বিদেশ

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

বিশ্ব দৃষ্টি দিবস: লেগোর খেলনা ব্লক দিয়েই শিশুরা শিখবে ব্রেইল পদ্ধতি!

বিশ্ব দৃষ্টি দিবস: লেগোর খেলনা ব্লক দিয়েই শিশুরা শিখবে ব্রেইল পদ্ধতি!
প্রতীকী চিত্র|Credit: Canva

বিশ্বের প্রথম সারির এই খেলনা প্রস্তুতকারক সংস্থা নিয়ে এসেছে এমন এক ব্লক সেট যার মাধ্যমে শিশুরা খেলতে খেলতেই ব্রেইল পদ্ধতি শিখে নিতে পারবে।

  • Share this:

এই মুহূর্তে বিশ্বে প্রায় ১৪ লক্ষ শিশু দৃষ্টিহীনতা বা স্বল্পদৃষ্টিজনিত অসুবিধার শিকার!স্বাভাবিক ভাবেই এই সব শিশুদের জীবনও যাতে আনন্দে পরিপূর্ণ হয়, যাতে আর পাঁচটি শিশুর মতো তাদের শৈশবও থাকে খেলার সুখস্মৃতিতে ভরা, সে লক্ষ্যে এক অভিনব ব্যবস্থা করেছে লেগো। বিশ্বের প্রথম সারির এই খেলনা প্রস্তুতকারক সংস্থা নিয়ে এসেছে এমন এক ব্লক সেট যার মাধ্যমে শিশুরা খেলতে খেলতেই ব্রেইল পদ্ধতি শিখে নিতে পারবে।

যে মানুষদের দৃষ্টিশক্তির সমস্যা নিয়ে পড়তে হয় অসুবিধার মুখে, তাঁদের জন্যই আবিষ্কার করা হয়েছিল এই ব্রেইল পদ্ধতি। এই পদ্ধতিতে নানা দাগ বা ফুটকিতে আঙুল বুলিয়ে অক্ষর চিনতে শেখেন দৃষ্টিহীনরা। সেই মতো এই পদ্ধতির সাহায্যে চলতে থাকে তাঁদের পঠনপাঠনের মতো গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টি।

খবর বলছে, বেশ কিছু স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা, যারা দৃষ্টিহীন এবং স্বল্পদৃষ্টিজনিত মানুষদের নিয়ে কাজ করছেন, তাদের সঙ্গে হাত মিলিয়ে বিশেষ ধরনের এই ব্লক সেট তৈরি করে উঠতে পেরেছে লেগো। এই স্বেচ্ছাসেবী সংস্থাগুলোর মধ্যে বিশেষ করে এ কাজে লেগোকে সাহায্য করেছে রয়্যাল ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অফ ব্লাইন্ড পিপল এবং লিওনার্ড চেশায়ার। দৃষ্টিশক্তির সমস্যার সঙ্গে যুদ্ধ করে চলেছে, এমন বেশ কিছু শিশুদের স্কুলে এর মধ্যেই লেগোর এই ব্লক সেটের প্রচার করা হয়েছে। দেখা গিয়েছে, শিশুদের কোনও অসুবিধা হচ্ছে না খেলতে এবং শিখতে।

খবর বলছে যে লেগোর এই বিশেষ ধরনের ব্লক সেটের উপরে রয়েছে ব্রেইলের ফুটকি। ফলে, ব্লকগুলো ঠিক ভাবে সাজাতে পারলেই ব্রেইল শিক্ষাপদ্ধতি আয়ত্ত করতে পারবে শিশুরা। অবশ্য শুধু দৃষ্টিশক্তির সমস্যা রয়েছে এমন শিশুই নয়, স্বাভাবিক শিশুরাও উপভোগ করতে পারবে লেগোর এই ব্লক সেট। তেমনটাই দাবি করা হয়েছে সংস্থার তরফে। সে কারণে তাদের কথা মাথায় রেখে ব্লকের মাথায় নানা লেখা আর ছবিও আছে। যাতে ইচ্ছা করলেই তারা দৃষ্টিশক্তির সমস্যা রয়েছে এমন বন্ধুকে সাহায্য করতে পারে!

Written By: Anirban Chaudhury

Published by: Arka Deb
First published: October 7, 2020, 7:21 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर