পানির সঙ্গে চুক্তি হয় ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের। রেকর্ড টাকার অঙ্কে পাঁচ বছরের জন্য আইপিএলের টাইটেল স্পনসর হয় ভিভো। প্রতিবছর আইপিএলের জন্য ৪৪০ কোটি টাকা বোর্ডকে দেয় তারা। এবার এত বিপুল অঙ্কের স্পনসরশিপ এই কোভিড ক্রাইসিসে কোন সংস্থা করার ইচ্ছেপ্রকাশ করবে ? তা নিয়ে অবশ্যই চিন্তায় বোর্ড ৷ জানা গিয়েছে, এ বছর আইপিএল ভারত থেকে সরে যাওয়ার পর থেকেই টুর্নামেন্টের টাইটেল স্পনসরশিপ হিসেবে আগ্রহ হারায় ভিভো ৷ সূত্রের খবর, কোভিডের মন্দার বাজারে এত বিপুল পরিমাণ স্পনসরশিপের অর্থ দিতে রাজি ছিল না ভিভোও ৷ সব দিক বিবেচনা করেই আপাতত এ বছরের জন্য আইপিএলের টাইটেল স্পনসরশিপ থেকে সরে দাঁড়িয়েছে চিনা স্মার্টফোন প্রস্তুতকারক সংস্থা ৷ খুব অল্প দিনের মধ্যেই নতুন স্পনসরের খোঁজে টেন্ডার ডাকতে চলেছে বিসিসিআই ৷

    Published by:Siddhartha Sarkar
    First published: